আর্কাইভ  বুধবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২২ ● ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আর্কাইভ   বুধবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২২
 width=

 

রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল 

রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল 

রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া 

রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া 

রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা

রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন জামায়াত নেতা বেলাল

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন জামায়াত নেতা বেলাল

 width=
শিরোনাম: হাতীবান্ধায় ট্রেনের ধাক্কায় ইউএনও অফিসের নৈশ প্রহরী নিহত       রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল        রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া        বিভেদ ভুলে এক টেবিলে রওশন-কাদের       রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা      
 width=

লালমনিরহাটে কলেজ শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে ঝাড়ু নিয়ে রাস্তায় নারীরা

রবিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০২১, বিকাল ০৫:৪২

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: লালমনিরহাটের আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী বাজারে মাংসে চর্বি দেওয়ায় কসাই শহীদুল ইসলামকে (৩৩) কুপিয়েছেন হযরত আলী (৪৪) নামে এক কলেজশিক্ষক। এ ঘটনায় ওই কলেজ শিক্ষকের শাস্তির দাবিতে ঝাড়ু নিয়ে মহাসড়কের রাস্তায় নেমে মানববন্ধন করেছেন নারীরা। এসময় স্থানীয় ব্যবসায়ীরা অংশ গ্রহন করেন।

রোববার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে লালমনিরহাট-বুড়িমারী মহাসড়কে মাংস বিক্রেতা শহিদুলের পরিবার ও মাংস ব্যবসায়ী সমিতিরা মানববন্ধন করেন।

মানববন্ধনে কলেজ প্রভাষক হজরত আলীর শাস্তির দাবী জানিয়ে আহত শহিদুলের আত্মীয় স্বজনরা তাকে ঝাড়ু উঁচিয়ে প্রতিবাদ জানান। সেই সাথে তারা বলেন আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত হজরত আলীকে গ্রেফতার করা না হলে বড় রকমের আন্দোলন করা হবে।

জানা গেছে, আদিতমারী উপজেলার সাপ্টিবাড়ী বাজারে শনিবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে গরুর মাংস কিনতে যান সাপ্টিবাড়ী কলেজের কৃষি শিক্ষা বিভাগের প্রভাষক মো. হযরত আলী। এ সময় কসাই শহীদুল ইসলাম মাংসে এক টুকরো চর্বি দিয়ে দেন। এটা দেখে দুজনের কথা কাটাকাটি শুরু হয়।

ঘটনার এক পর্যায়ে ওই কলেজশিক্ষক ক্ষিপ্ত হয়ে কসাইয়ের ধারালো দা দিয়ে তার মাথা ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে এলোপাতাড়ি কোপাতে থাকেন। এ সময় আহত কসাইকে বাজারের লোকজন উদ্ধার করে লালমনিরহাট সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

মাংস বিক্রেতা শহিদুলের বড়ভাই সিরাজুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, আমার ছোট ভাই দীঘদিন থেকেই সাপ্টিবাজারে মাংস বিক্রি করে আসছে। কোনদিন কারও সাথে কোন কটুকথা হয়নি। হিংসাত্মক মনোভাবের কারনেই ওই কলেজ প্রভাষক আমার ভাইকে কুপিয়েছে। তার মাথায় ১৬টি সেলাই পড়েছে। বর্তমানে আমার ভাইয়ের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আমি দ্রুত ওই কলেজ শিক্ষকের বিচার দাবি করছি।

সাপ্টিবাড়ি ডিগ্রী কলেজের প্রভাষক হযরত আলীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, মাংসে একটু চর্বি বেশি দেয়ায় তার সাথে শুধু কথা কাটাকাটি হয়েছে। তাকে দা দিয়ে কোপানোর বিষয়টি মিথ্যা ও বানোয়াট। আমার সম্মান ক্ষুণ্ণ করতেই আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা রটনা রটাচ্ছে।

আদিতমারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মোক্তারুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে থানায় একটি অভিোগ পেয়েছি। তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

মন্তব্য করুন


Link copied