আর্কাইভ  রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১০ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
শিরোনাম: মরিয়ম মান্নানের মা জীবিত উদ্ধার; ছিলেন স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে       ডেপুটি স্পিকারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আ.লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ       এনআইডিতে লাগবে ১০ আঙুলের ছাপ       গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিক, সম্পাদক মোজাম্মেল       ঠাকুরগাঁওয়ে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ২      

রংপুরে ভূমিহীনদের বিক্ষোভ মিছিল-সমাবেশ এবং স্মারকলিপি পেশ

বৃহস্পতিবার, ২৬ মে ২০২২, দুপুর ০৩:১০

প্রেস বিজ্ঞপ্তি: ২৬ মে, ২০২২খ্রিঃ “ভূমিহীন সংগ্রাম পরিষদ, রংপুর সিটি কর্পোরেশনের উদ্যোগে সকাল ১১টায় সহস্রাধিক ভূমিহীন/ গৃহহীনদের বিভিন্ন দাবিযুক্ত ফেস্টুন, ব্যানার, লাল পতাকার বিক্ষোভ মিছিল নগরের শাপলা চত্বর থেকে শুরু করে কাচারি বাজারে সমাবেশে মিলিত হয়।

সমাবেশ চলাকালিন সময়ে রংপুর সিটি কর্পোরেশনের ভূমিহীনদের আবাসন নিশ্চিত করণ, খাস জমি উদ্ধার করে ভূমিহীনদের নামে বরাদ্দের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্মারকলিপি রংপুর জেলা প্রশাসকের অনুপস্থিতে এডিসি (রাজস্ব) মহোদয়কে প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য ১৮৭৫ জন ভূমিহীনের তালিকা (ঘওউ ফটোকপি, ছবি সহ) প্রদান করা হয়। 

ভূমিহীন সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি ও শ্রমিক ফ্রন্টের মহানগর সাধারণ সম্পাদক রাশেদুল ইসলাম রাশেদের সভাপতিত্বে এই দাবির সাথে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য দেন বাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য ও রংপুর জেলা আহবায়ক, ভূমিহীন সংগ্রাম পরিষদের প্রধান উপদেষ্টা কমরেড আব্দুল কুদ্দুস, সংগঠনের উপদেষ্টা ও বাসদ নেতা মমিনুল ইসলাম, সিপিবি কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়াম সদস্য ও রংপুর জেলা সাধারণ সম্পাদক শাহিন রহমান, বাংলাদেশ জাসদ রংপুর মহানগর সভাপতি গৌতম রায়, বাসদ নেতা মিজানুর রহমান, ভূমিহীন সংগ্রাম পরিষদের নেতা হিরা মনি আক্তার হাসি, পিয়ারি বেগম, মনোয়ার হোসেন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট মহানগর সভাপতি যুগেশ ত্রিপুরা প্রমুখ। নেতৃবৃন্দ বলেন
রংপুর সিটি কর্পোরেশনের স্থায়ী নাগরিক হাজার হাজার ভূমিহীন মানুষ দীর্ঘদিন থেকে আবাসনের দাবিতে নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে। গত ১৮ নভেম্বর ২০২১খ্রিঃ, ১৮ জানুয়ারি ২০২২খ্রিঃ সহস্রাধিক ভূমিহীন নগরে মিছিল-সমাবেশ করে রংপুর জেলা প্রশাসকের মাধ্যমে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান করলেও কার্যকর কোন পদক্ষেপ পরিলক্ষিত হয়নি। এই সমস্ত ভূমিহীনরা মাটি ভাড়া নিয়ে, কোথাও ঝুপড়ি ঘরে অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে পরিবার পরিজন থাকতে বাধ্য হচ্ছে। একদিকে অসংখ্য ভূমিহীনের নিয়মিত বা স্থায়ী কোন কাজ নেই, অপরদিকে দ্রব্য মূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি এদের পরিবার পরিজন নিয়ে অনাহারে-অর্ধাহারে জীবন যাপন করছে। উপরন্তু থাকার স্থায়ী ঠিকানা না থাকায় আরো বেশি বিপদে পড়ছে। প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণা "মুজিব বর্ষে গৃহহীন কেউ থাকবে না,"এ ছাড়া ভূমিহীনদের খুঁজে বের করে প্রয়োজনে জমি কিনে আবাসন নিশ্চিতের নির্দেশনা দিয়েছেন। সমাবেশে নেতৃবৃন্দ রংপুর সিটি কর্পোরেশনে অবিলম্বে আবাসন সংকট নিরসনে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন, খাস জমি উদ্ধার করে প্রকৃত ভূমিহীনদের গৃহনির্মাণের ব্যবস্থা করা, অনেক ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান সরকারি জমি দখল কিংবা নামমাত্র মূল্যে লীজের নামে দখলে রেখেছে সেই জমি উদ্ধার বা প্রয়োজনে লীজ বাতিল করে আবাসন সংকট নিরসনে দাবি জানান।

মন্তব্য করুন


Link copied