আর্কাইভ  বুধবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২২ ● ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আর্কাইভ   বুধবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২২
 width=

 

রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল 

রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল 

রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া 

রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া 

রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা

রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন জামায়াত নেতা বেলাল

রংপুর সিটি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন জামায়াত নেতা বেলাল

 width=
শিরোনাম: হাতীবান্ধায় ট্রেনের ধাক্কায় ইউএনও অফিসের নৈশ প্রহরী নিহত       রংপুর সিটি নির্বাচন: ১০ মেয়র প্রার্থীর মনোনয়ন দাখিল        রংপুরের মানুষ নৌকা মার্কায় ভোট দিতে উদগ্রীব হয়ে আছে - ডালিয়া        বিভেদ ভুলে এক টেবিলে রওশন-কাদের       রংপুর সিটি নির্বাচন: মনোনয়ন জমা দিল জাপার মোস্তফা      
 width=

ইউক্রেনে অভিযানের প্রথম পর্যায় সমাপ্ত: রাশিয়া

শনিবার, ২৬ মার্চ ২০২২, বিকাল ০৭:০১

ডেস্ক: ইউক্রেনে ‘বিশেষ সামরিক অভিযানের’ প্রথম পর্যায় শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন রাশিয়ার সেনাবাহিনী প্রধান ভ্যালেরি গেরাসিমভ। সামরিক অভিযানের শুরু থেকেই ইউক্রেনের সেনাদের তীব্র প্রতিরোধের মুখে পড়েছে রুশ সশস্ত্র বাহিনী।

অভিযান শুরুর এক মাস পর অভিযানের প্রথম পর্যায় শেষ করার এমন বার্তার প্রেক্ষিতে পশ্চিমারা বলছে, রাশিয়ার সামরিক কর্মকর্তাদের এ বক্তব্য থেকে ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছে, প্রথমে তারা অভিযানের যে পরিকল্পনা করেছিলেন তা ব্যর্থ হয়েছে। রাশিয়ার সেনাবাহিনী প্রধান ভ্যালেরি গেরাসিমভ বলেছেন, তাদের যুদ্ধের এখন প্রধান লক্ষ্য হবে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চল।

এ অঞ্চলের দুটি স্থানে রুশপন্থী বিদ্রোহীরা স্বাধীনতার দাবিতে বেশ কয়েক বছর ধরে লড়াই করে আসছে। ইউক্রেনে অভিযান শুরুর দিনের ভাষণে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন তাদের স্বাধীনতার দাবি অনুমোদন করেন।

রুশ সংবাদমাধ্যমের বরাত দিয়ে বিবিসির খবরে বলা হয়, ইউক্রেন পরিস্থিতি নিয়ে রুশ সশস্ত্র সামরিক বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা শুক্রবার বৈঠক করেন। ওই বৈঠকে রুশ সেনাপ্রধান বলেন, রাশিয়ার অভিযানের প্রথম পর্ব সমাপ্ত। এখন যুদ্ধের প্রধান লক্ষ্য হবে ইউক্রেনের পূর্বাঞ্চলীয় দনবাসকে ‘পুরোপুরি মুক্ত’ করা।

বৈঠকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু বলেন, রাশিয়া তাদের বিশেষ সামরিক অভিযানের জন্য দুটি বিকল্প নিয়ে ভাবছে। একটি পুরো ইউক্রেনকে দখল করা। অন্যটি হচ্ছে শুধু দনবাসকে নিয়ন্ত্রণে নেওয়া।

রাশিয়ার সামরিক বাহিনীর জেনারেল স্টাফের অপারেশন বিভাগের প্রধান সের্গেই রুদসকো বলেছেন, এখন লুহানস্কের ৯৩ শতাংশ এবং দোনেৎস্কের ৫৪ শতাংশ রাশিয়ার বাহিনীর নিয়ন্ত্রণে।

মন্তব্য করুন


Link copied