Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ৩১ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৬ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ৩৮ পুর্বাহ্ন
Home / গাইবান্ধা / আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ ইউনুস আলী সরকারের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ ইউনুস আলী সরকারের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার

মোঃ ছাদেকুল ইসলাম রুবেল গাইবান্ধা থেকে: গাইবান্ধার বহুল আলোচিত আওয়ামীলীগ নেতা ডাঃ ইউনুস আলী সরকারের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেছে কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগ।

সোমবার রাতে কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির এক জরুরী বৈঠকে বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করা হয়েছে বলে দলের সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে জানানো হয়েছে। এদিকে, দলের কেন্দ্রীয় কমিটি এ সিদ্ধান্ত ঘোষণা করায় গাইবান্ধায় বিশেষ করে তার নির্বাচনী এলাকা গাইবান্ধা-০৩ (পলাশবাড়ী-সাদুল্যাপুর) এর তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া সহ প্রাণ চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

দলীয় সাধারণ সম্পাদকের গত ২১ জানুয়ারি স্বাক্ষরিত ওই চিঠিতে উল্লেখ করা হয়েছে, ২০০১ সালে দল তাকে মনোনয়ন দিয়েছিল। ২০০৮ সালের নির্বাচনে তৃণমূল পর্যায়ে তার ব্যাপক জনপ্রিয়তা থাকায় এবং সাংগঠনিক কার্যক্রম অব্যাহত রাখায় নির্বাচনী এলাকায় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা নিশ্চিত হয়েছিলেন ডাঃ ইউনুস আলী সরকার দল থেকে মনোনয়ন পাবেন। ফলে ডাঃ ইউনুস আলী সরকার তার অবস্থান থেকে না সরে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেন। ২০০৮ সালের নির্বাচনে প্রাপ্ত ভোটের নিরিখে ও পর্যবেক্ষকদের ধারনা তাকে দলীয় মনোনয়ন দিলে বিজয়ের সম্ভাবনা ব্যাপক ছিল। কিন্তু শেষ পর্যন্ত মহাজোটের মনোনীত প্রার্থী মনোনয়ন পাওয়ায় তিনি বঞ্চিত হন। মনোনয়ন বঞ্চিত হয়ে দলীয় সিদ্ধান্ত অমান্য করে মেডিকেল কলেজের সাবেক তুখোড় ছাত্রনেতা, বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশনের (বিএমএ) সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ডাঃ ইউনুস আলী সরকার দলীয় সংসদীয় বোর্ডের মনোনীত প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। এটা দলীয় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ হওয়ায় গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তাকে দল থেকে বহিষ্কার করা হয়। কিন্তু তিনি সম্প্রতি তার কৃতকর্মের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করে দলে সক্রিয় হওয়ার আবেদন জানান। এরই পরিপ্রেক্ষিতে গত ২১ জানুয়ারি দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কার্যনির্বাহী কমিটির এক সভায় এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয় যে, দলের প্রতি অতীত অবদান বিবেচনা সাপেক্ষে তার বহিষ্কার আদেশ প্রত্যাহার পূর্বক প্রাথমিক সদস্যপদ পুনর্বহাল করে দলীয় কর্মকাণ্ডে সক্রিয় হওয়ার সুযোগ দেয়া হোক।

চিঠিতে গাইবান্ধা জেলা ও পলাশবাড়ী-সাদুল্যাপুর উপজেলা আওয়ামীলীগকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য অনুরোধ জানানো হয়েছে। ডাঃ ইউনুস আলী সরকার বরাবরই প্রত্যক্ষ বা প্ররোক্ষ ভাবে দলীয় কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখেন। এ পর্যায়ে গত কিছুদিন আগে তিনি দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার সংগে স্বাক্ষাৎ করে তার কৃতকর্মের জন্য মার্জনা চেয়ে তার উপর থেকে দলীয় শাস্তিমূলক ব্যবস্থা প্রত্যাহারের আবেদন জানান। এসময় দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে ইতিবাচক মনোভাব প্রদর্শন করে তাকে দলীয় কর্মকাণ্ডে অংশ নেয়ার আহবান জানান। এরপরই তার এই বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত হয়। বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের খবর ছড়িয়ে পড়লে নির্বাচনী এলাকায় আওয়ামীলীগের নেতা-কর্মীদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য ফিরে এসেছে। গ্রাম গঞ্জের তৃণমূল পর্যায়ের কর্মীরা ডাঃ ইউনুসকে দলের সদস্য হিসেবে পেয়ে খুশি হয়েছে।

এ ব্যাপারে পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি সাবেক এমপি আলহাজ্ব তোফাজ্জল হোসেন সরকার, সাধারণ সম্পাদক আবু বকর ও সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক শামিকুল ইসলাম লিপনের সাথে মোবাইল ফোনে তাদের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে তারা নেত্রীর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে বলেন এ সংক্রান্ত পত্র এখনো দলীয়ভাবে পায়নি।

গাইবান্ধা জেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি ও জেলা পরিষদ প্রশাসক এডভোকেট শামস্-উল-আলম হিরু, সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক মোবাইল ফোনে তাদের প্রতিক্রিয়ায় নেত্রীর সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়ে একসাথে কাজ করার প্রতিশ্র“তি ব্যক্ত করেন।

বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার হওয়ায় ডাঃ ইউনুস আলী সরকার তার প্রতিক্রিয়ায় আবেগ-আপ্লুত হয়ে জানান, আমি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নির্ভীক সৈনিক তার সুযোগ্য কন্যা আওয়ামীলীগ সভাপতি প্রধান মন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে মহান মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে বাস্তবায়ন করতে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করতে চাই। এজন্য তিনি এলাকার সকল পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের সর্বাত্মক সহযোগিতা কামনা করেন। বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্ত নেয়ায় দলীয় সভানেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানিয়ে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক-লীগ সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম মন্ডল, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট পলাশবাড়ী উপজেলা শাখার আহবায়ক ও সাবেক ছাত্রলীগ সভাপতি ফিরোজ কবীর সুমন, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগ সহ-সাধারণ সম্পাদক গোলাম সরোয়ার প্রধান বিপ্লব, নির্মল মিত্র, উপজেলা ছাত্রলীগ আহবায়ক মেহেদী আজাদ রাসেল, সদস্য সচিব সৌরভ আহম্মেদ বাবলা, শ্রমিক লীগ সভাপতি আবুল কালাম আজাদ সাবু, সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুজ্জামান প্রান্ত তাদের প্রতিক্রিয়ায় বলেন আগামী দিনে উভয় উপজেলায় ডাঃ ইউনুস আলী সরকারের নেতৃত্বে তৃণমূল নেতাকর্মীরা আরও উজ্জীবিত হয়ে দলকে আরও গতিশীল ও সুদৃঢ় করবে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful