আর্কাইভ  শনিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২১ ● ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   শনিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২১

সৈয়দপুরে যাত্রীবাহী বাসের ধাক্কায় নারী সহ ২ জন নিহত

বৃহস্পতিবার, ৪ নভেম্বর ২০২১, বিকাল ০৭:৩৯

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী॥ নীলফামারীর সৈয়দপুরে দিনাজপুর থেকে রংপুর গামী গেইটলক সার্ভিসের বাসের ধাক্কায়  রিক্সাভ্যান চালক ও অজ্ঞাতনামা এক নারী যাত্রী সহ দুইজন নিহত হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার(৪ নভেম্বর/২০২১) সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সৈয়দপুর শহরের উপকন্ঠে দিনাজপুর মহাসড়কের রাবেয়া মোড় এলাকায় এ দূর্ঘটনা ঘটে। এনিয়ে গত তিনদিনে সৈয়দপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ৭ জন নিহত ও ৬৫ জন আহত হয়। সৈয়দপুর ঘনঘন সড়ক দূর্ঘটনার ঘটনায় এলাকাবাসী আতংকিত হয়ে পড়েছে। 
সৈয়দপুর  ট্রাফিক বিভাগের প্রধান পরিদর্শক নাহিদ পারভেজ চৌধুরী জানান একটি যাত্রীবাহী বাস একটি রিক্সা ভ্যানকে সামনাসামনি চাপা দেয়। পরে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাসটি সড়কের ধারে গাছে ধাক্কা খায়। এতে সামনের দুটি চাকা ভেঙে বাসটি মুখ থুবরে পড়ে। এতে প্রথমে রিক্সাভ্যানের দুই আরোহী ও বাসের ৩০ জন যাত্রী আহত হয়। আহতদের মধ্যে রিক্সাভ্যান চালক জামান(২৮) ও এক নারী যাত্রীকে আশংকাজনক অবস্থায় সৈয়দপুর ১০০ শর্য্যা হাসপাতালে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজে নেয়ার পথে তারা সকাল ১১টায় দিকে মারা যায়। নিহতদের মধ্যে রিক্সাভ্যান যাত্রী এক নারীর পরিচয় জানা যায়নি। তবে বাসে থাকা আহত ৩০ যাত্রীকে সৈয়দপুর হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হয়। 
উল্লেখ যে, গত তিন দিনে সৈয়দপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় ৭ জন নিহত ও ৬৫ জন আহত হয়। এর মধ্যে  বুধবার(৩ নবেম্বর) সৈয়দপুর কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকায় ট্রাক চাপায় তিনজন পরিবহন শ্রমিক নিহত ও একজন আহত হন। নিহতরা হলেন নীলফামারী জেলা বাস মিনিবাস মালিক সমিতির চেইন মাস্টার জাহাঙ্গীর ভান্ডারী (৫৫), নীলফামারী জেলা পরিবহণ শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য রবিউল (৫০) ও আলম হোসেন (৪৫)।  এতে চাপ্পু নামে গুরুতর আহত অপর শ্রমিক রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। এর আগে ৩১ অক্টোবর রবিবার বিকেল তিনটার দিকে সৈয়দপুর মহাসড়কের মরিয়ম চক্ষু হাসপাতালের সামনে যাত্রীবাহী বাস পথচারীকে চাপা দিয়ে পালাতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে উল্টে ২ জন নিহত হন। এর মধ্যে একজন পথচারী মরিয়ম চক্ষু হাসপাতালের এ্যাম্বুলেন্স চালক তহিদুল ইসলাম(৩৫)। অন্যজন বাস যাত্রী মঞ্জর আলীী (৬৫)। এ ঘটনায় আহত হন আরও ৩০ জন।

মন্তব্য করুন


Link copied