আর্কাইভ  শনিবার ● ২৬ নভেম্বর ২০২২ ● ১২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আর্কাইভ   শনিবার ● ২৬ নভেম্বর ২০২২
 width=

 

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে- ইসি রাশিদা 

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে- ইসি রাশিদা 

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন; পাল্টে গেল নির্বাচনের ছক

রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন; পাল্টে গেল নির্বাচনের ছক

রংপুর বাসী নৌকায় ভোট দিতে মুখিয়ে আছে; আ'লীগ মনোনীত প্রার্থী ডালিয়া

রংপুর বাসী নৌকায় ভোট দিতে মুখিয়ে আছে; আ'লীগ মনোনীত প্রার্থী ডালিয়া

রংপুর সিটি নির্বাচন;  মেয়র পদে ১৩ জনসহ ২৬০ প্রার্থীর মনোনয়ন সংগ্রহ

রংপুর সিটি নির্বাচন; মেয়র পদে ১৩ জনসহ ২৬০ প্রার্থীর মনোনয়ন সংগ্রহ

 width=
শিরোনাম: “আন্দোলনের নামে মানুষ পুড়িয়ে মারতে চাইলে একটাকেও ছাড়বো না”       রংপুরে বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে আল্টিমেটাম       দিনাজপুরে প্রায় ১০ বছর পর আ.লীগের সন্মেলনে কারা আসছেন নেতৃত্বে ?        মহিলা আ. লীগের নতুন সভাপতি চুমকি, সম্পাদক শবনম       রংপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন শতভাগ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ হবে- ইসি রাশিদা       
 width=

রংপুর ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার

রবিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২, বিকাল ০৭:০২

মমিনুল ইসলাম রিপন: জেলা পরিষদ নির্বাচনে রংপুরে নয়জন প্রার্থী তাদের মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করেছেন। এরমধ্যে সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ৩ জন এবং সাধারণ সদস্য পদে ৬ জন প্রার্থী মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। এছাড়া চেয়ারম্যান পদে কেউ মনোনয়ন প্রত্যাহার করেননি। ফলে দুইজন প্রার্থী লড়বেন চেয়ারম্যান পদে।
চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট ইলিয়াস আহমেদ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে রংপুর জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোছাদ্দেক হোসেন বাবলু।

রংপুরের সিনিয়র জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা ফরহাদ হোসেন এসব তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রংপুর জেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ১০৯৫ জন। এরমধ্যে সংরক্ষিত ৩টি ওয়ার্ডে ১৭ জন এবং সাধারণ ৮টি ওয়ার্ডে ৩৯ জন মনোনয়নপত্র জমা দিয়েছিলেন। যাচাই বাছাইয়ে সাধারণ সদস্য পদে চারজনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়। মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে তিনজন এবং সাধারণ সদস্য পদে ছয়জন মনোনয়ন প্রত্যাহার করেন। এখন চেয়ারম্যান পদে দুইজনসহ সংরক্ষিত নারী সদস্য পদে ১৪ এবং সাধারণ সদস্য পদে ২৯ জন লড়াই করবেন।

নির্বাচনের তফসিল অনুযায়ী সোমবার ২৬ সেপ্টেম্বর প্রতীক বরাদ্দ হবে। এরপর প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণা শেষে আগামী ১৭ অক্টোবর ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

প্রসঙ্গত, ২০০০ সালে তৎকালীন সরকার নতুন করে জেলা পরিষদ আইন প্রণয়ন করে। এরপর জোট সরকারের আমলে এনিয়ে কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। পরে ২০০৯ সালে আওয়ামী লীগ সরকার পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর ২০১১ সালে প্রশাসক নিয়োগ দিয়ে জেলা পরিষদ পরিচালনা করে। এরপর প্রথমবারের মতো স্থানীয় এই সরকারে নির্বাচন হয় ২০১৬ সালের ২৯ ডিসেম্বর। এবার দ্বিতীয়বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

মন্তব্য করুন


Link copied