আর্কাইভ  সোমবার ● ৩ অক্টোবর ২০২২ ● ১৮ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ৩ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: ১৪ জেলায় ঝড়ের পূর্বাভাস       ডিমলায় আপডেট ক্লিনিক এন্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারকে জরিমানা ও সিলগালা       রংপুরে ধর্ষক গ্রেফতার       পাঁচ দিনের ছুটির কবলে প্রশাসন       এলপিজি গ্যাসের দাম কমল      

নীলফামারীতে ইউপি নির্বাচনে দুই নিহতের পরিবার পেল ২০ লাখ টাকার অনুদান

মঙ্গলবার, ৫ জুলাই ২০২২, বিকাল ০৬:২৫

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ নীলফামারীতে গত ইউপি নির্বাচনে দায়িত্ব পালনকালে নিহত বিজিবি সদস্য ও পোলিং অফিসার মাদ্রাসা শিক্ষকের দুই  পরিবারকে ১০ লাখ টাকা করে মোট ২০ লাখ টাকার আর্থিক অনুদান প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার (৫ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে নির্বাচন কমিশনের ওই অনুদানের চেক বিতরণ করা হয়।

জেলা নির্বাচন দপ্তর আয়োজিত অনুষ্ঠানে জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন, জেলা পরিষদের প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা জয়নাল আবেদীন, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আফতাব উজ জামান, নীলফামারী প্রেসক্লাবের সভাপতি তাহমিন হক ববী, সাধারণ সম্পাদক হাসান রাব্বী প্রধান উপস্থিত থেকে নিহতদের পরিবারের সদস্যদের হাতে চেক তুলে দেয়া হয়। নিহত বিজিবি সদস্য নায়েক রুবেল মন্ডল (৩৫) এর স্ত্রী জেসমিন বেগম ও নিহত পোলিং  কর্মকর্তা খাদেমূল ইসলামের স্ত্রী সাবিনা ইয়াসিন এই চেক গ্রহন করেন।

উল্লেখ্য, গত বছরের ২৮ নবেম্বর জেলার কিশোরগঞ্জ উপজেলায় গাড়াগ্রাম ইউনিয়নের পশ্চিম দলিরাম মাঝাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গ্রহন শেষে ফলাফল প্রকাশের সময় রাত সাড়ে আটটার দিকে হামলায় নিহত হন নীলফামারী ব্যাটালিয়ান ৫৬ বিজিবির বিজিবির নায়েক রুবেল মন্ডল (৩৫)। তিনি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার শালমারা ইউনিয়নের বাইগুনি গ্রামের নজরুল ইসলামের ছেলে।
অপরদিকে একই বছরের ২৬ ডিসেম্বর সৈয়দপুর উপজেলায় খাতামধুপুর ইউনিয়নের ভোট অনুষ্ঠিত হয়। ওই নির্বাচনে ২৫ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় ইউনিয়নের পূর্ব খালিশা ঢুলিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দায়িত্ব পালনের জন্য  যাওয়ার সময় পোলিং কর্মকর্তা খাদেমূল ইসলাম সড়ক দূঘটনায় নিহত হন। তিনি ওই উপজেলার লক্ষণপুর বালাপাড়া ইসলামিয়া দাখিল মাদ্রাসার শরীরচর্চা শিক্ষক ছিলেন।
জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘ওই দুই ব্যক্তির নির্বাচনী দায়িত্বপাল করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন। তাদের পরিবারকে সহযোগিতার জন্য নির্বাচন কমিশন ১০ লাখ টাকা করে ২০ লাখ টাকার অনুদান প্রদান করে।’

মন্তব্য করুন


Link copied