আর্কাইভ  রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১০ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
ব্রেকিং নিউজ
শিরোনাম: পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে ২৪ জনের মৃত্যু       উত্তরবঙ্গে তাপমাত্রা কমার আভাস       অস্কারে যাচ্ছে ‘হাওয়া’       রংপুরে জাপানি নাগরিক হত্যায় ইছাহাকের খালাসের আদেশ স্থগিত       রংপুরে ভুয়া চাকুরীদাতা প্রতারক চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার      

কামরুল ভরসাসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে জাল দলিল তৈরির অভিযোগে মামলা

রবিবার, ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২২, সকাল ০৯:২১

মমিনুল ইসলাম রিপন: রংপুরে মো. কামরুল ইসলাম ভরসার বিরুদ্ধে পিতার সম্পত্তি জালিয়াতির মাধ্যমে নিজ নামে দলিল তৈরির অভিযোগে  রংপুর কোতোয়ালি থানায় মামলা করেছেন তার বৈমাত্রেয় ভাই মো. সাইফুল উদ্দিন ভরসা। শনিবার (৫ ফেব্রুয়ারি) এ মামলা করা হয়। মামলায় মো. কামরুল ইসলাম ভরসার সাথে আরও ২ জনকে আসামি করা হয়েছে। তারা হলেন, রংপুর সাব রেজিস্ট্রার অফিসের দলিল লেখক মো. হাবিবুর রহমান ও মো. আবুল কাশেম। মামলা নং- ০৯/১১১ (০৫.০২.২০২২)।

মামলার এজাহারে মো. করিম উদ্দিন ভরসার ছেলে মো. সাইফুল উদ্দিন ভরসা অভিযোগ করেন, ১ নম্বর আসামি তার বৈমাত্রেয় ভাই কামরুল ইসলাম ভরসার সাথে বৃদ্ধ পিতা করিম উদ্দিন ভরসার মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। করিম উদ্দিন ভরসার ক্ষতি করতে আসামিরা সুযোগ খুঁজতে থাকে। সাইফুল উদ্দিন ভরসা মামলার এজাহারে বলেন, তার পিতার বয়স ৮০ বছরের বেশি। তার ইচ্ছা এবং বিজ্ঞ আদালতের আদেশে তিনি তার পিতাকে দেখভাল করে আসছেন। আমি আমার বৃদ্ধ পিতার যাবতীয় চিকিৎসা দেয়ায় তিনি বর্তমানে সম্পূর্ণ সুস্থ আছেন।

এজাহারে সাইফুল উদ্দিন ভরসা বলেন, পিতার নির্দেশে রংপুর কোতোয়ালি থানার চান্দকুটি মৌজার, জে এল নং-৭৭, খতিয়ান নং-৫৩৭, ১০১, ১৪৩, ১০৩ দাগ নং- ৫২৩, জমি-৪৪ শতক, দাগ নং- ৫২৪ জমি-৩.০১ একর, দাগ নং-৫২৫ জমি, ১৬ শতক, দাগ নং-৫২৯ জমি ১২ শতক, একুনে জমির পরিমাণ ৪.৯১ শতক সম্পত্তি দেখাশুনার জন্য খোঁজখবর নেয়। পিতার নামে থাকা এসব সম্পত্তির  খাজনা দিতে সাহেবগঞ্জ তহশিল অফিসে গিয়ে জানতে পারি যে পিতার নামীয় সম্পত্তি আমার বৈমাত্রেয় ভাই কামরুল ইসলাম ভরসার নামে খারিজ করা আছে।
এ বিষয়ে খোঁজ নিতে গত ১৭ জানুয়ারি রংপুর সদরের সহকারী কমিশনার (ভূমি) অফিসে গিয়ে জানতে পারি, ১ নম্বর আসামি বৈমাত্রেয় ভাই কামরুল ইসলাম ভরসা অপর আসামিদের সাথে যোগসাজশে  ১০২৭/০৫ তারিখ ০১/০২/২০০৫ সালে একটি জাল দলিল তৈরি করেন। ওই দলিলের মধ্যে দাতা করিম উদ্দিন ভরসা গ্রহীতা কামরুল ইসলাম ভরসা উল্লেখ আছে এবং তাদের নিম্ন সম্পত্তি অন্তর্ভুক্ত করে হেবাবিল এওয়াজ দলিল সৃজন করে। অতঃপর আমি রংপুর সদর সাব-রেজিস্ট্রার অফিসে দলিল নং-১০২৭/০৫ তারিখ-০১/০২/২০০০।

এ জাবেদা নকল উত্তেলন করি। জাবেদা নকল উত্তোলন করে জানতে পারি উক্ত মূল দলিলের দাতা রেদওয়ানী বারিক, মানিক, গ্রহীতা আপ্তাব উদ্দিন এবং উক্ত দলিলের জমির পরিমাণ, জমির মূল্য সম্পূর্ণ আলাদা এবং মূল দলিলটি একটি কবলা দলিল মাত্র। ১নং আসামি মো. কামরুল ইসলাম ভরসা অন্য আসামিদের সাথে একই উদ্দেশ্যে সাধনকল্পে পরস্পর যোগসাজশে দলিল নং (১০২৭/০৫, তারিখঃ ০১/০২/২০০০ খ্রিস্টাব্দ নম্বর ব্যবহার করে আমার পিতার সম্পত্তি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে ভুয়া দলিল তৈরি করে। জাল দলিলটি সহকারী কমিশনার (ভূমি) রংপুর সদর, রংপুর অফিসে দাখিল করে তথ্য গোপন করে অসৎ উদ্দেশ্যে গত ১৮/০৬/২০১৬ নিজ নামে খারিজ করেন।

মামলার এজাহারে আরও বলা হয় এক নম্বর আসামি অপর আসামিদের সহযোগিতায় ও পরস্পর যোগসাজশে একই উদ্দেশ্য আমার পিতা মো. করিম উদ্দিন ভরসার সাথে প্রতারণার উদ্দেশ্যে জাল দলিল তৈরি করে ভুয়া দলিলকে খাঁটি হিসেবে সরকারি অফিসে সহকারী কমিশনার (ভূমি) সদর, রংপুরে দাখিল করে।

মন্তব্য করুন


Link copied