আর্কাইভ  শুক্রবার ● ১২ আগস্ট ২০২২ ● ২৮ শ্রাবণ ১৪২৯
আর্কাইভ   শুক্রবার ● ১২ আগস্ট ২০২২
PMBA
 
PMBA

ডেপুটি স্পিকারের আসনে কে হচ্ছেন নৌকার কান্ডারী

শনিবার, ৩০ জুলাই ২০২২, বিকাল ০৭:২০

খায়রুল ইসলাম, গাইবান্ধা থেকে: জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার সদ্য প্রয়াত অ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়ার আসনটি গত ২৪ জুলাই শূণ্য ঘোষণা করে প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সংসদ সচিবালয়। নিয়মানুযায়ী গাইবান্ধা- ৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে আগামী ৯০ দিনের মধ্যে উপ-নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এরই মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও বিভিন্ন চায়ের দোকানে এবং আড্ডাখানায় শুরু হয়েছে জল্পনা-কল্পনা। কে হচ্ছেন নৌকার কান্ডারী? কে পাচ্ছেন দলীয় মনোনয়ন এ নিয়ে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের মধ্যে ব্যাপক আলোচনা চলছে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও মানুষের জল্পনা-কল্পনা এবং আওয়ামী লীগ নেতাদের আলোচনা সূত্রে জানা যায়, গাইবান্ধা -৫ (ফুলছড়ি-সাঘাটা) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ৩ জন। তারা হলেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন, ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি জি.এম সেলিম পারভেজ ও সদ্য প্রয়াত অ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে ফারজানা রাব্বী বুবলী।

জানা যায়, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি ছিলেন মাহমুদ হাসান রিপন। তিনি আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপ-কমিটির সহ-স¤পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। পাশাপাশি নির্বাচনী এলাকায় দীর্ঘদিন থেকে বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সক্রিয় ভূমিকা পালন করছেন। এছাড়া তিনি সাঘাটা-ফুলছড়ি উপজেলায় দীর্ঘদিন ধরে তৃণমুল নেতাকর্মীদের সাথে মিছিল মিটিং সমাবেশ করে জনপ্রিয় হয়ে উঠেছেন। 

এদিকে ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জি.এম সেলিম পারভেজ তিনিও মনোনয়ন প্রত্যাশী। তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ছিলেন। উপজেলা আওয়ামী লীগের দুই বার সাধারণ স¤পাদক ও দ্বিতীয় বারের মতো ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি  হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন তিনি। 

অপরদিকে, ফারজানা রাব্বী বুবলী ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ স¤পাদক, তার স্বামী বিচারপতি খুরশীদ আলম সরকার। ফজলে রাব্বী মিয়ার মেয়ে হিসেবে তিনি বাবার উত্তরাধিকার দাবি করছেন বলে জানা গেছে। 

আরিফ মিয়া নামে একজন ফেসবুকে লিখেছেন দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার আস্থাভাজন, ১/১১ দুঃসময়ের কান্ডারি, দেশরত্ন শেখ হাসিনা ও গণতন্ত্র মুক্তির অগ্রনায়ক, তৎকালীন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাহমুদ হাসান রিপন যিনি আজ স্বমহিমায় সাঘাটা-ফুলছড়িতে অতীতের সকল নেতাদেরকে সাথে নিয়ে  জনপ্রিয়তায় শীর্ষে রয়েছেন। 

ফুলছড়ির আওয়ামী লীগ নেতা আসাদুজ্জামান বাদশা বলেন, দীর্ঘদিন থেকে ফুলছড়ি-সাঘাটার আওয়ামী লীগকে আগলে রেখেছেন মাহমুদ হাসান রিপন। উপ-নির্বাচনে একজন ত্যাগী নেতা হিসেবে মাহমুদ হাসান রিপন আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাবেন। তার প্রচুর জনসমর্থন রয়েছে। তাই তাকে মনোনয়ন দিলে নৌকা মার্কার বিজয় নিশ্চিত।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ফুলছড়ি উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জি.এম সেলিম পারভেজ বলেন, আমি দীর্ঘদিন থেকে আওয়ামী লীগের রাজনীতি করি। এর আগেও আমি দুই বার দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করেছিলাম। এবারের উপ-নির্বাচনে আমি দলীয় মনোনয়ন সংগ্রহ করবো। আশা করছি মনোনয়ন পাবো। আমাকে নৌকা প্রতীক দিলে আমার বিজয় নিশ্চিত।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক আওয়ামী লীগের একজন নেতা মনোনয়ন বিষয়ে বলেন, যদি কাউকে ম্যানেজ করার বিষয় থাকে তাহলে হয়তো পরিবারের দিকে যেতে পারে। আবার আমরা যদি দীর্ঘমেয়াদী কৌশল অবলম্বন করি তাহলে তরুণ কাউকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে। আমাদের মনোনয়ন বোর্ডে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত করা হবে। 

উল্লেখ্য, গাইবান্ধা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও জাতীয় সংসদের ডেপুটি স্পিকার অ্যাড. ফজলে রাব্বী মিয়া গত ২২ জুলাই নিউইয়র্কের মাউন্ট সিনাই হাসপাতালে স্থানীয় সময় বিকেল ৪টায় (বাংলাদেশ সময় ২৩ জুলাই রাত ২ টায়) চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। 

মন্তব্য করুন


Link copied