আর্কাইভ  রবিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২২ ● ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৯
আর্কাইভ   রবিবার ● ৪ ডিসেম্বর ২০২২
 width=

 

রংপুর সিটিতে ইভিএম সম্পর্কে জানেন না ৯০ শতাংশ ভোটার

রংপুর সিটিতে ইভিএম সম্পর্কে জানেন না ৯০ শতাংশ ভোটার

রংপুর সিটি নির্বাচনে ৩৬ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

রংপুর সিটি নির্বাচনে ৩৬ প্রার্থীর মনোনয়ন বাতিল

রংপুর সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে জেলা আ'লীগের মতবিনিময়

রংপুর সিটি নির্বাচনে নৌকার প্রার্থীর সঙ্গে জেলা আ'লীগের মতবিনিময়

রংপুর সিটি নির্বাচন ; ২৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী নেছার আহমেদ এর ইশতেহার ঘোষণা

রংপুর সিটি নির্বাচন ; ২৮ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী নেছার আহমেদ এর ইশতেহার ঘোষণা

 width=
শিরোনাম: স্বর্ণের দামে রেকর্ড       রংপুর সিটিতে ইভিএম সম্পর্কে জানেন না ৯০ শতাংশ ভোটার       পঞ্চগড়ে মাটিবাহী ট্রাক্টর চাপায় শিশুর মৃত্যু       কোতয়ালী থানার এসআই হাবীবের অনন্য স্বীকৃতি অর্জন       নির্বাচন কমিশন যেন একটি সুষ্ঠু নির্বাচনের ব্যবস্থা করে- বদিউল আলম মজুমদার      
 width=

দাপুটে জয়ে সিরিজ বাংলাদেশের

বৃহস্পতিবার, ১৪ জুলাই ২০২২, রাত ১২:৪১

নিজেদের প্রিয় ফরম্যাটে ফিরেই জ্বলে উঠল বাংলাদেশ। সিরিজের প্রথম ওয়ানডেতে সহজ জয়ের পর দ্বিতীয় ম্যাচেও দাপট দেখিয়ে সিরিজ নিশ্চিত করল টিম টাইগাররা। তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের দ্বিতীয়টিতে ৯ উইকেটের বিশাল জয় পেয়েছেন তামিম ইকবালরা।

মিরাজ-নাসুমের ঘূর্ণির পর তামিম, শান্ত ও লিটনের দৃঢ় ব্যাটিংয়ে জয় সহজ হয় বাংলাদেশের। এক ম্যাচ হাতে রেখে বাংলাদেশ ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে গেল।

ওয়ানডেতে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে এনিয়ে টানা ১০ জয় পেল বাংলাদেশ। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের পর দলটির বিপক্ষে বাংলাদেশ হারেনি কোনো ম‍্যাচ। সিরিজ জিতল টানা ৪টি।

বুধবার গায়ানার প্রভিডেন্স স্টেডিয়ামে ম্যাচটি বাংলাদেশ সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় শুরু হয়। যেখানে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন টাইগার অধিনায়ক তামিম ইকবাল। সফরকারী বোলারদের ঘূর্ণিতে প্রথমে ব্যাট করা ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৩৫ ওভারে মাত্র ১০৮ রানে গুটিয়ে যায়। জবাবে এক উইকেট হারিয়ে ও ২০.৪ ওভারেই জয় পায় বাংলাদেশ।

১০৯ রানের লক্ষ্যে খেলতে নেমে ইতিবাচক শুরু পায় বাংলাদেশ। উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ইকবাল ও নাজমুল হোসেন শান্ত ১২.১ ওভারে ৪৮ রান তোলেন। গুডাকেশ মোটির বলে শান্ত ব্যক্তিগত ২০ রানে ফেরেন। তবে আর কোনো ভুল হতে দেননি তামিম-লিটন জুটি। এসময় দ্রুত গতিতেও ব্যাট চালান তারা।

জুটিতে ৫১ বলে অপরাজিত ৬৪ রান আসে। অধিনায়ক তামিম ৬২ বলে ৭টি চারে ওয়ানডে ক্যারিয়ারের ৫৩তম ফিফটি করে ঠিক ৫০ রানে অপরাজিত থাকেন। অন্যপ্রান্তে ২৭ বলে ৬টি চারে ঝড়ো ৩২ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন লিটন দাস।

উইন্ডিজ ইনিংসের দলীয় ১১তম ওভারের তৃতীয় বলে ওপেনার কাইল মেয়ার্সকে ব্যক্তিগত ১৭ রানে বোল্ড করেন মোসাদ্দেক হোসেন। স্বাগতিকদের দলীয় ৩৯ রানের মাথায় আঘাত করেন নাসুম আহমেদ। তিনি শামারাহ ব্রুকসকে ৫ রানে বোল্ড করে ওয়ানডের অভিষেক উইকেট তুলে নেন।

১৮তম ওভারে এসে জোড়া আঘাত করেন বাঁহাতি স্পিনার নাসুম। ওভারের চতুর্থ ও ষষ্ঠ বলে তিনি যথাক্রমে ওপেনার শাই হোপ (১৮) ও ক্যারিবীয় অধিনায়ক নিকোলাস পুরানকে ফেরান। পুরানকে শূন্য রানে বোল্ড করেন।

পেসার শরীফুল ইসলাম বোলিংয়ে এসেই উইকেট তুলে নেন। তিনি মাহমুদউল্লাহর ক্যাচে রোভম্যান পাওয়েলকে (১৩) ফেরান। এরপর উইকেটে থিতু হওয়া চেষ্টা করা ব্র্যান্ডন কিংকে বোল্ড করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। পরে ব্যক্তিগ ২ রানে রান আউটের শিকার হন আকিল হোসেন।

তাসের ঘরের মতো ভেঙে পড়া উইন্ডিজ ব্যাটিংয়ের অষ্টম, নবম ও দশম উইকেট তুলে নেন মিরাজ। তিনি রোমারিও শেফার্ডকে বোল্ড করার পর আলজারি জোসেফকেও ফেরান। এরপর শেষ ব্যাটার গুডাকেশ মোটিকে এলবি করেন তিনি।

বাংলাদেশ বোলারদের মধ্যে মিরাজ সর্বোচ্চ ৪টি উইকেট পান। নাসুম ৩ উইকেট দখল করেন। মোসাদ্দেক ও শরীফুল একটি করে উইকেট পান।

মন্তব্য করুন


Link copied