আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ১৮ আগস্ট ২০২২ ● ৩ ভাদ্র ১৪২৯
আর্কাইভ   বৃহস্পতিবার ● ১৮ আগস্ট ২০২২
 
PMBA

রংপুরে করিম উদ্দিন ভরসার স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন    

শুক্রবার, ৪ মার্চ ২০২২, বিকাল ০৫:০৪

মমিনুল ইসলাম রিপন রংপুর, (০৪ মার্চ  ২০২২,)॥ রংপুরে স্বামীর সম্পত্তি ভুমিদস্যুর হাত থেকে রক্ষা ও ন্যায় বিচার চেয়ে সংবাদ সম্মেলন করেছেন আফলাতুন নাহার নামে একজন অসহায় নারী।

শুক্রবার দুপুরে রংপুর নগরীর বিনোদপুর রেলগেট এলাকায় এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে আফলাতুন নাহার বলেন, ৬ বছর পূর্বে আমার স্বামী করিম উদ্দিন ভরসা আমার ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে বিনোদপুর মৌজার জেএল নং-৯৮, সাবেক দাগ নং-৫২২, মোট ১৯ শতক জমি ২০১৬ সালের ২৭ জুলাই হেবামুলে দলিল সম্পাদন করে দেন। এরপর আমার স্বামীর  দেয়া জমি দখল মোতাবেক জমির সীমানা নির্ধারণ পূর্বক ভোগ দখল করে প্রাচীর নিমার্ণ করি।। সম্প্রতি আমার স্বামীর ২য় স্ত্রীর সন্তান কামরুল ইসলাম ভরসা নিকট থেকে রাজধানী ঢাকার বাসিন্দা রেজওয়ান আহমেদ রাজু ও তার লোকজনের নিকট আলাদা মৌজার এবং আলাদা দাগের সম্পত্তি ক্রয় করে। যা আলমনগর মৌজার জেএল নং-৯৬, সাবেক খতিয়ান নং-১৫০৬, হাল খতিয়ান নং-১৪৫৩, বুজারত খতিয়ান নং-৩২৮৭২,ডিপি খতিয়ান নং-১৯৯৬, হোল্ডি নং-৫৯৫৯, খারিজ খতিয়ান নং-৫৭৯৮, সাবেক দাগ নং-২২৬০, হাল দাগ নং-৩৩৬০৯/৩৩৬১০ এর মধ্যে (৫৪শতাংশ) জমি। যা আমার স্বামীর দেয়া হেবানামা বর্ণিত তফসিলের সাথে কোন মিল নেই। আফলাতুন নাহার অভিযোগ করে আরও বলেন, ক্রয়কৃত সম্পত্তি রেজওয়ান আহমেদ রাজু জমিদাতা কামরুল ইসলাম ভরসার কাছ থেকে বুঝিয়ে না নিয়ে অর্তকিতভাবে আমার স্বামীর দেয়া ভোগ দখলকৃত জমি জবর দখলের চেষ্টা চালিয়ে আসছেন। তাৎক্ষনিকভাবে আমি কোতয়ালি থানায় অবগত করে একটি সাধারণ ডায়েরি করি। যার জিডি নং-১০৩২, তাং-১৭/০২/২২ইং। প্রশাসন আমার দায়েরকৃত জিডি আমলে না নিয়ে উল্টো আমার বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষের দেয়া এজাহার তদন্ত ছাড়াই গ্রহণ করেন।

সংবাদ সম্মেলনে আফলাতুন নাহার আরও বলেন, এ ঘটনায় ন্যায় বিচার চেয়ে আমার ভাইসহ স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ১৫নং ওয়ার্ড কাউন্সিল জাকারিয়া আলম শিপলুর নিকট স্থানীয়ভাবে সমাধানের জন্য লিখিত আবেদন করি। এর প্রেক্ষিতে সিটি কর্পোরেশন জমি মাপার জন্য তারিখ নির্ধারণ করলে তারা বিষয়টি আমলে না নিয়ে এড়িয়ে যান। এছাড়াও প্রতিপক্ষরা কৌশলে ঘটনার আগে স্থানীয় প্রতিনিধিসহ আমার ভাই আফতাবুর রহমান রুমনসহ আবারো আমার নামে আরও একটি  হয়রানিমূলক মামলা দায়ের করেন। এছাড়াও প্রতিপক্ষ প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাদের ব্যবহার করে আমাকে ভয়ভীতি প্রদর্শন করে আসছে। আমি উল্লেখিত ঘটনাটি সুষ্ঠু তদন্ত চেয়ে প্রশাসন এবং সাংবাদিকদের নিকট ন্যায় বিচার কামনা করছি। সংবাদ সম্মেলনে স্থানীয় এলাকাবাসি উপস্থিত ছিলেন। 

মন্তব্য করুন


Link copied