আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২ ● ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়: দেশের অধিকাংশ জেলায় বিদ্যুৎ নেই       মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতুর রেলিংয়ে ধাক্কা, নিহত ৪       এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর কঠোর হুঁশিয়ারি       দিনাজপুরে ইউএনও হত্যা চেষ্টা  স্পর্শকাতর মামলার রায় পিছিয়ে গেলো       নানার বাড়ি বেড়াতে এসে প্রাণ গেল অপূর্বের      

রংপুর বিভাগে সাত মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ শনাক্ত

বৃহস্পতিবার, ২০ জানুয়ারী ২০২২, সকাল ০৯:৪৫

স্টাফ রিপোর্টার: রংপুর বিভাগের আট জেলায় করোনায় সংক্রমিতের হার আশঙ্কাজনকভাবে বৃদ্ধি পাচ্ছে। গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা শনাক্ত হয়েছে ৯৯ জনের। যা গেল সাত মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। ২৪ ঘণ্টায় এই বিভাগে শনাক্তের হার ২১ দশমিক ২৯ শতাংশ।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতরের পরিচালক ডা. আবু মো. জাকেরুল ইসলাম এ তথ্য জানিয়েছেন।

রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদফতর সূত্রে জানা গেছে, গত ২৪ ঘণ্টায় শনাক্তদের মধ্যে দিনাজপুরে রেকর্ড ৪৮ জন, রংপুরে ১৮ জন, পঞ্চগড়ে দুই জন, নীলফামারীতে ৯ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ১০ জন এবং লালমনিরহাটে একজন, কুড়িগ্রামে দুই জন এবং গাইবান্ধায় ৯ জন। মোট করোনার নমুনা পরীক্ষা হয়েছে ৪৬৫ জনের।

রংপুর বিভাগে এ পার্যন্ত ৩ লাখ ১০ হাজার ৮৯৬ জনের করোনা পরীক্ষায় এ নিয়ে বিভাগে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়ালো ৫৬ হাজার ১৫৪ জন। এ পর্যন্ত মারা গেছে ১ হাজার ২৫২ জন। ভাইরাসটিতে সংক্রমিত হয়ে সবচেয়ে বেশি মারা গেছে দিনাজপুরে ৩৩২ জন। এরপরেই রয়েছে রংপুরে, ২৯৩ জন। এ ছাড়া ঠাকুরগাঁওয়ে ২৫৬ জন, পঞ্চগড়ে ৮১, নীলফামারীতে ৮৯ জন, লালমনিরহাটে ৬৯ কুড়িগ্রামে ৬৯জন এবং গাইবান্ধায় ৬৩ জন।

একইভাবে সবচেয়ে বেশি সংক্রমিত হয়েছে দিনাজপুরে, ১৪ হাজার ৯৬৭ জন। আর রংপুরে ১২ হাজার ৬২৭ জন, পঞ্চগড়ে ৩ হাজার ৮৩৮ জন, নীলফামারীতে ৪ হাজার ৪৬৯ জন, লালমনিরহাটে ২ হাজার ৭৭৭ জন, কুড়িগ্রামে ৪ হাজার ৬৫৩ জন, ঠাকুরগাঁওয়ে ৭ হাজার ৭১৩ জন, গাইবান্ধায় ৪ হাজার ৮৯০ জন। আর বিভাগটিতে সুস্থ হয়েছেন ৫৪ হাজার ৩০৩ জন।

সার্বিক বিষয়ে জানতে রংপুর বিভাগীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক ডা. আবু মো. জাকেরুল ইসলাম জানান, দীর্ঘ ৭ মাস পর গত ২৪ ঘণ্টায় রংপুর বিভাগের ৮ জেলায় করোনায় আক্রান্ত্রের সংখ্যা ৯৯ জনে দাঁড়িয়েছে। তিনি জানান, করোনায় আক্রান্তদের মধ্যে সাত জনকে দিনাজপুর আব্দুর রহিম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনা আইসোলেশন ওয়ার্ডের সিসিইউতে ভর্তি করা হয়েছে। তিনি জানান, রংপুর বিভাগের তিনটি করোনা হাসপাতালে পর্যাপ্ত বেড খালি আছে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসায় কোনও সমস্যা হবে না।

তিনি জানান, মাস্ক পরিধান না করা ও স্বাস্থ্যবিধি না মানার কারণে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এ জন্য কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার আহ্বান জানান তিনি।

মন্তব্য করুন


Link copied