আর্কাইভ  শনিবার ● ১৩ এপ্রিল ২০২৪ ● ৩০ চৈত্র ১৪৩০
আর্কাইভ   শনিবার ● ১৩ এপ্রিল ২০২৪
 width=
 
 width=
 
শিরোনাম: পঞ্চগড়ে দুই মোটরসাইকেল সংঘর্ষ, নিহতের সংখ্যা বেড়ে চার       পঞ্চগড়ে দুই মোটরসাইকেলের মুখোঁমুখি সংঘর্ষে নিহত ২, আহত ৪       পঞ্চগড়ে প্রেমিকের হাতে প্রেমিকা খুন!       নাথান বমের স্ত্রীকে বান্দরবান থেকে লালমনিরহাটে বদলি       দিনাজপুরে ৬ লাখ মুসল্লি’র সমাগমে দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সর্ববৃহৎ ঈদ জামাত      

 width=
 

দেবর-ভাবির দ্বন্দ্বে কেউ বিরক্ত, কেউবা সতর্ক

রবিবার, ৩ মার্চ ২০২৪, দুপুর ১১:৪৮

ডেস্ক: আগামী ৯ মার্চ জাতীয় পার্টির প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ দলের কাউন্সিল ডেকেছেন। এ ছাড়া তিনি নিজেকে দলের চেয়ারম্যান ঘোষণা করে জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদের অব্যাহতি দিয়েছেন। দেবর-ভাবির এই দ্বন্দ্বে জাপার দুর্গ বলে খ্যাত রংপুরেও কিছুটা নেতিবাচক প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। রওশন এরশাদের এমন কর্মকাণ্ডে রংপুরের অনেক জাপা নেতা-কর্মী বিরক্ত হচ্ছেন। আবার কেউ সতর্ক অবস্থানে থেকে পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ করছেন।

জানা গেছে, দ্বাদশ সংসদ নির্বাচনের পর থেকে জাতীয় পার্টির নেতা-কর্মী ও সমর্থকরা এক প্রকার ঝিমিয়ে রয়েছেন। জাতীয় পার্টিতে যোগ্য নেতৃত্বের অভাব রয়েছে বলে অনেকে মনে করছেন। জাপা চেয়ারম্যান এইচ এম এরশাদের মৃত্যুর পর রংপুর অঞ্চলে যোগ্য নেতৃত্ব গড়ে তুলতে পারেনি জাতীয় পার্টি- এমন দাবি অনেকের। নেতৃত্ব নিয়ে নেতা-কর্মীরা প্রকাশ্যে কিছু না বললেও ভিতরে ভিতরে তাদের মাঝে এক ধরনের অনীহা ভাব রয়েছে।

দেবর-ভাবীর দ্বন্দ্ব প্রসঙ্গে জাতীয় পার্টির একাধিক নেতা-কর্মী বিরক্তি প্রকাশ করে বলেন, দলের মধ্যে ক্ষমতার লড়াই নিয়ে বিচ্ছৃঙ্খলা হোক এমনটা কারও কাম্য নয়। রংপুরে রওশন এরশাদের পক্ষে কোনো নেতা-কর্মী নেই। দলের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরের নেতৃত্বে জাতীয় পার্টি ঐক্যবদ্ধ রয়েছে।

এদিকে রংপুরে রওশনপন্থি নেতা হিসেবে পরিচিত ছিলেন জাপার সাবেক মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গা। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে হেরে যাওয়ার পর তিনি রাজনীতি থেকে অবসরের ঘোষণা দেন। এতে রংপুরে রওশনপন্থিরা অনেকটা দুর্বল হয়ে পড়েন। তার পরও মসিউর রহমান রাঙ্গার কিছু সমর্থক এখনো রওশন এরশাদের ভক্ত হিসেবে রয়েছেন। তাদের মতে, রওশন এরশাদ যা করেছেন তা সঠিক সিদ্ধান্ত। সময় এলে রংপুরে রওশন এরশাদের নেতৃত্বে দল সংগঠিত করা হবে।

রংপুর জেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব হাজি আবদুর রাজ্জাক বলেন, রওশন এরশাদ নিজেকে চেয়ারম্যান ঘোষণা এবং কাউন্সিল ডাকা জাতীয় পার্টির মধ্যে কোনো প্রভাব ফেলবে না। আমরা জি এম কাদেরের নেতৃত্বে সংগঠিত রয়েছি।

উল্লেখ্য, গত ২৮ জানুয়ারি জাপা চেয়ারম্যান জি এম কাদেরকে অব্যাহতি দিয়ে নিজেকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করেন প্রধান পৃষ্ঠপোষক রওশন এরশাদ এবং মহাসচিব করা হয় কাজী মামুনুর রশীদকে।

মন্তব্য করুন


 

Link copied