Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর, ২০২০ :: ৮ কার্তিক ১৪২৭ :: সময়- ১২ : ০২ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / বেরোবি ভিসি তার পেটোয়াবাহিনী ব্যবহার করে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের চেষ্টা করছেন

বেরোবি ভিসি তার পেটোয়াবাহিনী ব্যবহার করে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের চেষ্টা করছেন

আপেল মাহমুদ, সহকারী অধ্যাপক, একাউন্টিং এন্ড ইনফরমেশন সিস্টেমস বিভাগ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, রংপুর:

ত্রিশ লক্ষ শহীদের রক্তের ও দুই লক্ষ মা-বোনের সম্ভ্রমের বিনিময়ে আমরা স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ পেয়েছি। সে সময় এদেশের মুষ্টিমেয় কিছু মানুষ ছাড়া সবাই মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেছিল। যারা সে সময়ে বাংলাদেশের বিরোধিতা করেছিল তারা জাতির কাছে চরম নিন্দনীয় ও ঘৃণীয়। আজ প্রজন্ম জেগে উঠেছে সে সমস্ত ঘৃণ্য রাজাকারদের ফাঁসির দাবিতে।

আমরা দূর্নীতি বিরোধী মঞ্চের শিক্ষক-শিক্ষার্থী,কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা এসব রাজাকার ও যুদ্ধাপরাধীদের ফাঁসি না হওয়া পর্যন্ত রাজপথে ও অনলাইনে সংগ্রাম করে যাব। কিন্তু দুঃখের বিষয় বেরোবির অভিভাবক, বর্তমান উপাচার্য মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ছিলেন। তার অনেক সহপাঠী মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহন করেছিলেন কিন্তু মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে তার ভূমিকা কি ছিল তা আজও স্পষ্ট নয়! তিনি বিএনপি সরকারের আমলে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্র উপদেষ্টার দায়িত্ব পালন করেছিলেন। মহাজোট সরকার ক্ষমতায় আসার পর তিনি বেরোবির উপাচার্যের দায়িত্ব পাওয়ার পর অনিয়ম, দূর্ণীতি, আত্মীয়করণের মাধ্যমে নব্য প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়টিকে পঙ্গু করার ব্যবস্থা করেছিলেন। তিনি পাকিস্তানি কায়দায়(!) বেরোবির সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডের ওপর নানারূপ শর্ত আরোপ করেন। শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের শান্তিপূর্ণ গণতান্ত্রিক আন্দোলনকে দমন করতে পেটোয়াবাহিনী ব্যবহার করে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটিতে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েমের চেষ্টা করেন।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান-এর আদর্শ ও মুল্যবোধে বিশ্বাসী ও মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের প্রগতিশীলদের বিরুদ্ধে তিনি জামাতি কায়দায়(!) নানা মিথ্যাচারের অপচেষ্টা অব্যাহত রাখেন। এমনকি তার নিজস্ববাহিনী দ্বারা শহীদ মিনার অবরুদ্ধ করে দূর্নীতি বিরোধী মঞ্চের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ভাষা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদনের পথে বাধার সৃষ্টি করেন।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতির বিরুদ্ধে আর উপাচার্য প্রফেসর ড. মু. আব্দুল জলির মিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে দুর্নীতির পাহাড় গড়েছেন। ইতোমধ্যে গত ২২ ও ২৩ জানুয়ারি ২০১৩-এ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন কতৃক পরিচালিত তদন্তে এই উপাচার্যের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অনিয়ম সংক্রান্ত অভিযোগের সত্যতা প্রমানিত হয়েছে।

তাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও শিক্ষামন্ত্রী সহ সকলের কাছে আমাদের আকুল আবেদন বেরোবির বর্তমান উপাচার্য প্রফেসর ড. মু. আব্দুল জলিল মিয়ার রাজনৈতিক আদর্শ ও ব্যক্তি দর্শন খুটিয়ে দেখে অবিলম্বে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহন করা হোক।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful