Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৮ নভেম্বর, ২০২০ :: ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭ :: সময়- ১ : ১৬ পুর্বাহ্ন
Home / আলোচিত / “বউ-ছাওয়া নিয়্যা খুব-কস্টোত আচুং”

“বউ-ছাওয়া নিয়্যা খুব-কস্টোত আচুং”

rickshaw rikshaফরহাদুজ্জামান ফরুাক: ‘ভাইরে এইভাবে অবরোধ হরতাল চললে হামরা ভালো থাকমো ক্যামন করি। খুবই কস্টে দিন যাওচে হামার। অবরোধোত গাড়ি বন্ধ থাকাতে কামাই নাই। টাকা ব্যাগরে ঠিক মতো খরচাপাতি কইরবার পাওচোং না। সংসারের অবস্থা খুব খারাপ। বউ-ছাওয়া নিয়্যা খুব-কস্টোত আচুং ভাই।’

এভাবে বলতে গিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন পঞ্চাশোর্ধ বাস শ্রমিক আব্দুস সালাম। হরতাল অবরোধে দিশেহার হয়ে পড়েছে শ্রমিকরা। চরম দুর্ভোগের কথা এভাবেই বলছিলেন তিনি।

রোববার দুপুরে রংপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে শ্রমিক ও চালকদের সঙ্গে কথা বলতে গেলে আব্দুস সালাম প্রশ্ন ছুঁড়ে দিয়ে আরো বলেন, ‘তোমরায় কন, চাকা না ঘুরলে কামাই করমো কোত থাকি? সংসার চালামো ক্যামন করি? হামাক খালেদা-হাসিনাতো কামাই করি দেবার নায়। এই জন্যে হামার মতো জনগনোক নিয়্যা ওমার চিন্তাও নাই। এই হরতাল-অবরোধোত যতো কস্ট হামারে গরীবের।’

একইভাবে ক্ষোভ আর সাংসারিক দুরাবস্থার কথা বর্ণনা করেন জাহাঙ্গীর আলম, হারুন মিয়া, রুবেল হোসেন, নজরুল, বিটুল, নুর আলম।

আন্তঃজেলা বাসের এক সুপারভাইজার বললেন, ‘৫ জানুয়ারি থেকে আজ (১৮ জানুয়ারি) পর্যন্ত একদিনও তার মালিক আন্তঃজেলা রুটে বাস ছাড়েন নি। অন্যসব বাসেরও একই অবস্থা। ঢাকামুখী কিছু সাধারণ লোকাল বাস পুলিশি সহযোগিতায় রাতে চলাচল করলেও দিনের বেলায় কোনো বাসই চলাচল করছে না’।

এসময় পরিবহন শ্রমিক ও কর্মকর্তারা দ্রুত দুই নেত্রীকে আলোচনায় বসে বর্তমান এই রাজনৈতিক সঙ্কট থেকে উত্তরণে স্থায়ী সমাধানের আহ্বান জানান।

বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের চলমান লাগাতার অবরোধের কারণে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার যান চলাচল বন্ধ থাকার কারণে অর্থনৈতিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে সাধারণ বাসচালক ও শ্রমিকরা। অবরোধের গত ১৩ দিনে আন্তঃজেলা ও দূরপাল্লার বাস চলাচল স্বাভাবিক না হওয়ায় এখন মানবেতর জীবনযাপন করছে রংপুরের সাধারণ বাস চালক ও শ্রমিকরা।

মহানগরীর আন্তঃজেলা রুটের বাসস্ট্যান্ড ও টার্মিনালসহ ঢাকামুখী কোচ স্ট্যান্ডগুলোতে খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, অবরোধের গত ১৩ দিনে ভালোমানের উন্নত চেয়ার কোচগুলো চলাচল বন্ধ রয়েছে। তবে ইজতেমার সময় কিছু লোকাল বাস ইজতেমার যাত্রীদের জন্য চলাচল করেছে।

নগরীর কামারপাড়া ঢাকাকোচ স্ট্যান্ডের টিআর ট্রাভেলস এর কাউন্টার সহকারী বোমবার্ট বলেন, ‘অবরোধে ভলকা বাস ছাড়া (লোকাল বাস) স্পেশাল কোনো বাস এখান থেকে ছাড়েনি। একটানা ১৩ দিন ধরে বাস চলাচল বন্ধ থাকায় আর্থিকভাবে খুব সমস্যায় দিন যাচ্ছে।

এদিকে রংপুর-ঢাকা, রংপুর-দিনাজপুর-ঢাকা মহাসড়কগুলোতে পুলিশি নিরাপত্তায় রাতে বেলা কিছু বাস ও ট্রাক চলাচল করতেও দেখা গেলেও দিনের বেলা চোখে পড়ছে না বাসের চলাচল। এই অবস্থায় অর্থাভাবে মানবেতর জীবন কাটছে সাধারণ মোটর চালক ও শ্রমিকদের।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful