Templates by BIGtheme NET
আজ- রবিবার, ২৫ অক্টোবর, ২০২০ :: ১০ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৭ : ৪৮ পুর্বাহ্ন
Home / বিনোদন / ভারতে রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র নাটকের সংলাপে তৃণমূলের বাঁধা সত্বেও মঞ্চ জয়

ভারতে রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র নাটকের সংলাপে তৃণমূলের বাঁধা সত্বেও মঞ্চ জয়

বিনোদন ডেস্ক: “ইচ্ছা করে ঐ মালাউনের বাচ্চার নেংটিটা আমি খুইল্যা ফালাই। কন কি হুজুর, গান্ধীর তো থাকনের মধ্যে আছে ঐ নেংটি-ঐটা খুইল্যা ফালাইলে, আরতো কিছু থাকে না। চুপ কর, গান্ধীর নেংটি কোন সমস্যা না। সমস্যা হইলো হিন্দুস্তান।”

কথাগুলো বাংলাদেশের প্রখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা, পরিচালক, অভিনেতা, নাট্যকার ও নির্দেশক প্রয়াত আব্দুলাহ আল মামুন রচিত নাটক মেরাজ ফকিরের মা’র একটি দৃশ্যের সংলাপ। নাটকে এই শব্দবন্ধনী থাকায় ভারতের পশ্চিমবঙ্গের কোচবিহার জেলার দিনহাটায় ক্ষমতাসীন রাজ্য সরকারের প্রভাবশালী মমতানুসারী তৃণমূল নেতাদের বাঁধা আর হামলার আতঙ্কে কিছু সংলাপ বাদ দিয়ে হলেও রংপুরের নাট্যকেন্দ্র জয় করেছে হিন্দুস্তানের মঞ্চ। তৃণমূলদের বাঁধা আর নির্লজ্জ ফতোয়ায় নাটকের সংলাপে কাঁচি চললেও দর্শক হদয়ের অনুরাগে কোন কাঁচি চালাতে পারেনি তারা। বরং প্রতিবারই নাটকের একটি করে দৃশ্য শেষে বজ্রের মতো ঝরেছে দর্শক হাততালি। সেই ভালোবাসা নিয়েই ভারতে ৫টি নাট্যোৎসবে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করে এলো রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র ক্ষুদে ও বড় তারকা শিল্পীরা।
গত শুক্রবার ১৮ দিনের লম্বা ভারত সফর শেষে দেশে ফিরে রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র শিল্পীরা বেশ প্রফুল্ল চিত্তে সন্ধ্যায় সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় করেন। এসময় রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র সভাপতি কাজী মোঃ জুননুন এর সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক ও ‘মেরাজ ফকিরের মা’ নাটকের নির্দেশক রাজ্জাক মুরাদ বলেন, কোচবিহার জেলার দিনহাটায় তৃণমূলী নেতাদের নাটকের সংলাপে বাঁধা, নির্লজ্জ ফতোয়া আর হামলা আতঙ্ক ছাড়া সেখানে অন্য কোনো সমস্যা হয়নি। আমরা সবখানেই বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছি। বিশেষ করে ভারতের দর্শক হদয়ে বাংলাদেশ বিশাল জায়গা নিয়েছে নাট্যকেন্দ্র’র ঘাসফুল ও মেরাজ ফকিরের মা’র সফল মঞ্চায়ন দিয়ে।
তৃণমূল নেতাদের বাঁধা সম্পর্কে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, দিনহাটায় স্থানীয় তৃণমূলী নেতাদের হুমকি-আপত্তির কারণে আমাদের নাটকের দুটি দৃশ্য থেকে মোহাম্মদ আলী জিন্নাহ, গান্ধীজীসহ কিছু রাজনৈতিক ব্যক্তির নাম মালাউন, নেংটির বাচ্চা, ধুতি শব্দবন্ধনী বাদ দিয়ে মেরাজ ফকিরের মা নাটক করতে হয়। তবে মুম্বাই, আলীপুরদুয়ার ও জলপাইগুড়িতে এরকম কোনো বাঁধা আসেনি।
রাজ্জাক মুরাদ বলেন, আমাদের শিশু শিল্পীরা ৩৫টি দেশের সাথে আন্তর্জাতিক নাট্যোৎসবে অংশ নিয়ে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি উজ্জ্বল করেছে। ছোটদের পরিবেশনায় জনপ্রিয় নৃত্যনাট্য ঘাসফুল আর বড়দের মেরাজ ফকিরের মা নাটক দুটি ভারতের পাঁচটি মঞ্চে দর্শক সাড়া পেলেও আমরা এবার একটা তিক্ত অভিজ্ঞতা নিয়ে দেশে ফিরেছি।
বাংলাদেশের কাছে ভারতের নাট্যজগত সম্পর্কে ভুল বার্তা পোছল দাবি করে মুঠোফোনে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে আমাদের এ প্রতিবেদককে কোচবিহারের বিশিষ্ট নাট্য-ব্যক্তিত্ব চন্দন সেন বলেন, ভারতের মাটিতে বিদেশী একটি নাট্যদলকে এভাবে চিত্রনাট্য থেকে গান্ধীজীর নাম বাদ দিতে বাধ্য করা কোনোভাবেই মেনে নেয়া যায় না। তিনি বলেন, মেরাজ ফকিরের মা নাটকটি আমি ভারতের বেশ ক’টি রাজ্যে ও বাংলাদেশে একাধিকবার মঞ্চস্থ হতে দেখেছি। কোনো দিনও কোথাও কোনো বাঁধা আসেনি। শুধু বাঁধা আসলো ভারতে। তিনিসহ কোচবিহারের নাট্যকর্মী জয়ন্ত গুহঠাকুরতা, আলোক গুহ, পশ্চিমবঙ্গ গণতান্ত্রিক লেখক সংঘের অনুনয় চট্টোপাধ্যায় এবং ইন্দ্রনাথ বন্দ্যোপাধ্যায়ও এসময় এক যৌথ বিবৃতিতে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, কলকাতার একটি নাট্যদল এবং বাংলাদেশের নাট্যকেন্দ্র’র সাথে নাটকের সংলাপ নিয়ে তৃণমূলী নেতাদের হস্তক্ষেপ, বাঁধা, প্রভাব-বলে ফতোয়া দিয়ে সংলাপ বাদ দেয়ার ঘটনা খুবই দুঃখজনক ।
উল্লেখ্য, গত পহেলা জানুয়ারি বিভিন্ন নাট্য সংগঠনের আমন্ত্রণে ২টি আন্তর্জাতিকসহ ৫টি নাট্যোৎসবে অংশ নিতে ভারত সফরে গিয়েছিলো রংপুর নাট্যকেন্দ্র’র শিল্পীরা।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful