Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১০ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৫ : ১৬ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / রংপুরে পুলিশ-ছাত্রদল সংর্ঘষ; গুলিবিদ্ধ ১৫, আহত অর্ধশতাধীক

রংপুরে পুলিশ-ছাত্রদল সংর্ঘষ; গুলিবিদ্ধ ১৫, আহত অর্ধশতাধীক

নগর প্রতিনিধি :  বিএনপি ও ১৮ দলের ডাকা ৩৬ ঘণ্টার ২য় দিন মঙ্গলবার সকাল থেকে শান্তিপূর্ণ হরতাল চললেও বেলা বাড়ার সাথে সাথে উত্তেজনা ছড়িয় পড়ে উত্তরের নগরী রংপুরে। দুপুরে পুলিশ- যুবলদল ও  ছাত্রদলের সাথে সংঘর্ষ বাধে। এ সংঘর্ষে পুলিশের গুলিতে ১৫ জন গুলিবিদ্ধ ও অর্ধশতাধিক আহত হয়েছে। আহতদের নগরীর বিভিন্ন ক্লিনিকে ভর্তি করানো হয়।

জানা গেছে, বেলা ১১টা থেকে নগরীতে বিএনপি, যুবদল, ছাত্রদল খন্ড খন্ড ভাবে মিছিল করতে থাকে নগরীতে। দুপুর ১২ টায় ছাত্রলীগের একটি হরতাল বিরোধী লাঠি মিছিল বেতপট্রি থেকে শুরু হয়ে গ্রান্ড হোটেল মোড়ে বিএনপি অফিসের দিকে আসতে থাকলে প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশ মিছিলটি ফিরিয়ে দিলে তারা জাহাজ কোম্পানি অবস্থান নেয়। এ সময় যুবদল-ছাত্রদলের একটি পাল্টা মিছিল জাহাজ কোম্পানি মোড়ের দিকে এগুতে থাকে।  এরই মধ্যে প্রেসক্লাবের সামনে পুলিশ অবস্থান নিয়ে যুবদল ছাত্রদলের মিছিলে এলোপাথারী ইটপাটকেল, টিয়ারশেল রাবার বুলেট ও শর্ট গানের গুলি ছুড়তে থাকে।

এতে যুবদল ছাত্রদল নেতাকর্মীরাও ইটপাটকেল ছুঁড়তে থাকে। আধাঘণ্টাব্যাপী সংঘর্ষে রণক্ষেত্রে পরিণত হয় পুরো এলাকা। এ সময় যুবদল’র সহ-সভাপতি তারেক হাসান সোহাগ, যুগ্ম সম্পাদক আনোয়ার হোসেন আলমগীর, নাসির, লিটন, নুরুন্নবী চৌধুরী মিলন, রনি, মুরাদ, জেলা ছাত্রদল ছাত্রদল সভাপতি জহির আলম নয়ন, ছাত্রদল এ্যপোলো, টুটুল, কারমাইকেল কলেজ ছাত্রদল নেতা রাসেল, প্রসাদসহ ১২ জন গুলিবিদ্ধ এবং ৫০ জন আহত হয়। এ সময় গুরতর আহতদের ৩টি এম্বুলেন্সে করে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। পরে প্রেসক্লাব থেকে গ্রান্ড হোটেল মোড় পর্যন্ত কয়েক প্লাটুন পুলিশও র‌্যাব মোতায়েন করা হয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশকে দায়ী করেছে বিএনপি। এ ঘটনার পর পুরো নগরী ফাকা হয়ে গেছে। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে ছাত্রদল’র ৩ জন নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে।

যুবদল সভাপতি রইচ আহমেদ অভিযোগ করে বলেছেন, বিনা উস্কানীতেতই পুলিশ যুবদল ও ছাত্রদল নেতাকর্মীদের উপর শর্ট গানের গুলি, টিয়ার শেলও লাঠিচার্জ এবং ইটাপটেকল নিক্ষেপ করে। এতে ১২ জন গুলিবিদ্ধসহ অন্তত্য শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন বলে তিনি দাবি করেছে।

অন্যদিকে কোতয়ালী থানার ওসি শাহাবুদ্দিন খলিফা দাবী করেছেন, যুবদল ছাত্রদলের মিছিল থেকে পুলিশের উপর ইটপাটেকল ছোড়ার কারণেই পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে টিয়ার শেল ও রাবার বলেট নিক্ষেপ করতে বাধ্য হেয় হয়।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful