আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১ ● ১৬ অগ্রহায়ণ ১৪২৮
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৩০ নভেম্বর ২০২১

কিশোর অপরাধ দমনে নীলফামারীতে র‌্যাবের সচেতনতা ক্যাম্পেইন

মঙ্গলবার, ২৬ অক্টোবর ২০২১, দুপুর ০৪:১৫

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ “সবার হোক একটাই পণ- কিশোর অপরাধ করব দমন” স্লোগানকে সামনে রেখে কিশোর অপরাধ দমনে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য মাঠে নেমেছে র‌্যাব সদস্যরা। আজ মঙ্গলবার(২৬ অক্টোবর/২০২১) সকাল ১১টার দিকে জেলা শহরের নীলফামারী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাকক্ষে কিশোর অপরাধ নির্মূলে জনসচেতনতামূলক আলোচনা সভা করে র‌্যাব-১৩ নীলফামারী সিপিসি-২ কোম্পানী।
এসময় র‌্যাব-১৩ নীলফামারী সিপিসি-২ এর কোম্পানী কমান্ডার পুলিশ সুপার সৈয়দ রফিকুল ইসলাম বলেন, কিশোর অপরাধ দমন করতে হলে পরিবারের অভিভাবকদের সচেতন হতে হবে আগে। কারণ শিক্ষার প্রথম ধাপটি পরিবার থেকে আসে। তিনি বলেন, সন্তানদের চাহিদা পূরণ করতে বাবা মা তাদের দামী মোবাইল, পোষাক, গাড়ি কিনে দেন। কিন্তু তারা সেটি সৎ না অসৎ পথে ব্যবহার করছে তা খোজ রাখেন না। এই বিষয়ে সবাই সজাক হওয়ার জন্য আহবান করছি।
তিনি ২০১৭ সালে উত্তরায় আদনান হত্যার পর থেকেই কিশোর গ্যাংয়ের বিষয়টি উল্লেখ করে বলেন, সেই ঘটনার পর থেকে বাংলাদেশে কিশোর অপরাধ দমনে কাজ করছে র‌্যাব। ২০১৭ সালের পর থেকে এখন পর্যন্ত ৩৭৩ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গত মার্চ থেকে এ পর্যন্ত ২৩৪ জনকে আইনের আওতায় আনা হয়। শুধু মামলা বা গ্রেপ্তার নয়, পরিবারের সদস্যদের ডেকে বুঝিয়ে সঠিক পথে ফেরানোর চেষ্টাও করছে র‌্যাব। এ সময় সচেতনতা বৃদ্ধির ওপর জোর দিয়ে পারিবারিক বন্ধন বাড়ানোর তাগিদ দেয়া হচ্ছে। এ ছাড়া কিশোর অপরাধীদের যারা নিয়ন্ত্রণ করছে ও পেছন থেকে সাপোর্ট দিচ্ছে, তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। সন্তানের বন্ধু হওয়া ও নৈতিকতার শিক্ষা দিতে বাবা-মায়ের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন নীলফামারী সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক গোলাম রব্বানী, দিনাজপুর জজ কোটের নারী ও শিশু দমন ট্যাইবুনালের এপিপি ও ওই প্রতিষ্ঠানের অভিভাবক কমিটির সদস্য সৈয়দুল আলম শান্তু প্রমুখ। অনুষ্ঠানে র‌্যাব-১৩ নীলফামারী ক্যাম্পের সদস্য, উক্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও সাংবাদিকগণ উপস্থিত ছিলেন।

মন্তব্য করুন


Link copied