আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১ ● ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১

নীলফামারীতে ইজিবাইক ছিনতাই দলের ৯ সদস্য গ্রেপ্তার

শনিবার, ৩০ অক্টোবর ২০২১, দুপুর ১০:৩০

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী: নীলফামারীতে ইজিবাইক ছিনতাইয়ের মূল হোতাসহ নয়জনকে গ্রেফতার করেছে ডিবি পুলিশ। গতকাল বৃহস্পতিবার(২৮ অক্টোবর) রাতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেপ্তার করে। এসময় উদ্ধার হয়েছে তিনটি সচল এবং দুইটি ইজিবাইকের যন্ত্রাংশ বিশেষ।

আজ শুক্রবার(২৯ অক্টোবর/২০২১) বেলা ১১টার দিকে পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে ওই নয়জনকে গ্রেপ্তার এবং ইজিবাইক উদ্ধারের তথ্য জানান পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান (বিপিএম,পিপিএম)।

তিনি জানান, গত ২২ এবং ২৪ অক্টোবর সৈয়দপুর শহর থেকে দুই ইজিবাইক ছিনতাইয়ের ঘটনায় থানায় মামলা হলে দিনাজপুর জেলার হেলাল হোসেনকেস (২২) দিনাজপুর শহরের মাদহপট্টি থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার দেওয়া তথ্যে দিনাজপুর জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অভিযান চালিয়ে ছিনতাই হওয়া ইজিবাইক ক্রয়কারী উজ্জল ইসলাক (৩৮), আনসার আলী (৪৫) ইজিবাইকের ভাংরী (পুরাতন সচল ও অকেজো খুচরা যন্ত্রাংশ) ব্যবসায়ী আলমগীর হোসেন (২০), আব্দুল মান্নান (২২) এবং পুরাতন ইজিবাইক ক্রেতা জাবিরুল ইসলাম (৪০), আশরাফুল ইসলাম (৩৫), জাহেদুল ইসলামকে (৩৭) ও সৈয়দপুর থেকে ওষুধ ব্যবসায়ী রাজু আহমেদকে (৪৪) গ্রেপ্তার করা হয়। ওষুধ ব্যবসায়ী রাজু আহমেদ এর বাড়ী সৈয়দপুর উপজেলার দক্ষিণ নিয়ামতপুর গ্রামে এবং অপর গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিদের বাড়ী দিনাজপুর সদর, পার্বতীপুর ও বিরোল উপজেলায়

পুলিশ সুপার জানান, দিনাজপুরের বাসিন্দা আজিমুদ্দিন প্রামানিক(৭৫) সৈয়দপুর শহরে অটো রিকসা চালান। গত ২৪ অক্টোবর সকালে তার অটোরিকসা চুরি হওয়ায় সৈয়দপুর থানায় মামলা করেন। মামলার তদন্তভার দায়িত্ব দেয়া হয় ডিবি পুলিশকে। তদন্তে দিনাজপুর শহরের উত্তর বালুবাড়ি এলাকার হাফিজুল ইসলামের ছেলে হেলাল হোসেনের সম্পৃক্ততা পাওয়া যায়। হেলাল নিজেকে হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্র পরিচয় দিয়ে ইজিবাইক চালকদের ঘনিষ্ট হন। এরপর কৌশলে ঘুমের বড়ি খাওয়ান তাকে। ঘুম পাড়িয়ে চালককে রেখে ইজিবাইক নিয়ে সটকে পড়েন হেলাল।

এমন অপরাধ জগতে আসার কারণ হিসেবে জেলাল পুলিশকে জানায়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্রের ভুয়া পরিচয়ে এক ছাত্রীর সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এরপর প্রকৃত পরিচয় জানতে পারলে তার ওই সম্পর্ক ভেঙে গেলে মানসিক কষ্ট পায় সে। সে কষ্ট ভুলতে ঘুমের বড়ি সেবন করে দীর্ঘক্ষণ ঘুমায়। সে থেকে ওই বড়ি ৫০ উর্দ্ধ ব্যক্তিদের টার্গেট করে ইজিবাইক ছিনতাইয়ের কাজে নামেন। পাশপাশি তার ডান পা আঘাত প্রাপ্ত হওয়ায় সে খুঁড়িয়ে হাটে। এটিতে মানুষের সহানুভুতি সহজে অর্জন করতে পারে। 

ওই সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ডিবি পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হারুন উর রশিদ, পরিদর্শক আব্দুর রহমান, জেলা পুলিশের বিশেষ শাখার পরিদর্শক শামসুল ইসলাম। 

মন্তব্য করুন


Link copied