আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১ ● ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১

পিএসজিতে ‘নিঃসঙ্গ’ হয়ে পড়েছেন মেসি!

মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, সকাল ০৯:২২

ডেস্ক: লিওনেল মেসি, বিশ্ব ফুটবলের অন্যতম সেরা তারকা। আর্জেন্টাইন এই সুপারস্টার শৈশব থেকে খেলেছেন স্প্যানিশ জায়ান্ট বার্সেলোনার হয়ে। কিন্তু সম্প্রতি সেই ক্লাব থেকে সম্প্রতি তিনি পাড়ি জমিয়েছেন ফরাসি ক্লাব প্যারিস সেইন্ট জার্মেইতে (পিএসজি)। যেখানে রয়েছেন তার সাবেক বার্সা সতীর্থ ব্রাজিলিয়ান তারকা নেইমার। কিন্তু তারপরও পিএসজিতে গিয়ে ‘নিঃসঙ্গ’ হয়ে পড়েছেন মেসি। এমনটিই মনে করছেন মেসির সাবেক সতীর্থ থিয়েরি অঁরি। তার মতে, মেসিকে নতুন ঠিকানায় খুব একটা স্বচ্ছন্দ্য মনে হচ্ছে না।

আক্রমণভাগের তিন তারকাকে নিয়েও রবিবার মার্সেইয়ের বিপক্ষে জিততে পারেনি পিএসজি। মেসি, নেইমার ও কিলিয়ান এমবাপের কেউই পারেননি ব্যবধান গড়ে দিতে। লিগ ওয়ানের ম্যাচটি গোলশূন্য ড্র করে মাউরিসিও পচেত্তিনোর দল।

২০০৭ থেকে ২০১০ পর্যন্ত বার্সেলোনায় একসঙ্গে খেলেন মেসি ও থিয়েরি অঁরি। প্রাইম ভিডিওর সঙ্গে আলাপচারিতায় পিএসজিতে সাবেক সতীর্থের অবস্থা নিয়ে ওই মন্তব্য করেন অঁরি। বার্সেলোনা ছেড়ে প্যারিসে এসে ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার একাকী বোধ করছেন বলে মনে হচ্ছে তার।
তিনি বলেন, “আমি তাকে নিঃসঙ্গ দেখছি। মাঠে মেসি যেন একা হয়ে পড়েছে এবং খুব বেশি বলের সংস্পর্শেও থাকছে না সে। আমি বলব না, এখানে সে দুঃখী কিন্তু তাকে নিঃসঙ্গ মনে হচ্ছে।”

সেন্টার থেকে সরিয়ে মেসিকে ডানে খেলানোর কৌশল নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন অঁরি। আর্সেনালের সাবেক ফরোয়ার্ড মনে করেন, আক্রমণভাগের মাঝামাঝি থাকলেই ছন্দে ফিরবেন মেসি।

অঁরি বলেন, “সেন্টার পজিশনেই তাকে আমি দেখতে চাইব। আমি মনে করি না, ডান দিকে খেলে সে পার্থক্য গড়ে দিতে পারবে। সে কিছুটা খারাপ সময়ের মধ্যে দিয়ে যাচ্ছে, সেন্টারে ফেরাটা তাকে ছন্দ এনে দেবে।”

তিনি বলেন, “একটা পথ বের করতে হবে, যাতে করে তারা (মেসি, নেইমার ও এমবাপে) একসঙ্গে খেলতে পারে। ট্যাকটিক্যাল পর্যায়ে ঠিকঠাক তথ্য-উপাত্ত আমার কাছে নেই, কিন্তু আমি মনে করি, মাঠে এর প্রভাব থাকে কমই।”

বরাবরই মিতভাষী মেসি। অঁরির কথাতেও উঠে এলো তা। সেই সঙ্গে এত তারকা নিয়েও পিএসজি কেন তেমন জ্বলে উঠতে পারছে না, এর কারণও নিজের মতো করে ব্যাখ্যা করলেন তিনি। তার মতে, পিএসজির স্কোয়াডে ‘চালকের’ সংখ্যা অনেক বেশি আর এটাই কারণ।

“মেসি খুব বেশি কথা বলে না। সে কাজটা করে বল পায়ে। এ মুহূর্তে দলটা কিলিয়ানের, তার হাত ধরেই উজ্জ্বলতা ছড়াচ্ছে পিএসজি। বল কিলিয়ানকেই বেশি খুঁজে নেয়।”

“যেকোনও দলেই যদি একজনের চেয়ে বেশি ‘চালক’ থাকে, তাহলে সেই দল ঐক্যবদ্ধ হয়ে খেলতে পারে না। এই দলে অনেক চালক। তারা একই গতিতে খেলতে পারছে না।”

মন্তব্য করুন


Link copied