আর্কাইভ  সোমবার ● ১৫ জুলাই ২০২৪ ● ৩১ আষাঢ় ১৪৩১
আর্কাইভ   সোমবার ● ১৫ জুলাই ২০২৪
 width=
 
 width=
 
শিরোনাম: চাকরিজীবীদের ‘প্রত্যয় স্কিমে’ অংশগ্রহণ বাধ্যতামূলক       কর্মবিরতি চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা শিক্ষকদের       রংপুরে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যান্ডার পর আত্মহত্যা বলে প্রচারণা       রংপুরে জেলা যুবলীগের সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত       কোটাবিরোধী আন্দোলনকারীদের হুঁশিয়ারি প্রধানমন্ত্রীর      

 width=
 

চিলাহাটি-ঢাকা রুটে চালু হচ্ছে আরেকটি নতুন আন্তঃনগর ট্রেন

সোমবার, ৩ এপ্রিল ২০২৩, দুপুর ০৪:০৫

স্টাফ রিপোর্টার,নীলফামারী॥ দেশের রেল বহরে যুক্ত হতে যাচ্ছে নতুন রেল কোচ। সম্প্রতি চীন থেকে আমদানী করা কোচ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় পরীক্ষা নিরীক্ষার পর পরীক্ষামূলক চালানো হয়েছে চিলাহাটি-পার্বতীপুর পথে। ব্রডগেজের ওই বহরে যুক্ত ছিল ১২টি রেল কোচ। শনিবার(১ এপ্রিল) দুপুরে ১টার দিকে চীন থেকে আমদানী করা নতুন কোচের পরীক্ষামূলক একটি ট্রেন চিলাহাটির উদ্দেশ্যে নীলফামারী স্টেশন অতিক্রম করে। এরপর চিলাহাটি থেকে ছেড়ে বিকাল ৩টার দিকে নীলফামারী স্টেশন অতিক্রম করে পার্বতীপুরের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায় ট্রেনটি। 
সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা সূত্র জানায়, পরীক্ষামূলক মিশ্র ওই ট্রেনের ১২টি কোচের মধ্যে আটটি ছিল চীন থেকে নতুন আমদানী করা। সাথে যুক্ত করা হয়েছিল কারখানায় মেরামত করা ইন্দোনেশিয়ার তৈরী চারটি কোচ। আমদানী করা ব্রড গেজের এসব কোচ কারখানায় পরীক্ষা নিরীক্ষা শেষে প্রাথমিকভাবে চালানো হয় চিলাহাটি-পার্বতীপুর পথে। চীন থেকে সদ্য আমদানী করা কোচের ফিনিশড বডি প্রস্তুত হয়েছে চীনে, কিন্তু কোচের কিছু যন্ত্রাংশ এসেছে ইউরোপ থেকে এবং কোচের বগি জার্মানীর। এ ছাড়া হুইল, এয়ার ব্রেক, জেনারেটর এবং বগির ফিটিংসগুলো জার্মানি ও রোমানিয়ার। ব্রড গেজের আধুনিক এসব কোচ কোন ঝাঁকুনি ছাড়াই ঘণ্টায় চলবে ১২০ কিলোমিটার গতিতে। উন্নত প্রযুক্তি ও যন্ত্রাংশ ব্যবহারের কারণে যাত্রীরা আরামদায়ক ভ্রমন করতে পারবে। কোচগুলো সাজানো হয়েছে লাল-সবুজের রঙে। অভ্যন্তরীণ সাজসজ্জা (ইন্টেরিয়র ডেকোরেশন) বেশ আধুনিক। আরামদায়ক আসনগুলোতে রয়েছে ফোল্ডিং ব্যবস্থা। আছে ল্যাপটপ ও মোবাইল চার্জ দেয়ার পয়েন্ট। এছাড়া ডিজিটাল মনিটর ও কোজ সার্কিট ক্যামেরা রয়েছে প্রতিটি কোচে। যাত্রীদের ব্যবহারের জন্য টয়লেটগুলোও পরিবেশবান্ধব। আছে হাই কমোড ও লো-কমোডের ব্যবস্থা। আরামদায়ক কোচগুলো তৈরী করেছে চীনের সিআরআরসি ট্যাংসন কোম্পানী। সম্প্রতি ৪৫টি নতুন কোচ সৈয়পুর কারখানায় এসে পৌঁছার পর পর্যায়ক্রমে পরীক্ষা নিরীক্ষা করা হচ্ছে। 
রেলওয়ে সূত্র মতে, চিলাহাটি-ঢাকা রুটে আন্তঃনগর নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের পর আরেকটি আন্তঃনগর র‌্যাক (ট্রেনবহর) চালু হচ্ছে শিগগিরই। বাংলাদেশ রেলওয়ের নীতি নির্ধারণ পর্যায় থেকে এ সংক্রান্ত নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে ট্রেনের নাম এখন ঠিক না হলেও ধারনা করা হচ্ছে ট্রেনের নাম করন হতে পারে “নীলফামারী এক্সপ্রেস”। এটি আসন্ন ঈদের পর থেকে চালু হবে জানান রেল কর্তৃপক্ষ। 
সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার বিভাগীয় তত্বাবধায়ক (ডিএস) সাদেকুর রহমান বলেন, ৪৫টি নতুন কোচ সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় এসে পৌঁচেছে। এসব কোচের তৃতীয় দফায় শনিবার ট্রায়েল অনুষ্ঠিত হয়। এ নিয়ে (প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় দফাসহ) সর্বমোট ৩০টি কোচের ট্রায়েল শেষ হলো। ট্রায়েল শেষে এটি চলাচলের উপযোগি কিনা তা কারিগরি বোর্ডের যাচাই বাছাই শেষে রেলওয়ের ট্রাফিক বিভাগের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পরে নতুন এসব কোচ রেল বহরে যুক্ত করা হবে। ওই ট্রেনে দেশীয় প্রকৌশলী ছাড়াও চীনের প্রকৌশলীরা উপস্থিত ছিলেন। তিনি জানান, সব ঠিক থাকলে আগামী জুনের মধ্যে চিলাহাটি-ঢাকা রুটে সকালে আরেকটি আন্তঃনগর ট্রেন চালু হবে। 

মন্তব্য করুন


 

Link copied