আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৫ জুলাই ২০২২ ● ২১ আষাঢ় ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৫ জুলাই ২০২২
PMBA
PMBA

ট্রেনের টয়লেট থেকে মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ উদ্ধার

বুধবার, ১৮ মে ২০২২, দুপুর ১০:২১

পঞ্চগড়: পঞ্চগড়ে আব্দুল আজিজ শেখ (৭৪) নামে বীর মুক্তিযোদ্ধা ও অবসরপ্রাপ্ত বিজিবি সদস্যের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

মঙ্গলবার (১৭ মে) দুপুরে বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশনে দ্রুতযান এক্সপ্রেসের 'ঞ' বগির টয়লেট থেকে ওই মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ উদ্ধার করা হয়। মৃত আব্দুল আজিজের বাড়ি ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপা থানার লক্ষণদিয়া গ্রামে। সে ওই গ্রামের মৃত আমীর উদ্দিন শেখের ছেলে। তবে মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে তার বাড়ি ছিল দিনাজপুর জেলার ফুলবাড়ি থানার রাজরামপুর গ্রামে। বর্তমানে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে মরদেহ।

পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশের ওসি আব্দুল লাতিফ মিয়া জানায়, সকাল ১০টা ৪৯ মিনিটের দিকে জিআরপি পুলিশের মাধ্যমে খবর পেয়ে বীর মুক্তিযোদ্ধা সিরাজুল ইসলাম রেলওয়ে স্টেশনে গিয়ে মুক্তিযোদ্ধার মরদেহ ট্রেনের একটি বগির টয়লেটের সামনে থেকে উদ্ধার করা হয়। এ সময় দুটি ব্যাগ, মোবাইল, সাড়ে আট হাজার টাকা, প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং একটি চেকবই উদ্ধার করা হয়। তবে কীভাবে ওই মুক্তিযোদ্ধার মৃত্যু হয়েছে এখনি বলা যাচ্ছে না। মৃতের পরিবারকে খরব দেওয়া হয়েছে।

মৃতের ছেলে টিপু জানায়, আমার বাবা একজন মুক্তিযোদ্ধা। ছোট ভাইয়ের অপারেশন দেখতে ঢাকায় এসেছিল বাবা। পরে গতকাল রাতে দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনে করে দিনাজপুরের ফুলবাড়িতে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাসা থেকে বের হয়। মূলত মুক্তিযোদ্ধার ভাতা সংক্রান্ত কাজের জন্যই ফুলবাড়িতে যাচ্ছিলেন। বেলা দশটার দিকে খবর পাই বাবা অজ্ঞান হয়ে ট্রেনে পড়ে আছে। এরপরই আমার বোন জামাইয়ের মাধ্যমে বিজিবিতে খবর দিয়েছিলাম। একপর্যায়ে শুনেছি বাবা মারা গেছেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা রেলওয়ে স্টেশন মাস্টার মাসুদ পারভেজ জানান, সকাল নয়টা দিকে দ্রুতযান ট্রেনটি ঢাকা থেকে ফিরে আসে। পরে টেনটি পরিষ্কার করার জন্য ওয়াস ফিডে নেওয়া হলে সেখানে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের মাধ্যমে জানা যায় ট্রেনের টয়লেটে মরদেহ পড়ে আছে। পরে পুলিশে খবর দেওয়া হয়।

রেল পুলিশের (জিআরপি) দিনাজপুর ওসি মো. এরশাদুল হক সাংবাদিকদের জানান, সকাল সাড়ে দশটার দিকে পঞ্চগড় স্টেশন মাস্টারের মাধ্যমে খবর পাই ট্রেনের ভিতরে অচেতন অবস্থায় এক বয়োজ্যেষ্ঠ ব্যক্তি টয়লেটে পড়ে আছে। তাৎক্ষণিক আমি পঞ্চগড় সদর থানা পুলিশে খবর দেই। এ বিষয়ে জিআরপি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হবে। তবে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, ওই মুক্তিযোদ্ধা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যেতে পারে।

মন্তব্য করুন


Link copied