আর্কাইভ  শনিবার ● ১০ ডিসেম্বর ২০২২ ● ২৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আর্কাইভ   শনিবার ● ১০ ডিসেম্বর ২০২২
 width=

 

রংপুরে বহিষ্কার হলেন আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিলন

রংপুরে বহিষ্কার হলেন আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিলন

রংপুর সিটি নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

রংপুর সিটি নির্বাচনের প্রতীক বরাদ্দ

রংপুর সিটি নির্বাচনে আ'লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার ইশতেহার ঘোষণা

রংপুর সিটি নির্বাচনে আ'লীগের মেয়র প্রার্থী ডালিয়ার ইশতেহার ঘোষণা

রংপুর সিটি নির্বাচন : ৭ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার

রংপুর সিটি নির্বাচন : ৭ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার

 width=
শিরোনাম: রংপুরে ট্রাকের চাপায় এইচএসসি পরীক্ষার্থী নিহত       বিশ্বকাপ শেষ ব্রাজিলের, স্বপ্নভঙ্গ টাইব্রেকারে       রংপুরে বহিষ্কার হলেন আ.লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী মিলন       বেগম রোকেয়া দিবসে নীলফামারীতে ৩৪জন শ্রেষ্ঠ জয়িতা পুরস্কার পেলেন       নীলফামারীতে আন্তর্জাতিক দুর্নীতি বিরোধী দিবস পালিত      
 width=

রংপুরে সেই হরিজন কিশোরকে মিষ্টি খাওয়ালো হোটেল কর্তৃপক্ষ 

মঙ্গলবার, ৪ অক্টোবর ২০২২, দুপুর ০৪:৫৮

মমিনুল ইসলাম রিপন: রংপুরে হোটেল থেকে ধাক্কা মেরে বের করে দেয়া হরিজন কিশোর জীবন বাসফোরকে (১৬) মিষ্টি খাইয়ে দুঃখ প্রকাশ করেছে মৌবন হোটেল এন্ড রেস্টুরেন্ট কর্তৃপক্ষ।

মঙ্গলবার (৪ অক্টোবর) বেলা আড়াইটায় মৌবন হোটেলের ম্যানেজার আরিফুজ্জামান হোটেলে জীবন বাসফোরকে মিস্টি খাইয়ে হরিজনদের সাথে হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরোধের মিমাংসা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন, রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের সহকারী পুলিশ কমিশনার (কোতয়ালী জোন) আরিফুজ্জামান, কোতয়ালী থানার ওসি মাহফুজার রহমান, হরিজন অধিকার আদায় সংগঠনের নেতা রাজা বাসফোর, রাজু বাসফোর, সাজু বাসফোর, সুরেশ বাসফোরসহ অন্যরা।

এর আগে পুলিশ বিরোধ মিমাংসার জন্য কোতয়ালী থানায় হরিজন সম্প্রদায়ের নেতা ও মৌবন হোটেল কর্তৃপক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসেন। সভায় দুঃখ প্রকাশ ভবিষ্যতে এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না বলে হোটেল কর্তৃপক্ষ আশ্বস্ত করেন। 

হরিজন নেতা সুরেশ বাসফোর বলেন, (মঙ্গলবার) মিমাংসার পর মৌবন হোটেলে গিয়ে আমরা এক সাথে মিষ্টি খেয়েছি। আগামীতে এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না বলে হোটেল কর্তৃপক্ষ আশ্বস্ত করেছে। আমাদের পাশে যারা দাঁড়িয়েছিলেন আমি সকলকেই ধন্যবাদ জানাই। বাংলাদেশ এমন একটি দেশ যেখানে কোন মানুষের প্রতি অন্যায় হলে সকলে সেই অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ায়। এই ঐক্যবদ্ধতার ফল স্বরুপ হল আজ আমাদের অধিকার আমাদেরকে ফিরিয়ে দেয়া। 

হোটেল ম্যানেজার আরিফুজ্জামান বলেন, গত শনিবার যে ঘটনাটি ঘটেছে সেখানে মালিক পক্ষের কেউ জড়িত ছিল না। কোন কাস্টমার হয়তো প্যাডের পাতায় ‘এই হোটেলে খাওয়া নিষেধ সুইপারের’ লিখে দিয়েছিল।   প্রশাসনের মাধ্যমে হরিজনদের সাথে হোটেল কর্তৃপক্ষের যে বিরোধ ছিল তা মিটে গেছে। আমি নিজেই জীবন বাসফোরকে মিষ্টি খাইয়ে দিয়েছি।

মেট্রোপলিটন কোতয়ালী থানার ওসি মাহফুজার রহমান বলেন, হোটেল কর্তৃপক্ষ ও হরিজন সম্প্রদায়ের নেতাদের নিয়ে আলোচনার ভিত্তিতে বিরোধটি মিমাংসা করা হয়েছে। 

উল্লেখ্য, শনিবার (১ অক্টোবর) রংপুর নগরীর কাচারী বাজারস্থ মৌবন হোটেল ও রেস্টুরেন্ট থেকে হরিজন সম্প্রদায়ের স্কুল ছাত্র জীবন বাসফোরকে (১৬) ধাক্কা দিয়ে বের করে দেয়ার অভিযোগ উঠে হোটেলের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের বিরুদ্ধে। সেই সাথে প্রতিষ্ঠানের প্যাডে ‘এই হোটেলে খাওয়া নিষেধ সুইপারের’ লিখে ওই হোটেলে হরিজনদের খাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা দেয়া হয়। এ ঘটনায় ফুসে উঠে হরিজন সম্প্রদায় ও সচেতনরা। এ ঘটনায় ন্যায় বিচার চেয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছে হরিজন সম্প্রদায়ের নেতারা। 

মন্তব্য করুন


Link copied