Templates by BIGtheme NET
আজ- সোমবার, ২১ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ৬ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৪ : ৩৯ অপরাহ্ন
Home / টপ নিউজ / বিশেষ প্রতিবেদন: বেরোবি ভিসি ডঃ জলিলের খুঁটির জোর কি এতোই শক্ত!!

বিশেষ প্রতিবেদন: বেরোবি ভিসি ডঃ জলিলের খুঁটির জোর কি এতোই শক্ত!!

রিয়াদ আনোয়ার শুভ -সমাজকর্মী, ব্লগার

রংপুরের রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডঃ আব্দুল জলিল মিয়ার বিরুদ্ধে ওঠা নিয়োগ বাণিজ্য, অনিয়ম, দুর্নীতি, স্বজনপ্রীতি, আত্মীয়করণ, পারিবারিকীকরণ, শিক্ষা বাণিজ্যিকিরণ এবং পীরগঞ্জীকরণের অভিযোগ সম্পর্কে রংপুরবাসী অবগত। গত তিন বছরে বার বার এনিয়ে পত্রিকায় রিপোর্ট হওয়ায় তাঁর দুর্নীতির বিষয়টি দেশবাসীও অবগত। । এর প্রেক্ষিতে উপাচার্যের অনিয়ম ও দুর্নীতি খতিয়ে দেখতে তিন সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি। নিয়োগ স্থগিত করেছে ইউজিসি। ভিসির লাগামহীন দুর্নীতির প্রতিবাদে এবং ভিসির অপসারণের দাবীতে নানান কর্মসূচী পালন করে আসছে শিক্ষক, শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা, কর্মচারীসহ রংপুরবাসী। কিন্তু দুর্নীতিবাজ ভিসি ডঃ জলিল বহাল তবিয়তেই তাঁর দুর্নীতি, নিয়োগ বাণিজ্য চালিয়ে আসছেন। এতো কিছুর পরেও তিনি নির্বিঘ্নে ও নির্ভয়ে প্রশ্নবিদ্ধ সব কাজ চালিয়েই যাচ্ছে। এথেকেই পরিষ্কার বোঝা যায় তাঁর খুঁটির জোর কতোটা শক্তিশালী।

এদিকে তাঁর অবসরে যাওয়া সময় এসে যাওয়ায় কিছুটা হলেও স্বস্তি এসেছিল সকলের মনে। কিন্তু অবসরে যাওয়া দুই সপ্তাহ আগে তিনি ঘটালেন আরও একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা। তাঁর ইন্ধনেই দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করার দায়ে সবাইকে হতভম্ব করে চার শিক্ষক ও দুই কর্মকর্তাকে সাময়িকভাবে বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার ১৮ এপ্রিল তাদের সাময়িক বহিষ্কারের বিষয়টি জানিয়ে নোটিশ দেয়া হয়।

বহিষ্কৃতরা হলেন- দুর্নীতি বিরোধী মঞ্চের আহ্বায়ক গণিত বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আর এম হাফিজুর রহমান, বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. তুহিন ওয়াদুদ, অ্যাকাউন্টিং অ্যান্ড ইনফরমেশন সায়েন্স বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আপেল মাহমুদ ও প্রভাষক উমর ফারুক এবং সহকারী রেজিস্টার মো. আমিনুর রহমান ও সহকারী পরিচালক (গ্রন্থাগার) মো. মামদুদুর রহমান।

সাময়িক বরখাস্তের কারণ হিসেবে তাদের বিরুদ্ধে শিক্ষার পরিবেশ বিনষ্ট, ছাত্রছাত্রীদের উস্কানি দিয়ে বেআইনিভাবে আন্দোলন করা, বিনা অনুমতিতে ছাত্রদের নামে ফৌজদারি মামলা, বিশ্ববিদ্যালয়ের নিয়ম শৃঙ্খলা ভঙ্গসহ সাতটি অভিযোগ আনা হয়েছে।

এদিকে, সাময়িক বরখাস্তের বিষয়ে দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলনের আহ্বায়ক ড. আরএম হাফিজুর রহমান জানান, ভিসির দুর্নীতির বিরোধিতা ও ইউজিসির স্থগিতাদেশ সত্ত্বেও উপাচার্যের নিয়োগ প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে রংপুর সদর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে মামলা করায় তাদের বেআইনিভাবে সাময়িক বরখাস্ত করেছে কর্তৃপক্ষ।

আমাদের দেশে বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে দলবাজি, স্বজনপ্রীতি, আর্থিক অনিয়মের ঘটনা নতুন নয়। বিশেষ করে দলবাজি ছাড়া তো ভিসি হওয়াই সম্ভব না। আর দলবাজির মাধ্যমে দায়িত্বে আসা ব্যক্তির স্বার্থে উপেক্ষিত হয় সামষ্টিক কল্যাণ। এক্ষেত্রে রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি ডঃ আব্দুল জলিল আরেক কাঠি সরেস। তিনি যেভাবে নিজের কন্যা, ভাই, ভায়রা, ভায়রার পুত্র-কন্যা, শ্যালিকা, শ্যালিকার মেয়ে, মেয়ের বান্ধবীসহ নিজের আত্মীয়স্বজনকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন পদে নিয়োগ দিয়েছেন, তা সত্যিই নজিরবিহীন। পারিবারিক সম্পর্কের বাইরেও তাঁর নিজ উপজেলা পীরগঞ্জ এলাকা থেকে তিনি একের পর এক শিক্ষক-কর্মচারী নিয়োগ দিয়েছেন। ফলে বিশ্ববিদ্যালয়টি পরিণত হয়েছে ডঃ জলিলের পারিবারিক বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনিক পদে শতকরা ৭০ভাগ পীরগঞ্জের লোকদের নিয়োগ দেয়ায় বেরোবিকে পীরগঞ্জ বিশ্ববিদ্যালয়ও বলে থাকেন অনেকে।

শুধু তাই নয় দেশ বরেণ্য পরমাণু বিজ্ঞানী বঙ্গবন্ধুর জামাতা বা প্রধানমন্ত্রীর স্বামী হিসেবে প্রয়াত ডঃ এম ওয়াজেদ মিয়া কোন প্রকার রাষ্ট্রীয় সুযোগ সুবিধা গ্রহণ না করে যে উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছিলেন, সেই ব্যক্তিকেই আজ পদে পদে ব্যবহার করছেন ডঃ জলিল তাঁর অপকর্মকে আড়াল করার জন্য। ইতোমধ্যেই তাঁকে রংপুরের ইতিহাসের সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ দুর্নীতিবাজ হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন রংপুরের সুধী সমাজ। তিনি কি তাঁর প্রমান দেয়ার জন্য একটা ছোট তালিকাই যথেষ্ট। নিয়োগ দেয়া শুধুমাত্র নিজের আত্মীয়দের তালিকাই বলে দেবে পরিমাণ বেপরোয়া ভাবে তিনি আত্মীয়করণ করেছেন বেরোবিতে। এছাড়া রয়েছে নিজস্ব পেটোয়া বাহিনীর মাধ্যমে তাঁর বিরুদ্ধে আন্দোলনরতদের ‘সাইজ’ করার মতো ঘৃণ্য চক্রান্ত। ইতোমধ্যে দুই শিক্ষককে এসিড দগ্ধ করেছে ছাত্রলীগ নামধারী ঐ পেটোয়া বাহিনী।

এমন অবস্থায় অবিলম্বে এই দুর্নীতিবাজ ভিসিকে শুধু অপসারণ নয় তাঁর সকল দুর্নীতির জন্য আইনের আওতায় আনার দাবী এখন বেরোবি পরিবারসহ রংপুরের গণ মানুষের দাবীতে পরিণত হয়েছে। এই ব্যাপারে দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে রাজপথে আন্দোলনের মাধ্যমে দাবী আদায় করতেও প্রস্তুত রংপুরবাসী। ভিসির দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন করে আসা দুর্নীতি বিরোধী মঞ্চ বেরোবি রক্ষায় এবং ভিসি জলিলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবীতে দল মত নির্বিশেষে সবাইকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছে।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful