আর্কাইভ  শুক্রবার ● ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ● ২১ মাঘ ১৪২৯
আর্কাইভ   শুক্রবার ● ৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
 width=
 width=
শিরোনাম: স্থানীয় বখাটেদের সঙ্গে বেরোবি শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষ: আহত ৪       ঘোড়ার গাড়িতে রাজকীয় বিদায়       এলপি গ্যাসের দাম ২৬৬ টাকা বাড়ল       প্রধানমন্ত্রী আমার উপর অত্যন্ত খুশী- রংপুর সিটি মেয়র       ঠাকুরগাঁওয়ে উপ-নির্বাচনে জামানত হারালেন ১৪ দলের প্রার্থীসহ চারজন      
 width=

কালোবাজারিতে সম্পৃক্ত ডোমার রেল স্টেশনে বুকিং সহকারী

মঙ্গলবার, ৭ জুন ২০২২, রাত ০৮:০০

স্টাফ রির্পোটার, নীলফামারী॥  টিকিট অনিয়ম ধরতে নীলফামারীর ডোমার রেলওয়ে স্টেশনে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। যাত্রীর অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার(৬ জুন) বিকালে ডোমার রেল স্টেশনে অভিযান চলাকালিন স্টেশনের বুকিং সহকারী রাশেদের বিরুদ্ধে টিকিট কালোবাজারির সম্পৃক্ততা পায় দুদকের প্রতিনিধি দল। 

জানা যায়, দুদকের রংপুর বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারি পরিচালক হোসাইন শরিফ এর নেতৃত্বে চার সদস্যের একটি দল ডোমার রেল স্টেশনে অভিযান পরিচালনা করে। এসময় স্টেশনের বুকিং অফিস ও টিকেট কাউন্টারে তল্লাশী সময় স্টেশনের টিকিট রেজিস্টার খাতা পরীক্ষা করে দেখা যায় বিচারপতি, রেলওয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তা, সরকারি কর্মকর্তা, উপজেলা রাজনৈতিক নেতা এবং কিছু প্রভাবশালী ব্যাক্তিদের নামে অগ্রিম একাধীক টিকিট বুকিং করে রাখার সত্যতা পেয়েছে দুদক দল। অথচ যাদের নামে এসি চেয়ার ও এসি বাথ বুকিং দেখানো হয়েছে তারা এ ব্যাপারে কিছুই জানেনা। বুকিং দেখিয়ে ওই সকল টিকেট বেশী দামে বিক্রি করা হয়। 

এ ব্যাপারে দুদকের বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক হোসাইন শরিফ সাংবাদিকদের বলেন, আমাদের কাছে অভিযোগ এসেছিলো ডোমার রেল স্টেশনে টিকিট কালোবাজারি হয় এবং সাধারন যাত্রী কারো সুপারিস ব্যতিত টিকিট পায় না। সোমবার সরেজমিনে আমরা উল্লেখিত অভিযোগে সকাল থেকে যাত্রীবেশে ডোমার রেল স্টেশনে অভিযান পরিচালনা করে আসছি। সাধারন যাত্রীবেশে আমরা রেল স্টেশন এলাকার কালোবাজারি লিটন ও মতির কাছে নীলফামারী থেকে ঢাকার আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেসের ননএসি তিনটি টিকিট কিনেছি। লিটন ও মতি সহ আরো অনেকেই কালোবাজারির সাথে জড়িত রয়েছেন। জিজ্ঞাসাবাদে বুকিং সহকারী রাশেদ এর সাথে স¤পৃক্ত থাকার সত্যতা পেয়েছি আমরা। তিনি বলেন, বিষয়টি দ্রুত রেল কর্তৃপক্ষকে অবগত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 
এবিষয়ে ডোমার রেলস্টেশন মাস্টার আশরাফুল ইসলাম বলেন, অপরাধী যেই হোক আমি চাই তাকে আইনের আওতায় এনে শান্তি দেয়া হোক। 

মন্তব্য করুন


Link copied