Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১০ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৬ : ৪৯ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / চাকরি দেওয়ার নামে দেড় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে বাঁচলেন প্রতারক

চাকরি দেওয়ার নামে দেড় কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে বাঁচলেন প্রতারক

ইনজামাম-উল-হক, নীলফামারী ১৯ এপ্রিল॥ প্রকৃতির ডাকে সাড়া দেওয়ার কথা বলে লোকচক্ষু ফাঁকিয়ে দিয়ে পালালেন প্রতারক। এ ঘটনাটি ঘটেছে নীলফামারীর সৈয়দপুর শহরের বৃহত্তর শপিং কমপ্লেক্সে সৈয়দপুর প্লাজায়। ওই মার্কেটের দোকান মালিক সমিতি লিমিটেডের কার্যালয়ে ১২ ঘণ্টা বন্দি থাকার পর পালিয়ে বাঁচালেন নিজেকে জাতীয় পার্টির নেতা পরিচয়দানকারী নূরে আলম সিদ্দিকী ওরফে সাগর।
সৈয়দপুর প্লাজা দোকান মালিক সমিতি লিমিটেডের সভাপতি শফিকুল ইসলাম জানান, নূরে আলম সিদ্দিকী সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি দেওয়ার নামে নিচে ২ লাখ থেকে ১০ লাখ টাকা উৎকোচ গ্রহণ করেছেন এ অঞ্চলের নিরীহ মানুষের কাছে। গত ১২ এপ্রিল অনুষ্ঠিত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে নিয়োগ পরীক্ষার পর রংপুরের বদরগঞ্জ, তারাগঞ্জ, নীলফামারীর সদর, সৈয়দপুর, কিশোরীগঞ্জ, দিনাজপুরের খানসামা, চিরিরবন্দর উপজেলার চাকরি প্রার্থীদের কাছে মোটা অংকের উৎকোচ গ্রহণ করেন ওই ব্যক্তি।
নীলফামারীর মোহাব্বত আলী অভিযোগ করেন, নূরে আলম সিদ্দিকী তার মেয়েকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষকতা চাকরি পাইয়ে দেওয়ার নামে দেড় লাখ টাকা ঘুষ নেন। একই ভাবে তার জামাতা শফিকুল ইসলামের কাছ থেকেও ৩ লাখ টাকা উৎকোচ নেওয়া হয়।
নীলফামারীর আবুল হোসেন অভিযোগ করেন, তার জামাতাকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে চাকরি দেওয়ার নামে ৪ লাখ ৬০ হাজার টাকা আদায় করা হয়।
সৈয়দপুর উপজেলার খাতামধুপুর ইউনিয়নের সিরাজুল ইসলামকে পুলিশে চাকরি দেওয়ার কথা বলে সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নেন নূরে আলম সিদ্দিকী। সিরাজুল জানান, নূরে আলম নিজেকে কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে পরিচয় দিয়ে আসছিলেন। আসলে এটা তার ভুয়া পরিচয়। যা পরে আমরা জেনেছি। প্রতারণা করে তিনি সৈয়দপুর শহরের সেনানিবাস সংলগ্ন কদমতলি মহলায় ‘সাগর বিলাস’ নামে বিলাসবহুল বাড়ি বানিয়েছেন। তিনি আগামী সংসদ নির্বাচনে রংপুরের তারাগঞ্জ-বদরগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত সংসদীয় আসনে জাতীয় পার্টির প্রার্থী দাবি করে প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। ওই নির্বাচনী এলাকায় গরিব-দুঃখী মানুষের মাঝে প্রচুর ত্রাণ বিতরণও করছেন তিনি।
সৈয়দপুর প্লাজা দোকান মালিক সমিতির সভাপতি শফিকুল ইসলাম জানান, প্রতারিত মানুষের অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে বৃহস্পতিবার বিকেলে নূরে আলম সিদ্দিকীকে আমরা আটকে ফেলি। এ সময় তিনি ওই মার্কেটে অবস্থান করছিলেন। খবর পেয়ে প্রতারণার শিকার শত শত মানুষ ওই কার্যালয়ের সামনে ভিড় জমায়। তারা নূরে আলম সিদ্দিকীকে লাঞ্ছিত করে।
রাত ১০টার দিকে সরেজমিনে গেলে মার্কেটের দোতলায় সৈয়দপুর প্লাজা দোকান মালিক সমিতির কার্যালয়ে সামনে মানুষের জটলা চোখে পড়ে। সকলেই এসেছেন টাকার দাবি নিয়ে। সমিতির সভাপতি জানান, কারা কারা সিদ্দিকীর কাছে টাকা পাবেন তার একটা তালিকা তৈরি করেছি আমরা। এতে প্রায় দেড় কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
ঘটনাস্থলে রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলার ভীমপুর গ্রামের মো. আব্দুল করিমের সঙ্গে কথা হয়। তিনি জানান, তারাগঞ্জ টেকনিক্যাল এন্ড বিজনেস ম্যানেজমেন্ট কলেজের অধ্যক্ষ পদে তাঁকে ভুয়া নিয়োগ দেওয়া হয়। এ জন্য উৎকোচ হিসেবে সাড়ে ৬ লাখ টাকা নিয়েছেন নূরে আলম সিদ্দিকী। এমন কি তাকে এমবিএর জাল সার্টিফিকেটও প্রদান করেছেন ওই ব্যক্তি।

কেন তাকে টাকা দেওয়া হলো? জানতে চাইলে প্রতারণার শিকার আব্দুল করিম জানান, আমরা জানি নূরে আলম সিদ্দিকীর সচিবালয়ে দাপট আছে। তিনি এলাকায় ত্রাণ বিতরণ করেন। মাঝে মাঝে তিনি দামী মোটর গাড়ীতে চলাফেরা করেন। এমনকি রাজকীয় চালচলন প্রদর্শন করতে ঘোরায় চেপেও চলাফেরা করতেন তিনি। এসব দেখে তার প্রতি বিশ্বাস বেড়ে যায়। তাই চাকরির আশায় অন্ধের মতো তাকে উৎকোচ প্রদান করি।
এ নিয়ে ওই স্থানে কথা হয় নূরে আলম সিদ্দিকীর সঙ্গে। তিনি প্রতারণার কথা স্বীকার করে বলেন, যাদের টাকা নিয়েছি তা সুদে আসলে ফিরিয়ে দেওয়া হবে। কেন এমনটি করা হলো? জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি সচ্ছল ব্যক্তি। তবে ধনিরাও মাঝে মাঝে বিপদে পড়ে। নতুন একটি ব্যাংকের নাম উল্লেখ করে বলেন, ওই ব্যাংকে ২০ কোটি টাকার শেয়ার নিয়েছি, এ জন্য টাকার প্রয়োজন তাই এলাকার মানুষকে প্রতারণা করে কিছু টাকা নিয়েছি। তিনি বলেন, কেউ কেউ আমাকে নিয়ে ষড়যন্ত্র করছে। তাই আমি ধরা পড়লাম।
এদিকে ১২ ঘণ্টা বন্দি অবস্থায় থেকে রাত দেড়টার দিকে বাথরুমে যাওয়ার কথা বলে পালিয়ে যান সিদ্দিকী। অভিযোগ রয়েছে তাকে পালাতে সহায়তা করেছে ওই মার্কেটেরই কতিপয় ব্যবসায়ী।

এ প্রসঙ্গে তারাগঞ্জ-বদরগঞ্জ আসনের জাতীয় পার্টির সাংসদ আনিসুল ইসলাম মন্ডলের সঙ্গে কথা বললে তিনি প্রথম আলোকে জানান, প্রতারক নূরে আলম সিদ্দিকী জাতীয় পার্টির কেউ নন। আমি জেনেছি তিনি দলের ভাবমূর্তি নষ্ট করে বেড়াচ্ছেন। আমি প্রতারিতদের বলেছি ওই ব্যক্তির বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful