আর্কাইভ  সোমবার ● ৩০ জানুয়ারী ২০২৩ ● ১৭ মাঘ ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ৩০ জানুয়ারী ২০২৩
 width=
 width=
শিরোনাম: জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ২০২১ পাচ্ছেন যারা       বগুড়ায় হোটেলে খুন, লালমনিরহাটে প্রধান আসামী গ্রেফতার       রংপুরে রাষ্ট্রিয় মর্যাদায় বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. ইলিয়াছ আহমেদের দাফনকার্য সম্পন্ন        সুন্দরগঞ্জে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার বিচার দাবিতে ঝাড়ু– মিছিল       রাঙ্গা জাপারই কেউ নন কিন্তু তাদের চিফ হুইপ      
 width=

ভারত আমাদের বন্ধু, আমরা একে অপরকে সহযোগিতা করছি: প্রধানমন্ত্রী

মঙ্গলবার, ৬ সেপ্টেম্বর ২০২২, দুপুর ১১:৫৭

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠকের বিষয়ে শেখ হাসিনা বলেছেন, ‘ভারত আমাদের বন্ধু। আমি যখনই ভারতে আসি, এটা আমার জন্য আনন্দের। বিশেষ করে আমরা সবসময় আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় ভারতের অবদানের কথা স্মরণ করি। আমাদের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক রয়েছে, আমরা একে অপরকে সহযোগিতা করছি।’

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে স্বাগত জানানো হয়েছে। তাকে স্বাগত জানান দেশটির প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। চারদিনের রাষ্ট্রীয় সফরের দ্বিতীয় দিনে মঙ্গলবার (৬ সেপ্টেম্বর) সকালে শেখ হাসিনাকে গার্ড অনার প্রদান করা হয়। পরে সেখানেই সাংবাদিকদের সঙ্গে তিনি এসব কথা বলেন। এই তথ্য জানিয়েছে ভারতীয় বার্তাসংস্থা এএনআই।

শেখ হাসিনা বলেন, ‌‘আমি আশা করি, এটি অত্যন্ত ফলপ্রসূ আলোচনা হবে এবং আমাদের মূল লক্ষ্য অর্থনৈতিকভাবে উন্নয়ন করা এবং আমাদের জনগণের মৌলিক চাহিদা পূরণ করা- যা আমরা করতে সক্ষম হবো। বন্ধুত্বের মাধ্যমে আপনি যেকোনো সমস্যার সমাধান করতে পারেন। সুতরাং, আমরা সবসময় এটিই করি।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের প্রধান লক্ষ্য হলো- সামগ্রিকভাবে আমাদের জনগণের উন্নয়ন, দারিদ্র্য বিমোচন এবং অর্থনীতির উন্নয়ন। এই ইস্যুতে আমি মনে করি আমাদের ২টি দেশ একসঙ্গে কাজ করছে। এতে শুধু ভারত ও বাংলাদেশের মানুষই নয়, সমগ্র দক্ষিণ এশিয়ার মানুষ উন্নত জীবন পেতে পারে। এটাই আমাদের মূল লক্ষ্য।’

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে আজ (মঙ্গলবার) বৈঠক করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ভারতের ‘প্রতিবেশী প্রথম’ নীতিতে বাংলাদেশ অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার। শেখ হাসিনা সোমবার ভারতে তার চার দিনের সফর শুরু করেছেন।

নয়াদিল্লিতে পৌঁছানোর পরপরই বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এ সময় তারা দ্বিপাক্ষিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। এদিন প্রধানমন্ত্রী দিল্লির নিজামুদ্দিন আউলিয়ার মাজারও জিয়ারত করেন।

মন্তব্য করুন


Link copied