Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৫ : ৪৩ অপরাহ্ন
Home / কুড়িগ্রাম / রৌমারীর চলছে নগ্ন দেহ প্রদর্শনী; থানা ও আ’লীগ পাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা

রৌমারীর চলছে নগ্ন দেহ প্রদর্শনী; থানা ও আ’লীগ পাচ্ছে লক্ষ লক্ষ টাকা

কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি: উঠতি বয়সের যুবকদের বিপথগামী করতে ব্যাপক সমারোহ চালাচ্ছে রৌমারী লক্ষ্মী সিনেমা হল কর্তৃপক্ষ। যাত্রার নামে জুয়া ও নর্তকীর উলঙ্গ নৃত্তে এখন টালমাটাল অবস্থা। এক সপ্তাহ ধরে চলে আসা এ সকল নোংড়ামী বন্ধে সাধারণ মানুষ ইউএনও এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর শরণাপন্ন হয়েও কাজ হয়নি। এইচএসসি পরীক্ষার আগমূহুর্তে এ সকল অনৈতিক কর্মকান্ড অভিভাবকমহলকে ভাবিয়ে তুলেছে। তারা মনে করেন দিনের পর দিন এমন উলঙ্গপনা চলতে থাকলে এলাকার সকল ক্ষেত্রেই দেখা দেবে অরাজকতা।

জানা গেছে, নোঙড়া ও অশ্লীল কাটপিচ ব্যবহারের করণে গত দু’বছর আগে বন্ধ হয়ে যায় রৌমারী উপজেলার একমাত্র লক্ষ্মী সিনেমা হলটি। এটি বন্ধ হওয়ার পর মালিকপক্ষ সেখানে গড়ে তোলে মাদক ও জুয়ার ব্যাপক আড্ডাখানা। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে ম্যানেজ করে ফেন্সিডিল, গাজা, হেরোইন, ইয়াবাসহ নানা মাদকদ্রব্য সিনেমা হলের ভেতরে বিক্রি ও সেবনের ব্যবস্থা নেয় হল কর্তৃপক্ষ। এমনকি হলের আশপাশে গড়ে তোলে মিনি পতিতালয়। সে ধারাবাহিকতায় এবার যোগ হয়েছে ৫ জন দেহদর্শনার্থীনিকে দিয়ে দেহ দর্শনের এক অভিনব রূপ। যাত্রা বা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান নয়, অশ্লীল নৃত্তের তালে তালে চলে জুয়া ও মাদক সেবনের এলাহী কান্ডকারবার। দুপুর ৩টা থেকে রাত ১২টা পর্যন্ত চলে এ দেহ প্রদর্শন। এ সকল দেহ দেখতে সেখানে হুলস্থুল কান্ড ঘটাচ্ছে যারা তাদের বেশির ভাগরই বয়স ১৮’র নিচে। জুয়ারুরা বীরদর্পে চালাচ্ছে তাদের কর্মকান্ড। এ সকল অবৈধ কর্মকান্ড প্রকাশ্য হলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী রহস্যজনক ভাবে চুপ করে আছে।

লক্ষ্মী সিনেমা হলের বর্তমান পরিস্থিতির বর্ণনা দিতে গিয়ে জনৈক আব্দুল বাতেন জানান, সন্ধ্যায় যাত্রা দেখার জন্য ওই সিনেমা হলে যাই। কিন্তু সেখানে যাত্রা কই, শুধু উলঙ্গ ড্যান্স আর ড্যান্স। একপর্যায়ে নাচনেওয়ালী বুকের কাপড় খুলে ফেলে। এমন দৃশ্য দেখে আমি হতবাক হয়ে যাই এবং সেখান থেকে দ্রুত বেরিয়ে আসি।

ওই সিনেমা হল সংলগ্ন অনেকেই জানান, প্রতিরাতে জুয়া বাবদ স্থানীয় আ’লীগ ও থানা লক্ষাধীন টাকার চুক্তি করেছেন। এছাড়াও সাংবাদিক, পাতি নেতা ও এমপি’র খোদ লোকদের জন্য রয়েছে আলাদা বাজেট। তাই এই নোঙরামী বন্ধে কেউ কোন ব্যবস্থা গ্রহন করছে না।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল হান্নানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে এ অশ্লীলতার কথা স্বীকার করে তিনি জানান, আমি এটি বন্ধে বারবার ওসি সাহেবকে বলেছি কিন্তু তিনি আসেন না। আপনারা নেতাদের বলেন, তারা বন্ধ না করলে আমরা বন্ধ করতে পারছি না।

ওসি মোখলেছুর রহমান জানান, আ’লীগের নেতারা এটা চালাচ্ছেন, আমরা কি করবো। তবে স্থানীয় আ’লীগ সভাপতি আজিজুল হক সরকার এটি অস্বীকার করেছেন। এই অশ্লীলতার সাথে আ’লীগ জড়িত নয় বলে তিনি দাবি করেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful