আর্কাইভ  শুক্রবার ● ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১৫ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   শুক্রবার ● ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
শিরোনাম: রুপালি পর্দা- প্রেম, বিয়ে, সন্তান কেন এত অসম্মান?       ঠোঁটের কালচে দাগ দূর হোক, ফিরিয়ে আনুন গোলাপি ভাব       বাংলাবান্ধা স্থলবন্দরে ১০ দিন সকল প্রকার আমদানি রফতানি বন্ধ       বিদেশিদের কাছে বিএনপির অপশাসনের চিত্র তুলে ধরুন: প্রধানমন্ত্রী       পূজাকে বিয়ের প্রস্তাব পাঠিয়েছেন শাকিব      

রংপুরে দুই বাসের সংঘর্ষের ঘটনায় তদন্ত কমিটি

সোমবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, বিকাল ০৫:০০

মমিনুল ইসলাম রিপন: রংপুরের তারাগঞ্জ উপজেলায় দুই বাসের সংঘর্ষে এক চালকসহ ৯ জন মারা গেছেন।  এসময় আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন।  আহতদের  আহাজারিতে রমেক হাসপাতালের পরিবেশ ভারি হয়ে উঠেছে।  আহতদের স্বজনরা তাদের রোগীর চিকিৎসার জন্য ছুটাছুটি করছে।  দুটি বাসের ছিল বেপরোয়া গতি এই দুর্ঘটনার জন্য দায়ি।  দুই ড্রাইভারই রং সাইটে গাড়ি চালাচ্ছিল। এমনটা অভিযোগ করলেন আহত কয়েকজন রোগী।  

এদিকে নিহতের ঘটনায় তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। আগামী পাঁচ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত  প্রতিবেদন জমা দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে জেলা প্রশাসন। দুই বাসের সংঘর্ষের ঘটনা তদন্তে তারাগঞ্জ উপজেলার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাসেল মিয়াকে প্রধান করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করা হয়েছে। এছাড়া দুর্ঘটনা নিহত প্রত্যেকের পরিবারকে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ হাজার টাকা দেয় হবে । সোমবার দুপুরে জেলা প্রশাসক আসিফ আহসান  আহতদের দেখতে হাসপাতালে যান।  আহতদের খোঁজ খবর নেন।  এসময় তিনি আহতদের চিকিসার এবং নিহতদের পরিবারকে আর্থিক সহাতার কথা বলেন। 

নিহতরা হলেন, তারাগঞ্জ উপজেলার কুর্শা ইউনিয়নের পলাশশবাড়ি গ্রামের  জোয়ানা বাসের হেলপার বিনোদ সেনের পুত্র ধনঞ্জয়, একই উপজেলার সয়ার ইউনয়িনের কাজিপাড়া গ্রামের কছিম উদ্দিনের ছেলে আনিছুর রহমান, একই উপজেলার হাড়িয়ারকুঠি ইউনিয়নের ডাঙ্গীরহাট গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে আনোয়ার হোসেন ও নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার কুন্দল পূর্বপাড়া গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে মহসিন হোমেন সাগর , নীলফামারীর জলঢাকা এলাকার নয়ন, সৈয়দপুরের জুয়েল রায়হান,মুছা মিয়া, ইসলাম পরিবহনের চালক মাহাবুব । তার বাড়ি নীলপামারী জেলায়। 

এদিকে  সোমবার দুপুরে হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে আহত স্বজনদের আহাজারি।  হাসপাতালের তৃতীয় তলায়  ৩১ নং ওয়ার্ডে চিকিৎসাধিন  তারাগঞ্জের বাসিন্দা সকারু  চন্দ্রের পুত্র নিত্যানন্দ  রংপুর নগরীতে অটো রিকশা চালায়।  রিকশা চালানো শেষে রাত ১১ টার দিকে ইসলাম পরিবহনে বাড়িতে রুনা দেন।  তার প এবং মাথায় আঘাত লেগেছে। তিনি বলন দুটি গাড়িই বেপরোয়য়া গতিতে চলায় এই দুর্ঘটানা গটেছে। 

রবিবার রাত সাড়ে ১২ টার দিকে  তারাগঞ্জ উপজেলায় রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের শলেয়াশাহ বাজারের পশ্চিম দিকে খারুভাজ সেতুর কাছে যাত্রীবাহী জোয়ানা পরিবহন, ইসলাম পরিবহন নামের দুটি বাসের সংঘর্ষ হয়। ময়মনসিংহ থেকে ছেড়ে আসা ঠাকুরগাঁওগামী জোয়ানা পরিবহনের সঙ্গে ঠাকুরগাও  থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী ইসলাম পরিবহনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়।  

দুই বাসের সংঘর্ষে ৯ জন নিহত হয়েছেন। রংপুর-দিনাজপুর মহাসড়কের তারাগঞ্জের খারুভাজ সেতুর কাছে এই দুর্ঘটনা ঘটে। আহত হয়েছেন ৩৫ জন। বর্তমানে হাসপাতালে ভর্তি আছেন ১৫ জন। তাদের মধ্যে দুই জনের অবস্থা আশঙ্কজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

মন্তব্য করুন


Link copied