আর্কাইভ  বৃহস্পতিবার ● ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ● ২০ মাঘ ১৪২৯
আর্কাইভ   বৃহস্পতিবার ● ২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
 width=
 width=
ব্রেকিং নিউজ
শিরোনাম: স্বামীর মোটরসাইকেল থেকে পড়ে স্ত্রী নিহত       ঠাকুরগাঁওয়ে উপ-নির্বাচনে এমপি হলেন লাঙ্গলের হাফিজ       ৯৫১ ভোটে হেরে গেলেন হিরো আলম       বেরোবিতে গত কয়েক বছরে গবেষণা বেড়েছে পাঁচ গুণ       হাতিবান্ধা উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যানের মাদকগ্রহনের ঘটনায় তদন্ত শুরু      
 width=

এক নারী সদস্য লাঞ্চিতে জেরে উত্তপ্ত ঝুনাগাছ চাপানী ইউনিয়ন পরিষদ

মঙ্গলবার, ২৭ ডিসেম্বর ২০২২, বিকাল ০৬:৪৮

বিশেষ প্রতিনিধি॥ নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার ঝুনাগাছ চাঁপানী ইউনিয়ন পরিষদের এক নারী সদস্য লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে এলাকা। সম্ভাব্য সংঘর্ষের আশংঙ্কায় সেখানে পুলিশ মোতায়ন করা হয়েছে। সোমবার(২৬ ডিসেম্বর) রাতে ওই নারী সদস্য বাদী হয়ে ৫জনের নাম উল্লেখ করে এ ঘটনায় ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক ও ইউপি সচিব সুবাস চন্দ্র রায়কেও দায়ি করে ডিমলা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। 
মঙ্গলবার(২৭ ডিসেম্বর) সরেজমিনে গেলে এই ঘটনা নিয়ে দুই ধরনের অভিযোগ ও এলাকাবাসীর বক্তব্য পাওয়া যায়। কেউ বলছে ঝুনাগাছ চাঁপানী ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান একরামুল হক চৌধুরীর বিরুদ্ধে দশ জন ইউপি সদস্য অনিয়ম ও দুর্নীতি বিষয়ে  উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রশাসকের কাছে লিখিত অভিযোগ দেয়। এ অভিযোগ দেওয়ার জেরে চেয়ারম্যানের নির্দেশে তার সন্ত্রাসী বাহিনী সংরতি (৪,৫,৬) ওয়ার্ডর নারী সদস্য লিলি আক্তারকে সোমবার(২৬ ডিসেম্বর) দুপুরে ইউনিয়ন পরিষদে লাঞ্চিত ও শ্লীলতাহানী ঘটায়। আরেক পক্ষ বলছে ঘটনার দিন সোমবার সরকারের দেয়া শুকনা খাবার প্যাকেট বিতরনে সময় নারী ইউপি সদস্য লিলি আক্তার তার স্বামী সহ তার পরিবারের ৫জনের নাম দিয়ে ওই প্যাকেট নিজেরাই তুলে নেয়। এতে অসহায় পরিবারগুলো তাকে গালমন্দ করে। এর বেশী কিছু হয়নি। আর এ নিয়ে মুখোমুখি অবস্থার সৃষ্টি হয়ে এলাকাটি উত্তপ্ত করে তোলা হয়েছে। বাধ্য হয়ে পুলিশ মোতায়েন আছে।
এ ব্যাপারে উক্ত লিলি আক্তার অভিযোগ করে সাংবাদিকদের জানান, ইউপি চেয়ারম্যান জাতীয়পার্টির একরামুল হক চৌধুরী ইউপি সদস্যদের তোয়াক্কা না করে তিনি ভিজিডি, ভিজিএফ, কাবিখা, কাবিটা, টিআর, প্রকল্পের তালিকা একাই করেন। টিসিবির পণ্য সঠিকভাবে বণ্টন হচ্ছে না। জন্মনিবন্ধনের জন্য সরকারি ফি ছাড়াও অতিরিক্ত ফি আদায় এবং ভুয়া ওয়ারিশ সনদ দিয়ে বিপুল অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছেন চেয়ারম্যান। লিলি আক্তার জানান তিনি সহ  এ সব অভিযোগ নিয়ে  ইউনিয়নের ১ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য হালিমুর রহমান, ২ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুর রশিদ, ৪ নম্বর ওয়ার্ডের অহিদুজ্জামান, ৬ নম্বর ওয়ার্ডের তহিদুল ইসলাম, ৭ নম্বর ওয়ার্ডের খাইরুল ইসলাম, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের আব্দুর রাজ্জাক, ৯ নম্বর ওয়ার্ডের নুর হোসেন, সংরতি মহিলা সদস্য আনোয়ারা বেগম ও রশিদা বেগম ১৮ ডিসেম্বর লিখিত অভিযোগ করি ইউএনও এবং  জেলা প্রশাসকের কাছে। ওই জেরে চেয়ারম্যানের সন্ত্রাসী ও মাস্তান বাহিনী তার (লিলি আক্তর) উপর এই হামলা চালিয়ে লাঞ্চিত করে। এ সময় আমাকে রক্ষা করতে আসা অপর সংরক্ষিত সদস্য আনোয়ারা বেগ এগিয়ে এলে তাকেও লাঞ্চিত ও মারপিট করা হয়। এ ঘটনায় তিনি ডিমলা থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে উল্লেখ করেন। 
তবে এসব অভিযোগ অস্বীকার করে ইউপি চেয়ারম্যান একরামুল হক চৌধুরী সাংবাদিকদের বলেন, আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে। সব বরাদ্দের সুষম বণ্টন হয়েছে। ঘটনার দিন সরকারি বরাদ্দের ১০০ প্যাকেট শুকনা খাবার  বিতরন করা হচ্ছিল। প্রতি প্যাকেটে ছিল ১০ কেজি করে চাল, এক কেজি করে ডাল, ভোজ্য তেল, চিনি ও লবন এবং মসলা ছিল ২০০ গ্রাম করে। যা প্রতিটি ইউপি সদস্যদের দেয়া নামের তালিকায় স্লিপ করে দেয়া হয়। বিতরনের এক পর্যায় দেখা যায় সংরতি (৪,৫,৬) ওয়ার্ডের সদস্য লিলি আক্তারের তালিতায় তার স্বামী আব্দুস কুদ্দুস সহ তারই পরিবারে ৫ সদস্যের নাম দেয়া হয়েছে। যা লিলি আক্তার সেই ত্রানের প্যাকেট নিজ জিম্মায় নিয়ে নেয়। এলাকার অসহায় পরিবার গুলো লিলি আক্তারের দেয়া নামের তালিকায় তাদের নাম না পেয়ে তারা তাকে গালমন্দ করে। এখন শুনছি ঘটনাটি তারা ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করছে। ইউপি চেয়ারম্যান বলেন ইউপি সদস্যরা আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেছে তা সুষ্ঠু তদন্ত আমিও চাই। তদন্ত হলে আসল ঘটনা বেরিয়ে আসবে। 
ডিমলা থানার ওসি( তদন্ত) বিশ্বদেব রায় সাংবাদিকদের বলেন, সোমবার রাতে ইউপি সদস্য লিলি আক্তার থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করবো। সেখাসে দুই পক্ষের উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে এলাকায় পুলিশ মোতায়েন সহ আমি নিজেই রয়েছি।  
উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বেলায়েত হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। বিষয়টি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।  তবে ইউপি সদস্যদের লাঞ্ছিত করার বিষয়টি আমাকে কেউ অবগত করেনি। বিষয়টি জেনে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে। 

মন্তব্য করুন


Link copied