আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৯ আগস্ট ২০২২ ● ২৫ শ্রাবণ ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৯ আগস্ট ২০২২
PMBA
 
PMBA

রংপুরে ত্রিপল মার্ডারের আসামী গ্রেফতার

মঙ্গলবার, ১৪ ডিসেম্বর ২০২১, দুপুর ০৪:১০

মমিনুল ইসলাম রিপন: নির্বাচনে বিজয় মেনে নিতে পারেনি প্রতিপক্ষ। তাই নির্বাচিত ওয়ার্ড সদস্যসহ একে একে ৩ খুন করে প্রতিপক্ষ। রংপুরের সিআইডি পুলিশ এই ত্রিপল মার্ডারের আসামী শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতার করেছে। 

মঙ্গলবার দুপুরে রংপুর নগরীর কেরানী পাড়ায় সিআইডি কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে  সিআইডি’র পুলিশ সুপার আতাউর রহমান বলেন, বিগত নির্বাচনে রংপুরের গঙ্গাচড়া উপজেলার লোহালী ইউনিয়নের বাগডোহরা গ্রামের ৮ নম্বর ওয়ার্ডের নির্বাচনে ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম বিপুল ভোটে ইউপি সদস্য নির্বাচিত হন। বিষয়টি তার  প্রতিদ্বন্দ্বি শফিকুল ইসলাম গং  মেনে নিতে পারেনি। তখন থেকেই তাকে হত্যা করার পরিকল্পনা করা হয়। নির্বাচনের  দীর্ঘদিন পরে  চলতি বছরের গত ৬ এপ্রিল দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে ইউপি সদস্য আজিজুল ইসলাম স্থানীয় আনন্দ বাজার থেকে বাড়ি ফেরার পথে আসামী শফিফুল ইসলামের নেতৃত্বে আজিজুল ইসলামকে আক্রমন করা হয়। আজিজুল ইসলাম দৌড়ে পার্শ্ববর্তী মমিন আলীর বাড়িতে আশ্রয় নিলে খুনিরা ওই বাড়িতে প্রবেশ করে তাকে টেনে হেচড়ে বাইরে এনে কুপিয়ে হত্যা করে। এর পর পরেই আজিজুল ইসলামের সমর্থক রেয়াজুুল ইসলামকে তার বাড়িতে ঢুকে টেনে হেচড়ে বাইরে এনে জবাই করে হত্যা করে। হত্যাকান্ড দুটি দেখে ফেলায় খুুনিরা নিহত আজিজুল ইসলামের ভাতিজি ১১ বছরের শিশু কন্যা মোনালিসাকে ঘটনার ৪  মাস পর যাতে সাক্ষ্য দিতে না পারে সে জন্য শিশুটিকেও হত্যা করে।

সিআ্ইডি জানায়, আসামী শফিকুল ইসলামকে রংপুর নগরী থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ওই ঘটনায় দুটি মামলা হয়েছে। মামলায় বেশ কজন আসামী হাইকোর্ট থেকে জামিন নিয়েছে।  তিনি আরও বলেন উর্ধতন কতৃপক্ষের নির্দেশে রংংপুর সিআইডিকে মামলাগুলোর তদন্তের দায়িত্ব দেয়া হয। তদন্ত করতে গিয়ে ত্রিপল মার্র্ডার মামলার আসামী হত্যাকান্ডে সরাসরি অংশ নেয়া শফিকুুল ইসলামকে গ্রেফতার কররা হয়। তার দেয়া তথ্য মতে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত বল্লম ১৩টি,দুটি ছোড়া ও একটি হাসুয়া উদ্ধার করা  হয়। 

মন্তব্য করুন


Link copied