আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২ ● ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: রংপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় ২ জন নিহত       পঞ্চগড়ে নৌডুবিতে ইজারাদার ও অদক্ষ মাঝিকে দায়ী করে প্রতিবেদন দাখিল       অপুকে ডিভোর্সের ১৪৮ দিন পর বুবলীকে বিয়ে করেন শাকিব       সয়াবিন তেলের দাম লিটারে কমল ১৪ টাকা       বিএনপির চেয়ে আওয়ামী লীগ এক ডিগ্রী বেশি- রংপুরে জিএম কাদের      

পুলিশে নিয়োগ পেলেন সেই আসপিয়া

রবিবার, ২৬ ডিসেম্বর ২০২১, রাত ০৯:১৬

ডেস্ক: অবশেষে পুলিশের ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল (টিআরসি) পদে নিয়োগ পেয়েছেন বরিশালের হিজলার আলোচিত ‘ভূমিহীন’ কলেজছাত্রী আসপিয়া ইসলাম। গতকাল শনিবার রাতে নিয়োগপত্র হাতে পেয়েছেন তিনি। আজ রোববার এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হিজলা থানার ওসি ইউনুস মিয়া।

স্বপ্নের চাকরির নিয়োগপত্র হাতে পাওয়ায় উচ্ছ্বসিত আসপিয়া ও তার পরিবার। প্রধানমন্ত্রীসহ দেশবাসীকে ধন্যবাদ জানিয়ে আসপিয়াসহ পরিবারের জন্য সবার দোয়া চেয়েছেন তার মা। প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর বরাদ্দ পেয়েও খুশি হয়েছেন আসপিয়া ও তার পরিবারের সদস্যরা।

হিজলা থানা সূত্রে জানা গেছে, বরিশাল জেলা পুলিশ সুপার স্বাক্ষরিত নিয়োগপত্র আসপিয়ার হাতে গতকাল শনিবার তুলে দেন হিজলা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মিজান। নিয়োগপত্রে আগামী ২৮ ডিসেম্বর সকাল ১০টার মধ্যে তাকেসহ চূড়ান্ত নিয়োগ পাওয়া প্রার্থীদের প্রয়োজনীয় ব্যবহার্য সামগ্রী নিয়ে জেলা পুলিশ লাইনে উপস্থিত থাকতে বলা হয়েছে। সেখান থেকে রাজশাহীর সারদা পুলিশ একাডেমিতে আনুষ্ঠানিকতা শেষে মহিলা টিআরসিদের ছয় মাসের প্রশিক্ষণের জন্য রংপুরে পাঠানো হবে।

নিজের যোগ্যতায় সাত স্তরের পরীক্ষায় পঞ্চম স্থানে উত্তীর্ণ হওয়ার পরও স্থায়ী ঠিকানা না থাকায় কলেজছাত্রী আসপিয়ার চাকরি হওয়া নিয়ে শঙ্কা দেখা দেয়। এতে মাসনিকভাবে ভেঙে পড়েন পিতৃহীন আসপিয়া ও তার পরিবার। পরে ৮ ডিসেম্বর বরিশাল জেলা পুলিশ লাইনে রেঞ্জ ডিআইজি এস এম আক্তারুজ্জামানের কাছে যান আসপিয়া। ডিআইজি আসপিয়ার প্রতি সমবেদনা জানালেও তাকে চাকরি দেওয়ার বিষয়ে কোনো প্রতিশ্রুতি দিতে পারেননি তখন। এ নিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হলে বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টিগোচর হয়। পরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় আসপিয়াকে জমিসহ ঘর এবং যোগ্যতা অনুযায়ী চাকরি দিতে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দেন।

জেলা প্রশাসন তার জন্য হিজলায় খাস জমিতে দুই কক্ষবিশিষ্ট একটি সেমিপাকা ঘর নির্মাণ শুরু করেছে। ঘরটি নির্মাণও প্রায় শেষ পর্যায়ে রয়েছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বকুল চন্দ্র কবিরাজ। 

মন্তব্য করুন


Link copied