আর্কাইভ  শনিবার ● ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ● ৩০ চৈত্র ১৪৩০
আর্কাইভ   শনিবার ● ১৩ এপ্রিল ২০২৪
 width=
 
 width=
 
শিরোনাম: পঞ্চগড়ে দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে চার       পঞ্চগড়ে দুই মোটরসাইকেলের মুখোঁমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৪       পঞ্চগড়ে প্রেমিকের হাতে প্রেমিকা খুন!       নাথান বমের স্ত্রীকে বান্দরবান থেকে লালমনিরহাটে বদলি       দিনাজপুরে ৬ লাখ মুসল্লি’র সমাগমে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত      

 width=
 

ঢাকায় পুলিশ কনস্টেবল হত্যা ঘটনায় নীলফামারীতে স্বেচ্ছাসেবক দলের নেতা গ্রেপ্তার

সোমবার, ৪ মার্চ ২০২৪, বিকাল ০৫:২২

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ গত বছরের (২০২৩) ২৮ অক্টোবর রাজধানীতে বিএনপির সমাবেশকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে পুলিশ কনস্টেবল আমিরুল হক পারভেজ হত্যা মামলার অন্যতম আরেক আসামিকে নীলফামারী থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। 
সোমবার(৪ মার্চ) ভোরে ডিএমপির ডিবি পুলিশ ও নীলফামারীর ডিমলা থানা পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে  নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আলমগীর ইসলামকে(৩৫) গ্রেপ্তার করে। আলমগীর ডিমলা উপজেলার বাবুরহাট পোষ্ট অফিস মোড়ের আমিরুল ইসলামের ছেলে। 
বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নীলফামারী পুলিশ সুপার গোলাম সবুর পিপিএম। 
এদিকে আলমগীরের পরিবারের পক্ষে সাংবাদিকদের জানানো হয়, পুলিশ ভোরে এসে বাড়ি থেকে আলমগীরকে তুলে নিয়ে গেছে। কোন মামলায় নেয়া হয়েছে তা বলেনি। 
অপর দিকে ডিমলার বিএনপির একাধিক নেতারাও জানান পুলিশ আলমগীরকে ধরে নিয়ে গেছে। এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপির এক নেতা নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জানিয়ে বলেন, আলমগীর বিএনপির সমাবেশে ঢাকায় উপস্থিত ছিল। 
সুত্রমতে, রাজধানীতে পুলিশ কনস্টেবল আমিরুল হক পারভেজকে পিটিয়ে হত্যার সময় পুলিশের সংগ্রহকৃত ছবিতে ডিমলা উপজেলার স্বেচ্ছাসেবক দলের সদস্য সচিব আলমগীর ইসলামকে স্পষ্টভাবে দেখা গিয়েছে। 
তবে এবিষয়ে ডিএমপির ডিবি পুলিশের পক্ষে নীলফামারী পুলিশ সুপার গোলাম সবুর সাংবাদিকদের জানান, আসামীকে ঢাকায় নেয়া হচ্ছে। সেখানে সংবাদ সম্মেলনে মাধ্যমে বিস্তারিত জানানো হবে।
সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা যায়, পুলিশ কনস্টেবল আমিরুল হত্যার দিন ২৮ অক্টোবর রাতেই পল্টন থানায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ ১৬৪ জনের নামে মামলা দায়ের করেন ডিবির মিরপুর বিভাগের উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুক মিয়া। 

মন্তব্য করুন


 

Link copied