আর্কাইভ  রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২ ● ১০ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   রবিবার ● ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
 
 
শিরোনাম: মরিয়ম মান্নানের মা জীবিত উদ্ধার; ছিলেন স্বেচ্ছায় আত্মগোপনে       ডেপুটি স্পিকারের সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে আ.লীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ       এনআইডিতে লাগবে ১০ আঙুলের ছাপ       গাইবান্ধা জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সিদ্দিক, সম্পাদক মোজাম্মেল       ঠাকুরগাঁওয়ে মোটরসাইকেলের নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে নিহত ২      

রাশিয়াকে থামাতে ইউক্রেনের মোদির সাহায্য প্রার্থনা

বৃহস্পতিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২২, রাত ০৮:১২

ডেস্ক: রাশিয়াকে থামাতে মোদির সাহায্য চায় ইউক্রেন। রাশিয়ার সামরিক অভিযান ঠেকাতে পশ্চিমা বিশ্বের পাশপাশি এবার ভারতের দ্বারস্থ হলো ইউক্রেন। চলমান যুদ্ধাবস্থায় শান্তি ফেরাতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির কাছে মধ্যস্থতার আবেদন জানিয়েছেন ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত ইগর পোলিখা। অবিলম্বে শান্তি আলোচনা চালাতে রাশিয়ার সঙ্গে মোদিকে যোগাযোগ করার অনুরোধও করেন তিনি।

নয়াদিল্লিতে ইউক্রেনের রাষ্ট্রদূত ইগর পোলিখা বৃহস্পতিবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) এ আহবান জানান। 

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইণ্ডিয়া টুডে ও আনন্দবাজার বলছে, ইউক্রেনের কূটনৈতিক মহলের একাংশের ধারণা রাশিয়া-ভারত পুরনো বন্ধুরাষ্ট্র। ফলে ভারতকে গুরুত্ব দিয়েই দেখছে কিয়েভ। 

ইগর পোলিখা বলেছেন, বর্তমান পরিস্থিতিতে আমরা ভারতের সাহায্য চাইছি। রাশিয়ার সঙ্গে ভারতের বিশেষ সম্পর্ক রয়েছে। রাশিয়া-ইউক্রেন সঙ্কট নিয়ন্ত্রণে নয়াদিল্লি আরও সক্রিয় ভূমিকা নিতে পারে। আমরা প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে অবিলম্বে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং আমাদের প্রেসিডেন্ট ভোলোদিমির জেলেনস্কির সঙ্গে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করছি। মোদিজি বিশ্বের অন্যতম শক্তিশালী নেতা।

এদিকে ইউক্রেন-রাশিয়া যুদ্ধ পরিস্থিতি নিয়ে বৃহস্পতিবার জাতিসংঘে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে ভারত। ইউক্রেনে কমপক্ষে ২০ হাজার ভারতীয় রয়েছেন। তাদের ভবিষ্যৎ নিয়েও উদ্বেগ জানিয়েছে নয়াদিল্লি। 


রুশ সামরিক অভিযানের ঘোষণার পরই নিরাপত্তা পরিষদের ভারতের স্থায়ী প্রতিনিধি টি এস তিরুমূর্তি বলেছেন, দুইদিন আগে নিরাপত্তা পরিষদ বৈঠক করেছিল। তখন, দ্রুত উত্তেজনা কমানোর আহ্বান জানিয়েছিলাম আমরা। পরিস্থিতি অনুযায়ী কার্যকরী এবং যুক্তিগ্রাহ্য কূটনীতির উপর জোর দিয়েছিলাম। কিন্তু দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, উত্তেজনা প্রশমিত করার জন্য আন্তর্জাতিক মহলের সাম্প্রতিক উদ্যোগে সাড়া মেলেনি।

জাতিসংঘে নিজেদের মতামত প্রকাশ করলেও ইউক্রেন-রাশিয়া ইস্যুতে কোনো গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিতে পারেনি মোদি সরকার। এছাড়া ভারতের অভ্যন্তরীণ নানা সমস্যার কারণেও আন্তর্জাতিকভাবে পিছিয়ে পড়েছে ভারত।  
এর আগে প্রায় এক মাসের উত্তেজনা শেষে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ইউক্রেনের ডনবাস অঞ্চলে সেনা অভিযান পরিচালনার ঘোষণা দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবারে সকালে টেলিভিশনে প্রচারিত হওয়া ঐ ভাষণে পুতিন পূর্ব ইউক্রেনের সেনাদের আত্মসমর্পণ করার আহ্বান জানান এবং যেকোনো ধরনের রক্তপাতের জন্য ইউক্রেন দায়ি থাকবে বলে সতর্কও করেন তিনি। 

এরইমধ্যে রাশিয়ার ৫০ জন সৈন্য ইউক্রেনের সেনাবাহিনীর হাতে নিহত হওয়ার পাশাপাশি চারটি রাশিয়ান ট্যাংক ধ্বংস করেছে বলে দাবি করেছে ইউক্রেন। 
(খবর একাত্তর টিভি)

মন্তব্য করুন


Link copied