আর্কাইভ  রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১০ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
শিরোনাম: উত্তরবঙ্গে তাপমাত্রা কমার আভাস       অস্কারে যাচ্ছে ‘হাওয়া’       রংপুরে জাপানি নাগরিক হত্যায় ইছাহাকের খালাসের আদেশ স্থগিত       রংপুরে ভুয়া চাকুরীদাতা প্রতারক চক্রের ২ সদস্য গ্রেফতার       মরিয়ম মান্নানের মা জীবিত উদ্ধার; ছিলেন স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে      

নীলফামারীর এক কলেজের ৩৯ শিক্ষার্থী মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পেল!

বৃহস্পতিবার, ৭ এপ্রিল ২০২২, দুপুর ০৪:১১

স্টাফ রিপোর্টার, নীলফামারী॥ নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ থেকে  এ বছর ৩৯ শিক্ষার্থী মেডিক্যাল কলেজে পড়ার সুযোগ অর্জন করে জেলাবাসীকে চমকে দিয়েছে। দীর্ঘ করোনার দুঃসময়কে জয় করে এমন চমৎকার সাফল্যে উচ্ছ্বসিত শিক্ষার্থীদের পাশাপাশি অভিভাবকরাও। এ কলেজের শিক্ষকরাও শিক্ষার্থীদের সাফল্যে ভীষণ আনন্দিত ও উদ্বেলিত। ৫ এপ্রিল মেডিক্যাল ভর্তি পরীক্ষার ফলাফল বের হয়। একই কলেজের ৩৯ সহপাঠী মেডিক্যালে ভর্তির সুযোগ পাওয়ায় তাদেরকে আনন্দ প্রকাশ করতে দেখা গেছে। 
বলা বাহুল্য যে চলতি বছরের ১৪ মার্চ নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ পরিদর্শনে এসেছিলেন  শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি । এ সময় তিনি বলেছিলেন এই কলেজটি একটি রোল মডেল। কারণ এটির ধারাবাহিক ঈর্ষনীয় ফলাফল রীতিমত গবেষণার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি আরও বলেছিলেন 'প্রতিষ্ঠানটি স¤পর্কে আরও জানতে চাই। এর শিক্ষা পদ্ধতি, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলতে চাই। তাদের অভিজ্ঞতার আলোকে অন্যান্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোকে পরিচালনার মাধ্যমে ইতিবাচক পরিবর্তন ঘটানোর চেষ্টা করা হবে। 
দীর্ঘ করোনাকালীন লেখাপড়ার দুরবস্থায় স্বাভাবিকভাবেই সন্তানের ভবিষ্যৎ নিয়ে শঙ্কিত ছিলেন অভিভাবকরা। অথচ সেই দুর্যোগ অতিক্রম করে বাবা-মায়ের কাক্সিক্ষত স্বপ্নকে ¯পর্শ করতে পেরেছেন প্রিয় সন্তানরা। এতে দারুণ খুশি অভিভাবকরা।পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এ বছর এই কলেজ থেকে ২৬৮ জন শিক্ষার্থী এইচএসসি পরীক্ষায় অংশ নেন। এর মধ্যে ২৪৯ জন জিপিএ-৫ পায়। আর মেডিকেল কলেজে ভর্তি পরীক্ষায় অংশ নিয়ে দেশের বিভিন্ন মেডিকেল কলেজে পড়ার সুযোগ পেয়েছেন ৩৯ জন। তারা  ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ, রংপুর মেডিক্যাল কলেজ, নীলফামারী মেডিকেল কলেজ,সলিমুল্লাহ মেডিক্যাল কলেজ, সাতক্ষীরা মেডিক্যাল কলেজ, পাবনা মেডিক্যাল কলেজ, শের ই বাংলা মেডিক্যাল কলেজ, কুষ্টিয়া মেডিক্যাল কলেজ, পটুয়াখালী মেডিক্যাল কলেজ, দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজ,  সিলেট মেডিক্যাল কলেজ, ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ, কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ, মুগদা মেডিকেল কলেজ, ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজসহ বিভিন্ন কলেজে পড়ার সুযোগ পেয়েছেন।  সোহরাওয়ার্দী মেডিকেলে ভর্তির সুযোগ পাওয়া সৈয়দপুর শহরের কাজিপাড়ার  নুসরাত জাহান  বলেন, করোনাকালে কলেজ অনেকদিন বন্ধ থাকায় মুঠোফোনে শিক্ষকরা আমাদের সার্বিক সহযোগিতা করেছেন। নিয়মিত অনলাইন ক্লাস নিয়ে আমাদের সিলেবাস পূর্ণ করেছেন। আমাদের শিক্ষাঙ্গনের পরিবেশটা ব্যতিক্রম। শিক্ষার্থী আদুরি তাসফিন ফারজানার বাড়ি  রানিরবন্দরে। বাবা সেই ছোটকালে মারা যান। আদুরি এ বছর ভর্তির সুযোগ পেয়েছে কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজে। তিনি জানান, বাবার স্বপ্ন ছিল আমি একদিন ডাক্তার হবো। আজ সেই স্বপ্ন বাস্তব রূপ নিতে চলছে। সাফল্যে প্রতিটি ধাপে শিক্ষকদের কঠোর শ্রম রয়েছে। পড়াশোনা শেষ করে আমি একজন মানবিক চিকিৎসক হতে চাই।অভিভাবক এস এম নুর ইসলাম বলেন, কলেজ থেকে আমাদের নানা রকম নির্দেশনা দেওয়া হতো। যার ফলশ্রুতিতে আমাদের সন্তানরা ভাল ফলাফল করছে ও মেডিকেল ভর্তির সুযোগ পাচ্ছে।কলেজটির  অধ্যক্ষ গোলাম আহমেদ ফারুক বলেন, কলেজে পাঠদান চলে গ্রিন, ক্লিন, এনজয়েবল ক্লাসরুম লার্নিং পদ্ধতিতে। কলেজের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে আমরা একধরনের সেতুবন্ধন তৈরি করি। ক্লাসরুমেই স¤পূর্ণ পাঠদান স¤পন্ন করা হয়। এর ওপর ভিত্তি করে শিক্ষার্থীদের যাবতীয় প্রয়োজনীয়তা মাথায় রাখা হয়। তবে এ নিয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর বাড়তি কোনো চাপ রাখা হয় না।  শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে ভালো বোঝাপড়া আছে বলেই আমরা সফল হতে পেরেছি।
প্রকাশ থাকে যে নীলফামারীর সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজের অতীতে নাম ছিল সরকারি কারিগরি মহাবিদ্যালয় (টেকনিক্যাল কলেজ)। ২০১৯ সালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় নাম পরিবর্তন করে সৈয়দপুর সরকারি বিজ্ঞান কলেজ নামকরন করে। কলেজটিতে কেবলমাত্র বিজ্ঞান বিষয়ে পড়ার সুযোগ রয়েছে। ১৯৬৪ সালে দেশের চারটি শিল্পাঞ্চলে টেকনিক্যাল স্কুল গড়ে তোলা হয়েছিল। দেশের সর্ববৃহৎ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার সুবাদে এখানেও গড়ে ওঠে টেকনিক্যাল স্কুল। উদ্দেশ্য ছিল, এখান থেকে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার জন্য দক্ষ, কারিগরি জ্ঞানস¤পন্ন শিক্ষার্থী গড়ে তোলা। পরে ১৯৭৭ সালে প্রতিষ্ঠানটি কলেজে উন্নীত হয়।

মন্তব্য করুন


Link copied