Templates by BIGtheme NET
আজ- শনিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১১ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৬ : ৪৫ অপরাহ্ন
Home / দিনাজপুর / দিনাজপুরে হরতালের যানবাহন ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ;ট্রেন চলাচল বন্ধ ॥ গ্রেফতার ১৫

দিনাজপুরে হরতালের যানবাহন ভাংচুর, অগ্নিসংযোগ;ট্রেন চলাচল বন্ধ ॥ গ্রেফতার ১৫

দিনাজপুর সংবাদদাতা: জামায়াত-শিবিরের ডাকা ৪৮ ঘন্টা হরতালের প্রথম দিনে গতকাল রোববার বীরগঞ্জ, চিরিরবন্দর, খানসামা, পার্বতীপুর ও ঘোড়াঘাটে রাস্তা অবরোধ করে যানবাহন ভাংচুর, অগ্নি সংযোগ করলে আইন শৃংখলা বাহিনীর সাথে ধাওয়া-পাল্টা-ধাওয়ার ঘটনা সৃষ্টি হয়। পুলিশ এ পর্যন্ত ১৫ জনকে গ্রেফতার করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিতে আইন শৃংখলা রক্ষা বাহিনীর টহল জোরদার করা হয়েছে। সদর উপজেলার মহেশপুর গ্রামে ১২ জন সংখ্যালঘুর খড়ের গাদায় অগ্নিসংযোগ করা হয়। হিলিতে রেলপথে অবরোধ সৃষ্টি করায় ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে।
দিনাজপুর পুলিশ কন্ট্রোল রুম সূত্রে প্রকাশ, রোববার জামায়াতের ডাকা হরতালের প্রথম দিনে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়কের বীরগঞ্জ চৌরাস্তা মোড় জামায়াত-শিবির ক্যাডারেরা নাশকতা সৃষ্টি করতে অবরোধ ও টায়ার জ্বালিয়ে অগ্নিসংযোগে জনমনে ভীতি সৃষ্টি করে। রাস্তা থেকে অবরোধ সরিয়ে দিতে পুলিশ জামায়াত-শিবির ক্যাডারদের ধাওয়া করলে তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল এবং ২০ থেকে ২৫টি ককটেল নিক্ষেপ করে। জামায়াত-শিবিরদের আক্রমনে ২ পুলিশ সদস্যসহ ৪ পথচারী আহত হয়। পুলিশ তাদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ার শেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে। ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ ৬ শিবির ক্যাডারকে আটক করে। দুপুর ২টায় পুনরায় জামায়াত-শিবির ক্যাডারেরা নাশকতা সৃষ্টির লক্ষ্যে সমবেত হলে ঘটনাস্থলে বিজিবি মোতায়েন করে টহল জোরদার করা হয়েছে। এই ঘটনার সময় বীরগঞ্জ বাজারে ৫টি দোকান, ৪টি মোটরসাইকেল, ২টি ট্রাক ও ৮/১০টি ভ্যান গাড়ী ভাংচুর করা হয়। জামায়াত-শিবিরের যৌথ উদ্যোগে সকাল থেকে মহাসড়কের যাদুর মোড়, হাবলুরহাট, কবিরাজহাট, ২৫ মাইল ও ২৮ মাইল এলাকায় পিকেটারেরা রাস্তার গাছ কেটে, গাছের গুড়ি ফেলে টায়ার জ্বালিয়ে দিনাজপুর-পঞ্চগড় মহাসড়ক অবরোধ করে রাখে।
সংবাদ পেয়ে পুলিশ, বিজিবি, আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কমীদের বাধার মুখে কোন সংঘর্ষ ছাড়াই পিকেটারেরা পালিয়ে যায়। পরে পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থল থেকে চলে আসলে জামায়াত-শিবিরের নেতা কর্মীরা লাঠি-সোটা নিয়ে কবিরাজহাটের মহাসড়ক আবার তাদের দখলে নেয় এবং মহাসড়কের পার্শ্বে উপজেলা আওয়ামীলীগের আঞ্চলিক কার্যালয় ভাংচুর করে।
আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতা কর্মীরা কার্যালয় ভাংচুরের সংবাদ পেয়ে সংঘবদ্ধ হয়ে জাময়াত-শিবিরের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলে। অপরদিকে জামায়াত-শিবির, সাঈদী মুক্তি পরিষদ ও ভক্তরা ঐক্যবদ্ধ হয়ে মুখোমুখী অবস্থান নেয়। সংঘর্ষের আশংকার খবর পেয়ে পুলিশ বিজিবি আবার উপস্থিত হলে গোলাগুলির আতংকে এক মুহুর্তে সমস্ত লোকজন পালিয়ে যায়।
একই সময় খানসামা উপজেলার পাকেরহাটে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারেরা ৩টি দোকান, ২টি মোটর সাইকেল ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ৩ শিবির ক্যাডারকে গ্রেফতার করেছে। ঘটনাস্থলে আইন শৃংখলা বাহিনীর টহল ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে।
চিরিরবন্দর উপজেলার রানীরবন্দর বাজারে নশরতপুর ইউনিয়ন জামায়াতের আমীর মকবুল মুন্সির নেতৃত্বে দিনাজপুর-রংপুর মহাসড়ক অবরোধের চেষ্টা করলে বিজিবি’র টহলদল তাদের প্রতিহত করে। ঘটনাস্থল থেকে ৩ শিবির ক্যাডারকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এই মহাসড়কের সদর উপজেলার রামডুবি ও দশমাইল মোড়ে অবরোধের চেষ্টা করলে বিজিবি তাদের প্রতিহত করে। ঘটনাস্থল থেকে ৩ শিবির ক্যাডারকে আটক করেছে।
এদিকে গতকাল রোববার দুপুর ১২টা থেকে দিনাজপুর-গোবিন্দগঞ্জ মহাসড়কের ঘোড়াঘাট বাসস্ট্যান্ডে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারেরা লাঠি ও লোহার রড নিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে। এ সময় সরকার বিরোধী শ্লোগান দিয়ে ঘোড়াঘাট বাজার, বাসস্ট্যান্ড, বাগেরহাট ও রানীগঞ্জ বাজারে ভীতিসৃষ্টি করলে ব্যবসায়ীরা দোকানপাট বন্ধ করে। ফলে ওই রাস্তা দিয়ে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।
একই সময় পার্বতীপুর উপজেলার রেলওয়ে ষ্টেশন চত্বরে জামায়াত-শিবিরের ক্যাডারেরা সমবেত হয়ে ট্রেন চলাচলে বাধা সৃষ্টি করে। ঘটনাস্থলে পুলিশ ও র‌্যাব সদস্যরা উপস্থিত হয়ে তাদের ধাওয়া করে। ঘটনাস্থলে জামায়াত-শিবির ককটেল বিস্ফোরণ ও ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করলে ১ পুলিশ সদস্যসহ ৩ জন পথচারী আহত হয়।
দিনাজপুরের হিলি রেলষ্টেশনে চিলাহাটি থেকে খুলনাগামী রকেট মেইল ট্রেন আটকে থাকায় ঢাকা, খুলনা ও রাজশাহী রেলপথে ট্রেন চলাচল বন্ধ রয়েছে। গতকাল বেলা পৌনে ১২টা থেকে এসব রেলপথে ট্রেন চলাচাল সম্পূর্ন বন্ধ হয়ে পড়ে।
হিলি রেলষ্টেশন মাষ্টার ইমদাদুল ইসলাম জানান, পার্শ্ববর্তী পাঁচবিবি রেলষ্টেশনে হরতাল সমর্থকেরা ভাংচুর চালায়। এই খবর পেয়ে হিলি রেলষ্টেশন থেকে বেলা পৌনে ১২টার দিকে ছেড়ে যাওয়া চিলাহাটি থেকে খুলনাগামী রকেট মেইল ট্রেনটি প্রায় এক কিলোমিটার যাওয়ার পথে থেমে যায়। এসময় চালক ট্রেনটি নিয়ে হিলি রেলষ্টেশনে ফিরে আসে। তিনি জানান, পরবর্তী নির্দেশ না পাওয়া পর্যন্ত ট্রেনটি ছাড়া যাচ্ছে না।
রেলষ্টেশন সুত্রে জানাগেছে, এই ঘটনার পর থেকে ঢাকা, খুলনা ও রাজশাহী রেলপথে বেশ কয়েকটি ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে আছে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful