Templates by BIGtheme NET
আজ- মঙ্গলবার, ২৯ সেপ্টেম্বর, ২০২০ :: ১৪ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ৯ : ৩৮ পুর্বাহ্ন
Home / গাইবান্ধা / সুন্দরগঞ্জে সমাজসেবা অফিসে অনিয়ম,দুর্নীতি; দেখার কেউ নেই

সুন্দরগঞ্জে সমাজসেবা অফিসে অনিয়ম,দুর্নীতি; দেখার কেউ নেই

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার গড়িমসির কারণে আর্থ সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়নের লে বরাদ্দকৃত সাড়ে ৬ লাখ ক্ষুদ্র ঋণের টাকা বছর পার হতে চললেও এখনো বিতরণ করা হয়নি। ফলে আর্থ সামাজিক উন্নয়ন মারাত্মকভাবে ব্যাহত হচ্ছে।

জানা গেছে, মহাপরিচালক, ঢাকা’র স্মারক নং- ৫৫৩, তারিখ: ২৬/০৬/২০১২ইং পত্রে সুন্দরগঞ্জ উপজেলার জন্য সাড়ে ৬ লাখ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। কিন্তু এখনও ঋণ বিতরণের প্রাথমিক পদক্ষেপ নেয়া হয়নি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ২ উপজেলার দায়িত্বে থাকায় মাসে ২/৩ দিন অফিসে আসেন। যার ফলে অফিসের কার্যক্রম চলছে ঢিলেঢালা ভাবে। প্রায় সাড়ে ৫ লাখ জনতার এই উপজেলায় নিয়মিত একজন সমাজসেবা কর্মকর্তা প্রয়োজন।

পল্লী সমাজসেবা কার্যক্রমের একটি উল্লেখযোগ্য হল আরএসএস, পল্লী মাতৃ কেন্দ্র ও জনসংখ্যা কার্যক্রম জোরদার করণ কর্মসূচি। এ কর্মসূচির আওতায় উপজেলায় ১৫টি ইউনিয়নে ৬৪টি মাতৃ কেন্দ্র রয়েছে। প্রতিটি মাতৃ কেন্দ্রে বিনিয়োগ ও পুন:বিনিয়োগের অনেক সরকারি অর্থ অনাদায়ী রয়েছে। তাছাড়া আরএসএস ও বিশেষ প্রকল্পের অনাদায়ী লাখ লাখ টাকা দীর্ঘদিন ধরে মাঠে পড়ে আছে। আর এই অনাদায়ী টাকা আদায়ের ব্যাপারে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা কোন পদক্ষেপই গ্রহণ করছেন না। সাবেক উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা শামসুজ্জোহা বদলি হওয়ার পর থেকে কার্যক্রম চলছে ধীর গতিতে। যাবতীয় গোপন বিল ও বিভিন্ন চিঠি পত্রের কাজ করেন নাইট গার্ড আবুল কালাম। কর্মকর্তা নিয়মিত অফিসে না থাকায় অন্যান্য কর্মচারীরাও ঠিকমত অফিস করেন না। প্রকল্প-ভুক্ত গ্রামের ফাইল-পত্র, ব্যাংক পাশ বই ও চেক বইয়ের কাজ করা হয় অতি গোপনে।

এদিকে উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চল থেকে আসা প্রতিবন্ধী, এতিম বালক-বালিকা ভর্তি হওয়ার জন্য এসে অফিসে কর্মকর্তাকে না পেয়ে অতিকষ্টে ফেরত যাচ্ছে। প্রতিবন্ধী ব্যক্তিগণ কাগজপত্র পাওয়ার জন্য অফিসে গেলে তাদেরকে হয়রানি করা হয়। দেখার যেন কেউ নেই। এছাড়া ইউনিয়ন সমাজকর্মী নুরে আলম সিদ্দিকী দীর্ঘ ৪ মাস যাবত অফিস করছেন না। তিনি কর্তৃপক্ষের কাছে ছুটি না নিয়েই অনুপস্থিত রয়েছেন।

এ ব্যাপারে সমাজসেবা কর্মকর্তা আকরাম হোসেন জানান, নুরে আলম সিদ্দিকী ছুটি ছাড়া অনুপস্থিত থাকার কারণে তার বেতন বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। ক্ষুদ্র ঋণ বিতরণ ব্যাপারে তিনি জানান, প্রাথমিক কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে।

এ ব্যাপারে জেলা সমাজসেবা উপ-পরিচালক শহিদুর রহমান জানান, আর্থ সামাজিক কার্যক্রম বাস্তবায়নের জন্য জেলার ৭ উপজেলার মধ্যে ৫ উপজেলায় ক্ষুদ্র ঋণের অনুকূলে বরাদ্দকৃত টাকা বিতরণ করা হয়েছে। বাকি রয়েছে শুধু সাদুল্যাপুর ও সুন্দরগঞ্জ উপজেলা। তিনি আরো জানান, উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তারা বরাদ্দকৃত টাকা বিতরণ করেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful