আর্কাইভ  সোমবার ● ৩ অক্টোবর ২০২২ ● ১৮ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ৩ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: পাঁচ দিনের ছুটির কবলে প্রশাসন       এলপিজি গ্যাসের দাম কমল       রংপুর মেডিকেলের উপপরিচালক ও সহকারী পরিচালসহ ৩ কর্মকর্তাকে বদলি       ঘোড়াঘাটের সাবেক ইউএনওকে হত্যাচেষ্টার রায় ৪ অক্টোবর       রংপুরে মাসব্যাপী শিল্প ও বাণিজ্য মেলা উদ্বোধন      

রংপুরে ইভা হত্যা মামলায় প্রেমিকের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি

বৃহস্পতিবার, ১৮ আগস্ট ২০২২, দুপুর ০১:০৯

মমিনূল ইসলাম রিপন: রংপুরের কাউনিয়ায় স্কুলছাত্রী সানজিদা খানম ইভা হত্যার রহস্য ২৪ ঘন্টার মধ্যে উদঘাটন করলো পুলিশ। 

এঘটনায় কথিত প্রেমিক মোঃ নাহিদুল ইসলাম ওরফে সায়েম বিজ্ঞ আদালতে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দেন। 

জবানবন্দিতে জানা যায়, কিলিং মিশনে অংশ নেয় সানজিদার কথিত ৩ প্রেমিক, সানজিদার উচ্ছৃঙ্খল জীবন ও বহুভুজ প্রেমের কারণে তারা পূর্বপরিকল্পিতভাবে হত্যা করে। সানজিদা হত্যা মামলার রহস্য উদঘাটনে সানজিদার ব্যাগে পাওয়া একটি খাতা ও সোর্সের মাধ্যমে প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশ গ্রেফতার করে সানজিদার কথিত প্রেমিক

মাহিগঞ্জ থানার তালুক উপাশু গ্রামের মোঃ নূর হোসেন মিলিটারির ছেলে মোঃ নাহিদুল ইসলাম ওরফে সায়েম কে (১৯)। সে গত বছর ক্যান্ট পাবলিক থেকে ইন্টার পাশ করেছে। 

পুলিশ ও আদালত সূত্র জানায়, সায়েমের সাথে ৩ বছর আগে সানজিদার পরিচয় ও সম্পর্ক হয়। কিছুদিন আগে তাদের সম্পর্ক ভেঙ্গে গেলেও যোগাযোগ অব্যাহত থাকে। 

এরই মাঝে ঘটনার দিন গত মঙ্গলবার আনুমানিক ২.৩০ মিনিট এর দিকে পূর্ব পরিকল্পনা অনুযায়ী সায়েম সানজিদাকে নিয়ে রংপুরে শাপলা সিনেমা হলে সিনেমা দেখতে যায়। সেখানে সানজিদার নতুন প্রেম নিয়ে উভয়ের মধ্যে তর্ক লাগলে সানজিদা সেখান থেকে চলে যায়। পরে সায়েম তার পূর্ব পরিচিত আরও ২ জনের সাহায্যে কৌশলে সানজিদাকে মাহিগঞ্জে রেখে পরে সেখানে আবার মিলিত হয়। 

তারপর তারা পীরগাছা আলীবাবা থিম পার্কে ঘুরতে যায় কিন্তু রাত হয়ে যাওয়ায় সানজিদা ফিরে আসার জন্য চাপ দেয়। এরপর মধুপুর কুটিরপাড় রোডের একটি ফাকা জায়গায় নিয়ে সানজিদার একাধিক প্রেম নিয়ে চার্জ করে এবং তারা ৩ জন মিলে উপুর্যুপরি ছুরিকাহত করে হত্যা করে। এরপর তারা সেখান থেকে সটকে পড়ে।

রংপুর জেলা সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ আশরাফুল আলম পলাশ জানান, গ্রেফতারকৃত সায়েম হত্যার সাথে সম্পৃক্ততা স্বীকার করে বিজ্ঞ আদালতে স্বীকারোক্তি মূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ইতিমধ্যে আরও একজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তদন্ত অব্যাহত আছে।

উল্লেখ্য, যে গত মঙ্গলবার (১৬ আগস্ট) রাত ১০টার দিকে কাউনিয়া উপজেলার কুটির পাড় বাজার হতে মধুপুর যাওয়ার সড়কের পাশে গলা কাটা অজ্ঞাত পরিচয়ের এক তরুণীর লাশ পড়ে ছিল। স্থানীয় পথচারীরা লাশটি দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করে কাউনিয়া উপজেলা হাসপাতালে পাঠায়। 

নিহত সানজিদা খানম ইভার বাড়ি কাউনিয়া উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের গোড়াই এলাকার ইব্রাহিম খান এর মেয়ে। সে বড়দরগা স্কুলের দশম শ্রেণির ছাত্রী। 

মন্তব্য করুন


Link copied