আর্কাইভ  শনিবার ● ১ এপ্রিল ২০২৩ ● ১৮ চৈত্র ১৪২৯
আর্কাইভ   শনিবার ● ১ এপ্রিল ২০২৩
 width=
 width=
শিরোনাম: ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে ঠাকুরগাঁওয়ে সাংবাদিকদের মানববন্ধন        প্রতিমন্ত্রীর স্বাক্ষর নকল করে  ভুয়া নিয়োগ পত্র দেয়ার অভিযোগে গ্রেফতার -১       সরকারের বেঁধে দেয়া দামেই পণ্য বিক্রি হচ্ছে- রংপুরে বাণিজ্যমন্ত্রী       দিনাজপুরে মাইক্রোবাস ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত       রংপুরে ১২ হাজার পিস ইয়াবা উদ্ধার, আটক-৪      

নিপাহ ভাইরাস কেড়ে নিল শ্বশুর-পুত্রবধূর প্রাণ

বৃহস্পতিবার, ২ মার্চ ২০২৩, দুপুর ০২:৪৩

ডেস্ক: নওগাঁর মান্দায় নিপাহ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে শ্বশুর ও পুত্রবধূর মৃত্যু হয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেল ৫টার দিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান পুত্রবধূ ফরিদা। এর আগে ৮ ফেব্রুয়ারি তার শ্বশুর মারা যান।

মৃতরা হলেন- পুত্রবধূ ফরিদা বেগম (২৫) ও তার শ্বশুর আব্দুল হক। গৃহবধূ ফরিদা বেগম উপজেলার কশব ইউনিয়নের চকচোঁয়ার গ্রামের আব্দুল খালেকের স্ত্রী।

এদিকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন মৃত আব্দুল হকের স্ত্রী রহিমা বেগম (৬০)।

এ ঘটনায় আইসিডিডিআরবির একটি টিম এ নিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কাজ শুরু করেছেন।

স্থানীয়রা জানায়, গত ৪ ফেব্রুয়ারি বাড়ির পাশে লাগানো খেজুরের গাছ থেকে রস সংগ্রহ করে পান করেন আব্দুল হকের পরিবার। এর দুই দিন পর আব্দুল হকের শরীরে সর্দি-জ্বরসহ বিভিন্ন উপসর্গ দেখা দেয়। চরম অসুস্থ অবস্থায় গত ৭ ফেব্রুয়ারি তাকে নওগাঁ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর অবস্থার অবনতি হওয়ায় ৮ ফেব্রুয়ারি রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে মারা যান তিনি।

এদিকে গত রোববার আব্দুল হকের পুত্রবধূ ফরিদা বেগম সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন। তার উপসর্গগুলো সন্দেহজনক হওয়ায় উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে পাঠান চিকিৎসকেরা। মঙ্গলবার একইভাবে ফরিদা বেগমের শাশুড়ি রহিমা বেগমকেও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

এ ব্যাপারে মান্দা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. বিজয় কুমার রায় বলেন, ‘খবর পেয়ে একটি টিম ঘটনাস্থলে পাঠানো হয়েছে। এরই মধ্যে ঢাকা থেকে আসা আইসিডিডিআরবির একটি টিম এনিয়ে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে কাজ শুরু করেছেন।’

মন্তব্য করুন


Link copied