Templates by BIGtheme NET
আজ- শুক্রবার, ২ অক্টোবর, ২০২০ :: ১৭ আশ্বিন ১৪২৭ :: সময়- ১২ : ৪৬ পুর্বাহ্ন
Home / টপ নিউজ / জাতীয় বাজেটে রংপুর বিভাগের জন্য বিশেষ বরাদ্দ চাই

জাতীয় বাজেটে রংপুর বিভাগের জন্য বিশেষ বরাদ্দ চাই

স্টাফ রিপোর্টার: আসন্ন জাতীয় বাজেটে রংপুর বিভাগের জন্য বিশেষ বরাদ্দ চাই শীর্ষক এক বিভাগীয় সেমিনারে আলোচকরা অভিযোগ করেছেন রংপুর দেশের সবচেয়ে বড় বিভাগ হওয়া সত্বেও এডিপি সহ উন্নয়ন খাতে অর্থ বরাদ্দের ক্ষেত্রে এ বিভাগের মানুষ চরম ভাবে বৈষম্যের শিকার হচ্ছে। দেশের দারিদ্রের হার ৩১ দশমিক ৫ শতাংশ হলেও রংপুর বিভাগে তা বেড়ে দাড়িয়েছে ৪৬ শতাংশ। এ বিভাগে উদ্বৃত্ত খাদ্য উৎপাদন করে জাতীয় খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করলেও এখানে কৃষি ভিত্তিক শিল্প কারখানা গড়ে তোলা হচ্ছেনা।

শুক্রবার রংপুর নগরীর আরডিআরএস মিলনায়তনে এক সেমিনারে আলোচকরা এ অভিযোগ করেন। সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রাথমিক ও গনশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন। বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আরডিআরএস এর প্রধান কর্মসূচি সমন্ময়ক মজ্ঞুশ্রী সাহার সভাপতিত্বে সেমিনারে বিশেষ অতিথি ছিলেন রংপুর বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার কাজী হাসান আহাম্মেদ , স্থানীয় সরকার বিভাগের পরিচালক মিনু শীল। মুল প্রবন্ধ পাঠ করেন রংপুর বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড, মোরশেদ হোসেন।

আলোচকরা বলেন রংপুর বিভাগের মানুষ সকল ক্ষেত্রেই বৈষম্যের শিকার । এখানে গ্যাস সংযোগ নেই ফলে শিল্প কারখানা গড়ে উঠছেনা । বেকারত্বের সংখ্যা বাড়ছে। খরার প্রকোপ বিদ্যমান থাকলেও তা মোকাবেলায় সরকারী বেসরকারী কোন উদ্যেগ নেই । অন্যদিকে বাজেটে মাথাপিছু বরাদ্দের ক্ষেত্রে অন্যান্য বিভাগের চেয়ে অনেক কম।  সেমিনারে মুল প্রবন্ধে বলা হয় উন্নয়ন ব্যায় বরাদ্দের ক্ষেত্রের বৈষম্যের শিকার হচ্ছে এ অঞ্চলের মানুষ । দেশের অন্যান্য বিভাগের প্রায় অর্ধেক রংপুর বিভাগে বরাদ্দ দেয়া হয় সিলেট বিভাগ যেখানে উন্নয়ন ব্যায় বাবদ পেয়েছে ১৩শ ২৫ কোটি টাকা সেখানে রংপুর পেয়েছে মাত্র ৮শ ৬৫ কোটি টাকা। অনুন্নয়ন ব্যায়ের ক্ষেত্রেও ৭টি বিভাগের মদ্যে সর্বনিম্ন মাত্র ২ হাজার ৮শ কোটি টাকা পেয়েছে। সড়ক পরিবহনে রংপুর জেলা হিসেবে ১৫ তম হিসেবে রাখা হয়। বরাদ্দ মিলেছে মাত্র ৪শ৯২ কোটি টাকা । অথচ জামালপুর জেকলা পেয়েছে ৩ হাজার ২০ কোটি টাকা। মজুরী ক্ষেত্রের রর্ংপুর বিভাগের মজুৃরী সব চেয়ে কম পাচ্ছে শ্রমিকরা । বিদেশে রংপুর বিভাগের মাত্র ১ ভাগ মানুষ যাবার সুযোগ পাচ্ছে। অথচ কুমিল্লা জেলার মানুষ ১৪ ভাগ যাচ্ছে বিদেশে । এ ক্ষেত্রে সরকারকে এ বিভাগের জন্য আলাদা কোটা নির্ধারন করা দরকার । সেই সাথে আসন্ন বাজেটে রংপুর বিভাগের জন্য বিশেষ বরাদ্দ রাখা সহ এ অঞ্চলের উন্নয়নের জন্য থোক বরাদ্দ রাখা সহ সকল দাবি দাওয়া বাস্তবায়ন করার দাবি জানানো হয়।

প্রধান অতিথি প্রাথমিক ও গনশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মোতাহার হোসেন বলেন রংপুর বিভাগের জনপ্রতিনিধিরা সচিবালয়ে আসতে চাননা । তারা নির্বাচিত হবার পর এলাকার উন্নয়নের জন্য মন্ত্রী সচিবদের কাছে ধর্না দিয়ে যে কাজ আদায় করতে হয় তা তারা করেননা । সে কারনে জনগনকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে যে এমপি কাজ করবেনা তাদের আগামী নির্বাচনে যেন ভোট না দেয়া হয়। তাদের বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করতে হবে।

মন্ত্রী বলেন প্রধানমন্ত্রী রংপুরকে বিভাগ দিয়েছেন সিটি করপোরেশন করেছেন । এখানকার মেয়র নির্বাচিত হবার পর বলেছেন তিনি নাকি সরকারী বরাদ্দ নেবেননা । নিজস্ব অর্থ দিয়ে চলবেন । এমন কথা কেউ বলতে পারে । আসলে তিনি রংপুরের উন্নয়ন চাননা । এর আগে এরশাদ রাষ্ট্রপতি হবার পর তখনকার চেয়ারম্যান একই কথা বলে উন্নয়ন বঞ্চিত করেছিলেন ।

মন্ত্রী  বলেন এখন বাজেট তৈরী হয়ে গেছে। এখন ট্রেন ছেড়ে দিয়েছে তাই চেইন টেনে ট্রেন আটকাতে হবে। আসন্ন বাজেট অধিবেশনে রংপুর বিভাগের মানুষের প্রানের দাবি সর্ংসদে উত্থাপন করে আদায় করতে হবে। তিনি বলেন এখন আমাদের শ্লোগান তুলতে হবে গ্যাস চাই কৃষিতে ভুর্তকি দিতে হবে।

সেমিনারে সরকারী কর্মকর্তা এনজিও প্রতিনিধি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি গনমাধ্যম কর্মী সহ সুশীল সমাজের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

Social Media Sharing

ăn dặm kiểu NhậtResponsive WordPress Themenhà cấp 4 nông thônthời trang trẻ emgiày cao gótshop giày nữdownload wordpress pluginsmẫu biệt thự đẹpepichouseáo sơ mi nữhouse beautiful