আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৬ জুন ২০২৩ ● ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৬ জুন ২০২৩
 width=
 width=
শিরোনাম: তাপপ্রবাহ চলতে পারে আরও ৫ দিন       নীলফামারীতে র‌্যাবের অভিযানে গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেপ্তার       নীলফামারীতে শিহাব হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন       নীলফামারীতে বিশ্ব পরিবেশ দিবসে পুরস্কার বিতরন       সৈয়দপুরে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের উদ্যোগে কর্মশালা      

নিখোঁজের চারদিন পর অটো চালকের হাত বাঁধা লাশ পুকুরে পাওয়া গেল

রবিবার, ১ জানুয়ারী ২০২৩, রাত ১১:৩৯

স্টাফরিপোর্টার,নীলফামারী॥ নিখোঁজের চারদিন পর আব্দুল গফুর (২৩) নামে এক অটো চালকের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। আজ রবিবার(১ জানুয়ারী) সকালে নীলফামারীর সৈয়দপুর উপজেলার বাঙালিপুর ইউনিয়নের লণপুর চড়কপাড়ার উকিলবাড়ির একটি পুকুর হতে পুলিশ মরদেহটি উদ্ধার করে। নিহতের শরীরে আঘাতের চিহ্ন ও পেছনে হাত বাঁধা ছিল। ধারনা করা হচ্ছে কে বাবা কারা হত্যার পর লাশ পুকুরে ফেলে দিয়ে পালিয়ে যায়।
পুলিশ জানায়, নিহত গফুর পার্শ্ববর্তী রংপুর জেলার তারাগঞ্জ উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের বকশীপাড়ার গ্রামের আবুল হোসেনের ছেলে। সে স্ত্রীকে নিয়ে সৈয়দপুরের কামারপুকুর ইউনিয়নের সিংপাড়ায় ভাড়া বাসায় থাকতো ও শহরে অটো চালাতো। কিছুদিন থেকে স্ত্রী ও শ্বশুড়ের সাথে বিবাদের কারণে স্ত্রী রাগ করে বাবার বাড়িতে অবস্থান করায় গফুর অটো চালানো বন্ধ করে রেখেছিল। গত বুধবার শহরের আদানী মোড় এলাকায় বড় বোনের সাথে দেখা করে বের হওয়ার পর থেকে তার আর কোন হদিস পাওয়া যাচ্ছিলনা। আজ রবিবার সকাল ৯টার দিকে লণপুর চড়কপাড়ার উকিলবাড়ির একটি  পুকুরে এলঅকাবাসী লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশকে খবর দেয়। 
পরিবারের সদস্যরা দাবি করেন আব্দুল গফুরকে হত্যা করা হয়েছে। কারণ লাশের সাথে প্যান্টের পকেটে প্রায় দেড় হাজার টাকা, জন্মনিবন্ধন সনদ, মোবাইল সিম অত আছে। চুরি, ছিনতাই বা দূর্ঘটনায় এই মৃত্যু হয়নি। বরং পরিকল্পিতভাবে মেরে লাশ গুম করতেই পুকুরে ফেলা হয়েছে। 
বিষয়টি নিশ্চিত করে সৈয়দপুর থানার ওসি সাইফুল ইসলাম জানান, মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নীলফামারী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়। 

মন্তব্য করুন


 

Link copied