আর্কাইভ  সোমবার ● ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ● ২৪ মাঘ ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

শিরোনাম: রংপুরে শিবিরের ৬ নেতা কর্মী গ্রেফতার       রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুদকের অভিযান       তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত ১২০০ ছাড়াল       ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৫৬০, তুরস্কে জরুরি অবস্থা ঘোষণা       ভূমিকম্পে তুরস্ক-সিরিয়ায় ৩১৩ জনের মৃত্যু      

নীলফামারীতে কৃষি প্রণোদনার ধান বীজ ও সার বিতরণ কর্মসুচির উদ্বোধন

বৃহস্পতিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২২, বিকাল ০৭:৪১

স্টাফরিপোর্টার,নীলফামারী॥ নীলফামারীতে ২০২২-২৩ অর্থ বছরের রবি মৌসুমে বোরো ধানের উচ্চ ফলনশীল ও উফশী জাতের ধান বীজ ব্যবহার করে উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামুল্যে ধান বীজ ও সার বিতরণ কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। 
বৃহস্পতিবার(৮ ডিসেম্বর) বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সদর উপজেলা পরিষদ মাঠে ওই কর্মসুচির উদ্বোধন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি স্থানীয় সংসদ সদস্য আসাদুজ্জামান নূর।
এসময় তিনি বলেন, বাজারে এখন বিভিন্ন প্রকারের কীটনাশক পাওয়া যাচ্ছে। সেই কীটনাশকে ব্যবহার করা কেমিক্যালগুলো বিষ থেকে কম নয়। ফসলের উর্বরতার জন্য কৃষকরা জমিতে কীটনাশক ব্যবহার করছে। কিন্তু সঠিক পদ্বতি না জানায় বেশি মাত্রায় কীটনাশক ব্যবহারে নষ্ট হচ্ছে ফসলী জমি। আপনারা কৃষি বিভাগ থেকে সঠিক নিয়ম জেনে সঠিক পরিমানে জমিতে কীটনাশক ব্যবহার করুন। 
তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কৃষি বান্ধব সরকার। তিনি বিনামূল্যে কৃষকদের সার ও বীজ প্রদান করছেন। যা সারা বছর চলমান থাকে। আওয়ামীলীগ সরকার ক্ষমতায় থাকায় এটি বাস্তবায়ন হয়েছে।  বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় কৃষকেরা না খেয়ে মরেছে। আজ উত্তরবঙ্গের মঙ্গা শব্দটি শুধু ইতিহাসের পাতায়। শুধুমাত্র আওয়ামীলীগ সরকারের মাধ্যমে এটি বাস্তবায়ন হয়েছে। 
তিনি আরো বলেন, সামনে কঠিন সময় আসছে, চলে এসেছেও। বাজারে এখন পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। আগামী বছরে তা কমবে কি না আমরা জানি না। তাই আপনারা জমি ফেলে না রেখে বেশি বেশি করে ফসল আবাদ করুন। চর অঞ্চলের এখন মিষ্টি কুমড়া চাষ হচ্ছে। সেখানে ধান,গম,ভুট্টা,সরিষাও আবাদ হচ্ছে। 
সদর উপজেলা প্রশাসন ও উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের যৌথ আয়োজনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জেসমিন নাহার। অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শাহিদ মাহমুদ, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আতিক আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দীপক চক্রবর্তি, নারী ভাইস চেয়ারম্যান শান্তনা চক্রবর্তি, জেলা পরিষদের সদস্য ইসরাত জাহান পল্লবী, জেলা কৃষকলীগের সভাপতি ইয়াহিয়া আবিদ, কুন্দপুকুর ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ। 
সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আতিক আহমেদ জানান, সদরের ১৫ ইউনিয়নের ১২ হাজার ২৮০ জন কৃষকের মাঝে পর্যায়ক্রমে ধান বীজ ও সার বিতরণ করা হবে। এই প্রনোদনার আওতায় ৮ হাজার ৪০০ কৃষককে এক বিঘা করে জমিতে চলতি রবি মৌসুমে বোরো ধান আবাদের জন্য উফসি জাতের ৫ কেজি করে ধান বীজ এবং ১০ কেজি করে ডিওপি ও ১০ কেজি করে এমওপি সার বিনামুল্যে দেওয়া হচ্ছে। যারা উচ্চ ফলনশীল ধান চাষ করবেন তাদের ২ কেজি করে উচ্চ ফলনশীল ধানের বীজ প্রদান করা হচ্ছে। উদ্বোধনী দিনে ৩৪০ জন কৃষকের মাঝে ওই বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া গম, ভুট্টা, সরিষা, সয়াবিন, শীতকালিন পিঁয়াজ, মুগ ডালের বীজ বিতরন করা হবে। 

মন্তব্য করুন


Link copied