আর্কাইভ  সোমবার ● ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১১ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
ব্রেকিং নিউজ
শিরোনাম: কুড়িগ্রামে পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনায় ৬ শিক্ষক বরখাস্ত       রংপুর জেলা পরিষদ নির্বাচনে আ'লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী হওয়ায় বাবলু বহিষ্কার        রংপুর ৯ প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহার       সংবিধান অনুযায়ই যথা সময়ে নির্বাচন হবে- রংপুরে সমাজকল্যান মন্ত্রী       পঞ্চগড়ে নৌকাডুবিতে ২৪ জনের মৃত্যু      

ডোমার পৌর মেয়রের বিরুদ্ধে ৫৪ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

মঙ্গলবার, ২৩ আগস্ট ২০২২, রাত ১০:৩৩

ডেস্ক: ৫৪ কোটি টাকারও বেশি আত্মসাতের অভিযোগে নীলফামারী জেলার ডোমার পৌর মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানুর বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন আইনে মামলা দায়ের করেছে দুদক রংপুরের সমন্বিত কার্যালয়। মামলায় ডোমার অগ্রণী ব্যাংক শাখার সাবেক ম্যানেজার রথিন্দ্র নাথ সরকারসহ আরও দু’জনকে আসামি করা হয়েছে। মঙ্গলবার (২৩ আগস্ট) মামলা দায়ের করা হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন রংপুরের দুদক কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরীফ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, মেয়র মনছুরুল ইসলাম দানু শাওন অটো ব্রিকস লিমিটেডের মালিক। তিনি অগ্রণী ব্যাংক ডেমার শাখা থেকে ২০১৪ সালে ইটভাটার জন্য ১৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ঋণ নেন। ওই সময় ব্যাংকের শাখা ব্যবস্থাপক রথিন্দ্র নাথ সরকার ও সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা শফিকুল ইসলামের যোগসাজসে তিনি নিয়ম ভেঙে একসঙ্গে ১৫ কোটি ৭৫ লাখ টাকা উত্তোলন করেন। এছাড়া ২০২২ সালের ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত মেয়র সুদে-আসলে ২৩ কোটি ৩৪ লাখ টাকার ক্ষতি সাধন করেছেন। বিষয়টিকে সরকারি অর্থ আত্মসাতের শামিল বলে মামলায় উল্লেখ করেছে দুদক।

এছাড়া মেয়র দানু ব্যাংক কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগসাজসে এলসির মাধ্যমে ২০১৬ সালে অগ্রনী ব্যাংক ডোমার শাখা ও বন্দর কর্তৃপক্ষের মোট ৩১ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ক্ষতিসাধন করেছেন বলে অভিযোগ তুলেছে দুদক। 

দুদকের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরীফ বলেন, ডোমার পৌর মেয়র দানু ও অগ্রণী ব্যাংক ডোমার শাখার দুই কর্মকর্তা নিয়ম ভেঙে বিপুল অঙ্কের টাকা নয়-ছয় করেছেন। এছাড়া ব্রিক ফিল্ডের জন্য যন্ত্রপাতি এলসির মাধ্যমে আমদানি করেও বন্দর থেকে মালামাল নেননি। এতে বন্দর কর্তৃপক্ষের পাওনা দাঁড়িয়েছে ৩১ কোটি ১০ লাখ টাকা। মোট ৫৪ কোটি আত্মসাতের অভিযোগে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

মামলার তদারককারী কর্মকর্তা দুদকের রংপুর কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমান বলেন, দীর্ঘ তদন্ত শেষে অভিযোগ প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। 

মন্তব্য করুন


Link copied