আর্কাইভ  সোমবার ● ২৯ নভেম্বর ২০২১ ● ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   সোমবার ● ২৯ নভেম্বর ২০২১

শিক্ষার্থীর জন্য প্রচারে মাইক ব্যবহার না করার সিদ্ধান্ত আলী হোসেনের 

শনিবার, ২০ নভেম্বর ২০২১, দুপুর ০২:৫৪

লালমনিরহাট প্রতিনিধি: এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষার্থীদের কথা চিন্তা করে লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনের প্রচারে মাইক ব্যবহার না করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন এক সাধারণ সদস্য প্রার্থী। 

প্রার্থীর নাম আলী হোসেন। তিনি তুষভান্ডার ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে টিউবওয়েল মার্কা নির্বাচন করছেন। 

শনিবার (২০ নভেম্বর) সকালে উপজেলার তুষভান্ডার ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে টিউবওয়েল মার্কার প্রার্থী আলী হোসেন তার ফেসবুক আইডিতে পোস্ট করে ঘোষনা করেন।

জানাগেছে, আসছে কালীগঞ্জ উপজেলার ৮ ইউনিয়নের নির্বাচন। এই নির্বাচনে ভোট আগামী ২৮ নভেম্বর। নির্বাচন উপলক্ষে এসব ইউনিয়নে রাত-দিন প্রচার চালাচ্ছেন কয়েকশ প্রার্থী। প্রার্থীদের মাইকে প্রচার-প্রচারণার কারণে ভোটার থেকে শুরু করে শিক্ষাথীরা বিরক্ত হচ্ছেন। অনেকেই ফেসবুকে পোস্ট করে মাইকের অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহার এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা চলমান থাকায় পরীক্ষার্থীদের অসুবিধার কথাও তিনি তুলে ধরেছেন। তাদের কথা ভেবে তুষভান্ডার ইউনিয়নের ৬নং ওয়ার্ডে টিউবওয়েল মার্কার প্রার্থী আলী হোসেন নির্বাচনি প্রচারে মাইক ব্যবহার না করার ঘোষণা দেন।

স্থানীয়রা বলছেন, ভোটার ও সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে প্রার্থীরা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। ফলে তাদের অর্থ সাশ্রয়ের পাশাপাশি মানুষ শব্দদূষণ থেকে মুক্তি পেয়েছেন। তবে ঘরে ঘরে কর্মীদের প্রচার-প্রচারণা জমে উঠেছে। এটি একটি ভালো উদ্যোগ। নির্বাচনে মাইকবিহীন করা উচিৎ বলেও তারা মন্তব্য করেন।

ইউপি সদস্য প্রার্থী আলী হোসেন বলেন, নির্বাচনি প্রচারে মাইকের অনিয়ন্ত্রিত ব্যবহার জনজীবনে বিরক্তি হয়ে গেছে সাধারণ মানুষ ও ভোটারা। এ ছাড়া বর্তমানে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা চলমান থাকায় পরীক্ষার্থীদের অসুবিধাও হচ্ছে। তাই তাদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে এবং জনস্বার্থ বিবেচনায় চলমান নির্বাচনি প্রচারে আমি মাইক ব্যবহারসহ শব্দদূষণ হয় এমন ধরনের প্রচার থেকে বিরত থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।যেহেতু সবাই ভোটে মাইকে প্রচার করছে। তবে বিকেল ৫টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পযর্ন্ত মাইক সীমত আকারে প্রচার করব। 

ওই এলাকার শিক্ষক স্বাধন ঘোষ বলেন, বর্তমানে এমন প্রার্থীকে খুঁজে পাওয়া বড় মুসকিল। তাই এই মহান ত্যাগ সত্যিই মহৎ হৃদয়ের পরিচয় বহন করে। জনগণের সুখ-দুঃখকে নিজের করে দেখে একজন প্রকৃত জনবান্ধব নেতা হয়ে উঠবেন, এই কামনা করি।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আব্দুল মান্নান বলেন, মাইক প্রচারে বন্ধ রাখা উদ্যোগ নেয়া প্রশংসার কাজ। অন্যরা এ থেকে অনেক কিছু শিখবেন বলে আমরা প্রত্যাশা করি। এমন সিদ্ধান্ত সবাই নিলে মানুষ উপকার পেত বলে তিনি মন্তব্য করেন।

মন্তব্য করুন


Link copied