আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২ ● ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত       পঞ্চগড়ে নৌডুবিতে ইজারাদার ও অদক্ষ মাঝিকে দায়ী করে প্রতিবেদন দাখিল       অপুকে ডিভোর্সের ১৪৮ দিন পর বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব       সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমল ১৪ টাকা       বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ এক ডিগ্রী বেশি- রংপুরে জিএম কাদের      

ঝোপ বুঝে কোপ মারতে চায় জামায়াত

সোমবার, ২৯ আগস্ট ২০২২, সকাল ০৮:৪০

ডেস্ক: বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট ছেড়ে যাচ্ছে জামায়াত ইসলামী এমন একটি সংবাদ প্রকাশের পর টক অব দ্য টাউনে পরিণত হয় খবরটি। সেই সঙ্গে জামায়াতের সাম্প্রতিক কিছু তৎপরতাকে এই খবরের সঙ্গে মিলিয়ে নানান হিসেব নিকেশ ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। এর মধ্যে বিশেষ উল্লেখযোগ্য হলো জামায়াতে ইসলামী জোট ছেড়ে এককভাবে নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে। আরেকটি হলো জাতীয় পার্টির মতই স্বতন্ত্র প্রার্থী দিয়ে আওয়ামী লীগের সঙ্গে ২০২৩ সালের নির্বাচনে অংশ নেওয়ার পরিকল্পনা করছে। জোটে না থাকলেও আলাদাভাবে বিএনপির সঙ্গে একই পথে হাঁটার গুঞ্জনটিও বাতাসে ভেঁসে বেড়াচ্ছে।

জামায়াত যদি সত্যিই জোট ছেড়ে যায় বিএনপি সেটাকে কিভাবে দেখছে এমন প্রশ্ন ছিল বিএনপির শীর্ষ স্থানীয় বেশ কয়েকজন নেতার কাছে। কিন্তু তারা কেউ এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি। তারা জানিয়েছেন, এ বিষয়ে যদি কোন বক্তব্য থাকে সেটা বিএনপির পক্ষ থেকে মহাসচিব আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দিবেন। এ বিষয়ে আলাদা করে তাদের কারো কিছু বলার নেই। তবে মধ্যম সারির বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, জামায়াত জোটে আছে কি নেই এ ব্যাপারে তাদের একেবারেই কোন আগ্রহ নেই। তাদের বক্তব্য জামায়াত থাকলেও ভালো, না থাকলে আরও ভালো।

জোট ছাড়া বা না ছাড়া বিষয়ে জামায়াতের আমির ডা. শফিকুর রহমানের বক্তব্য নেওয়া না গেলেও কথা হয় ঢাকা মহানগরের কয়েকজন কর্মপরিষদ সদস্যদের সঙ্গে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কর্মপরিষদ সদস্যরা জানিয়েছেন, জামায়াতে ইসলামীর সকল সিদ্ধান্ত সম্মলিতভাবে এবং কেন্দ্রীয়ভাবে নেওয়া হয়। জোট ছাড়ার বিষয়টি তারা আনুষ্ঠানিকভাবে জানেন না। দল থেকে এরকম কিছু তাদেরকে জানানো হয়নি। জামায়াত কি আলাদাভাবে স্বতন্ত্র প্রার্থী দিয়ে নির্বাচন করার প্রস্তুতি নিচ্ছে কিনা এমন প্রশ্নে তাদের বক্তব্য অনেকটা এরকম যে, জামায়াত জোটে থাক বা না থাক সবসময় ৩০০ আসনে দলীয়ভাবে প্রার্থী চূড়ান্ত করে রাখে। সে হিসেবে এবারো আগে ভাগেই সারা দেশের রুকন, ওয়ার্ড সভাপতিদের সঙ্গে আলাপ আলোচনা করে তাদের মতামতের ভিত্তিতে ৩০০ সংসদীয় আসনের বেশির ভাগ জায়গায় প্রার্থী চূড়ান্ত করে ফেলেছে।

জামায়াতে ইসলামীর ঢাকা মহানগর দক্ষিণের একজন ওয়ার্ড সভাপতি জানান, বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট নিষ্ক্রিয় বিধায় নানা ধরনের কথা ছড়াচ্ছে। তবে জোট ছাড়া না ছাড়া, আওয়ামী লীগের অধীনেই নির্বাচনে অংশ নেওয়া কিংবা স্বতন্ত্র প্রার্থী দিয়ে চলমান প্রক্রিয়াতেই নির্বাচন করার বিষয়ে তার কাছে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য নেই। এ বিষয়ে কেন্দ্রীয় সদস্যরা ভালো বলতে পারবেন বলে জানান তিনি।

জামায়াতে ইসলামী মূলত কোন সমীকরণে নিজেদের গোছাচ্ছে সেটা বেশ অস্পষ্ট হলেও, এটা স্পষ্ট রাজনীতির মাঠে তারা নিজেদেরকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে তুলে ধরতে নানান ছক কষছে। সে হিসেবেই মাঠে নানান বার্তা দিচ্ছে এবং সঠিক সুযোগের অপেক্ষায় আছে।

মন্তব্য করুন


Link copied