আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২ ● ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত       পঞ্চগড়ে নৌডুবিতে ইজারাদার ও অদক্ষ মাঝিকে দায়ী করে প্রতিবেদন দাখিল       অপুকে ডিভোর্সের ১৪৮ দিন পর বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব       সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমল ১৪ টাকা       বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ এক ডিগ্রী বেশি- রংপুরে জিএম কাদের      

একসঙ্গে ৪ সন্তানের মা হলেন এক গৃহবধূ

বুধবার, ৩১ আগস্ট ২০২২, দুপুর ০৪:৪৬

ডেস্ক: দিনাজপুর এম. আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে একসঙ্গে চার সন্তানের জন্ম দিয়েছেন মৌসুমী বেগম নামে এক গৃহবধূ। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে ভূমিষ্ঠ হওয়া চার নবজাতক সুস্থ আছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের চিকিৎসক।

বুধবার (৩১ আগস্ট) দুপুর সাড়ে ১১টায় চার সন্তানের জন্ম দেন প্রসূতি মৌসুমী বেগম। তিনি জেলার বিরল উপজেলার ভান্ডারা ইউনিয়নের ভান্ডারা সরকারপাড়ার শরিফুল ইসলামের স্ত্রী। এর মধ্যে তিন জন ছেলে ও এক জন মেয়ে।

পরিবার সূত্রে জানা গেছে, ১০ বছর আগে তাদের বিয়ে হয়। এরপর থেকে কোনও সন্তান হয়নি। এরই মধ্যে অন্তঃসত্ত্বা হন মৌসুমী। গত ২০ আগস্ট প্রসব ব্যথা উঠলে ওই দিনই হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। এরপর থেকে তিনি হাসপাতালেই চিকিৎসাধীন ছিলেন। বুধবার দুপুর ১২টার দিকে অস্ত্রোপচার মাধ্যমে চার সন্তানের জন্ম দেন। পরে নবজাতকদের নিবিড় পরিচর্যায় রাখা হয়েছে। আর হাসপাতালের গাইনি ১নং ওয়ার্ড ৮ নম্বর বেডে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মা।

হাসপাতালের প্রসূতি ও স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞ সার্জন ডা. ইসরাত জাহান জানান, দীর্ঘদিন ধরে সন্তান না হওয়ায় ওই স্বামী-স্ত্রী আমাদের কাছে পরামর্শ নেন। এরপর ওই নারী অন্তঃসত্ত্বা হন। নবজাতকদের বর্তমানে নিবিড় পরিচর্যায় রাখা হয়েছে। মৌসুমী বেগম ও তার সন্তানরা সুস্থ রয়েছেন। এই প্রথম দিনাজপুরে একসঙ্গে চারটি সন্তানের জন্ম হয়।

শরিফুল ইসলাম বলেন, সন্তান হওয়ার পর আমরা খুশি। বিয়ের এক বছর পর একটি সন্তান হয়েছিল। জন্মের পর পরই সে মারা যায়। এরপর আর বাচ্চা হয়নি। এখন আল্লাহ আমাকে একসঙ্গে চার সন্তান দিয়েছেন।

মন্তব্য করুন


Link copied