আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ২৬ অক্টোবর ২০২১ ● ১১ কার্তিক ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ২৬ অক্টোবর ২০২১

নির্বাচন সুষ্ঠু হলে সংসদ নেতা আমি হতাম: খালেদা

সোমবার, ১৬ জুন ২০১৪, রাত ১১:৫৪

khaledaগত ৫ জানুয়ারি নির্বাচন সুষ্ঠু হলে আমি বিরোধীদলীয় নেতা নই সরকারি দলের নেতা হয়ে সরকার গঠন করতাম বলে দাবি করেছেন বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া।

সোমবার রাতে চেয়ারপার্সনের গুলশান রাজনৈতিক কার্যালয়ে ‘সংবাদপত্রের কালোদিবস উপলক্ষে’ শীর্ষক এক মতবিনিময় তিনি এ দাবি করেন।

বেগম খালেদা জিয়া বলেন, আমি বিরোধী দলের নেতা নই। আমি জনগণের নেতা। দেশের ৯৫ শতাংশ জনগণ আমার পক্ষে। যদি গত ৫ জানুয়ারি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন হতো তাহলে আমি বিরোধীদলীয় নেতা নই, সংসদ গঠন করতাম। কাজেই আলোচনা যতি করতে হয় আমার সাথেই করতে হবে। কারণ আমি জনগণের নেতা।

খালেদা জিয়া বিরোধীদলীয় নেতা নয়- প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তিনি এ সব কথা বলেন।

বেগম খালেদা জিয়া বলেন, হায়েনা ও খুনিদের হাত থেকে দেশকে রক্ষ করতে হবে। কারণ সরকার র‌্যাবকে দিয়ে দেশের সকল হত্যাকান্ড সংর্গঠিত করাচ্ছে।  এবং র‌্যাব বর্তমানে টাকার বিনিময়ে মানুষ হত্যা করছে। সুতরাং র‌্যাবকে বিলুপ্তি করতে হবে।

শেখ হাসিনা সন্ত্রাসীদের পক্ষ নিয়ে কথা বলেন অভিযোগ করে তিনি বলেন, হাসিনা গডফাদারদের মাদার হয়ে থাকতে চান। এই কারণে তিনি সব সময় খুনিদের পক্ষ নিয়ে কথা বলেন। জনগণের পক্ষে তিনি কথা বলেন না।

খালেদা জিয়া বিরোধী দলীয় নেত্রী নয়, তার সাথে কিসের আলাপ-প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্যে প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমিও আপনাকে বলতে চাই, আপনিতো জনগণের ভোটে নির্বাচিত না হয়ে সংসদ গঠন করেছেন।

বিহারি ক্যাম্পের হত্যার প্রসঙ্গে বিএনপির নেত্রী বলেন, স্থানীয় সংসদ সদস্য ইলিয়াস মোল্লা এই হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত। কিন্তু তাকে এখন পর্যন্ত গ্রেপ্তার করা হয়নি। তিনি অবিলম্বে ইলিয়াস মোল্লা গ্রেপ্তার করার দাবি জানান।

দেশের সকল হত্যাকান্ড তুলে ধরে বেগম জিয়া বলেন, আজ হত্যাকান্ডের বিচার হোক আর না হোক। এক দিন এই সকল মানবতাবিরোধী হত্যার বিচার করা হবে।
তিনি বলেন, সরকারকে বিদায় করতে কে বড় আর কে ছোট তা ভাবার এখন সময় নেই। এখন দেশে ও দেশের মানুষকে বাঁচাতে সবাই ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠিত করে দেশের গণততন্ত্র ফিরে আনতে।

গণতন্ত্র ছাড়া ছাড়া সংবাদপত্রের স্বাধীনতা অর্থহীন। যেখানে গণতন্ত্র নাই সেখানে সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বৈঠকে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাংবাদিক ইউনিয়নের মহাসচিব এম এ আজিজ, সাবেক সভাপতি রুহুল আমীন গাজী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবদাল আহমেদ, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন একাংশের সভাপতি কবি আব্দুল হাই শিকদার, সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম প্রধান প্রমুখ।

বিএনপির পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম, আর এ গণি প্রমুখ।  

মন্তব্য করুন


Link copied