আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ৮ জুন ২০২৩ ● ২৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
আর্কাইভ   বৃহস্পতিবার ● ৮ জুন ২০২৩
 width=
 width=
শিরোনাম: বিদ্যুৎখাতে দুর্নীতি ও লুটপাটের প্রতিবাদে রংপুরে বিএনপি’র অবস্থান কর্মসূচি       গাইবান্ধা ও কুড়িগ্রামবাসির স্বপ্নের তিস্তা সেতুর নির্মাণ কাজ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে        রংপুরে এসআই পদে মাঠ পরীক্ষা দিতে গিয়ে হিট স্ট্রোকে যুবকের মৃত্যু       এবার ১০ দিন আগেই বাজারে আসছে ‘হাঁড়িভাঙা আম’       ঘোড়াঘাটে মোজাম পার্ক থেকে ৬ পতিতা নারী সহ ৯ জন আটক      

তারাগনজে অবরুদ্ধ একটি পরিবার

শনিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২২, বিকাল ০৭:০৪

ডেস্ক: রংপুর জেলার তারাগনজ ইকরচালী ছুট মেনা নগর দোলা পাড়া গ্রামে চলাচলের রাস্তা বন্ধ করায় ১টি পরিবার অবরুদ্ধ হয়ে পড়েছে। স্থানীয় কুচক্রী মহলের বিরুদ্ধে রাস্তাটি বন্ধের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

 রাস্তাটি বন্ধ করায় পরিবার টি চলাচলে নিদারুণ বিড়ম্বনায় পড়েছে।

সোমবার সরেজমিনে দেখা যায়, চলাচলের জন্য একটি মাটির রাস্তা। নতুন টিনশেড ঘর নির্মাণ করে রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পাশে একটি ঘড়ের দেওয়াল ছিল। এতে পুরো রাস্তাটি প্রায় বন্ধ হয়ে গেছে।

ভুক্তভোগী পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, পুরো রাস্তাটির দৈর্ঘ্য ছিল ২২ ফুট ও প্রস্থ ১৩ ফুট।শত বছর ধরে পরিবারের মানুষ রাস্তাটি দিয়ে চলাচল করত। হঠাৎ কুচক্রী মহল হাফিজুর রহমান, সবুজ মিয়া, বাচ্চু মিয়া রাস্তাটিতে একটি টিনশেডের ঘর নির্মাণ করেন। পরিবার বাধা দিতে গেলে তিনি রাস্তার মধ্যে বড় ধরনের ক্ষতি করার হুমকি দিয়েছেন। বিকল্প কোনো রাস্তা না থাকায় ১টি পরিবারের সদস্যরা চরম বেকায়দায় পড়েছেন।

অবরুদ্ধ পরিবারের সদস্য ছাকিনা বেগম বলেন, ‘পরিবারের সদস্যরা বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে চাকরি ও লেখা পড়া করেন। পৈত্রিক ভাবে সবাই এখানে নিজ বাসাবিড়ীতে বসবাস করছেন। সবাই শান্তিপ্রিয় মানুষ। যে ব্যক্তি রাস্তাটি বন্ধ করেছেন, তারা স্থানীয় প্রভাবশালী ব্যক্তি। শত বছর ধরে ওই রাস্তাটি দিয়ে পরিবারটি চলাচল করছে। হঠাৎ করে এ রাস্তাটি দখল করে বন্ধ করে নেন। রাস্তার মধ্যে ঘর নির্মাণ ও টিনের বেড়া দিয়েছেন। চলাচলে আমরা বেকায়দার মধ্যে রয়েছি। রাস্তাটি ছেড়ে দিতে উপজেলা নির্বাহী অফিসার তারাগনজ লিখিত অভিযোগ দিয়ে সহায়তা কামনা করেন। সোমবার পর্যন্ত কোনো প্রতিকার পায়নি।’

অবরুদ্ধ পরিবারের একজন ছাকিনা বেগম রহমান বলেন, রাস্তাটি বন্ধ করে দেওয়ায় চলাচলে নিদারুণ শুধু কষ্টই হয়নি তার মেয়ের বিয়ে দিতেও পাচ্ছেন না। গিয়েও কোনো প্রতিকার পাচ্ছি না। তাই অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্তি পেতে প্রশাসনের কাছে আহ্বান জানান।

তারাগনজ উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ রাসেল মিয়া বলেন বিষয়টি তিনি সমাধান পদক্ষেপ নিবেন।

মন্তব্য করুন


 

Link copied