আর্কাইভ  মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২ ● ১৯ আশ্বিন ১৪২৯
আর্কাইভ   মঙ্গলবার ● ৪ অক্টোবর ২০২২
 
 
শিরোনাম: জাতীয় গ্রিডে বিপর্যয়: দেশের অধিকাংশ জেলায় বিদ্যুৎ নেই       মাইক্রোবাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে সেতুর রেলিংয়ে ধাক্কা, নিহত ৪       এইচএসসি পরীক্ষা নিয়ে শিক্ষামন্ত্রীর কঠোর হুঁশিয়ারি       দিনাজপুরে ইউএনও হত্যা চেষ্টা  স্পর্শকাতর মামলার রায় পিছিয়ে গেলো       নানার বাড়ি বেড়াতে এসে প্রাণ গেল অপূর্বের      

রংপুরের তরুণদের উদ্যোগে নতুন ভাবে "ওরে গাড়িয়াল বন্ধু রে" (ভিডিও)

বুধবার, ৪ মে ২০২২, দুপুর ১২:০৯

স্টাফ রিপোর্টার: রংপুরের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য ভাওয়াইয়া গানকে নতুন ভাবে দর্শকদের কাছে উপস্থাপনের উদ্যোগ নিয়েছে কিছু তরুণ। তারই ফলশ্রুতিতে রিলিজ হলো আব্দুল করিমের লেখা ও সুর করা "ওরে গাড়িয়াল বন্ধু রে"।

আয়োজকরা জানান, ভাওয়াইয়া রংপুর অঞ্চলের মানুষদের আবেগ ও ভালোবাসার নাম। ভাওয়াইয়া গান সঙ্গীত বিশ্বে রংপুরের প্রতিনিধিত্ব করে থাকে। তবে দুর্ভাগ্যজনক সত্য হচ্ছে সময়ের সাথে পাল্লা দিতে গিয়ে জনপ্রিয়তা হারাচ্ছে ভাওয়াইয়া গান। তাই দর্শক স্রোতাদের নতুন কিছু দেওয়ার জন্য নতুনভাবে ভাওয়াইয়া গানকে উপস্থাপনা করার চেষ্টা করা হচ্ছে। আর সেই প্রয়াসের প্রথম উপস্থাপনা হলো "ওরে গাড়িয়াল বন্ধু রে"। 

গানটি দেখতে ক্লিক করুন: ORE GARIAL BONDHU RE | BHAWAIYA SESSIONS

গানটিতে কণ্ঠ দিয়েছেন এ প্রজন্মের শিল্পী: নুসরাত জাহান ইরা। কী-বোর্ডে ছিলেন, মাহমুদুল পলাশ এবং সাদমান সাকিব প্রাণ, ড্রামসে ফাহিম ইসলাম, একুস্টিক গিটারে মাহথির শিপন,  বেজ গিটারে তাহজিব উর রশিদ আদিব, সাইট ভোকালে গালিব আসাদ ও ফেরদৌস বাপ্পি, লাইভ সাউন্ড ইঞ্জিনিয়ার ফরহাদ হোসেন, চিত্রগ্রাহক সেফাত রহমান ও ফজলে রাব্বি। 

নির্বাহী প্রযোজক হিসেবে ছিলেন সাদমান সাকিব প্রাণ, গিটার ও অডিও প্রযোজনা করেছেন আরাফাত বসনিয়া। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে রয়েছে উত্তরবাংলা ডটকম। গানটি ধারণ করা হয়েছে রংপুরের শিমুলবাগ কমিউনিটি সেন্টারে।

প্রযোজক আরাফাত বসনিয়া বলেন, যে কোন গান একই ভাবে শুনতে শুনতে মানুষের মধ্যে একটা সময় আর আগ্রহ থাকে না। তাই মানুষের সেই আগ্রহকে ধরে রাখতে আমরা চেষ্টা করছি ভাওয়াইয়াকে নতুন ভাবে দর্শক স্রোতাদের কাছে উপস্থাপন করতে। আমাদের সেই চেষ্টার প্রথম ধাপ হলো "ওরে গাড়িয়াল বন্ধু রে"। আমরা আরও গান নিয়ে কাজ করছি। ধাপে ধাপে সেগুলোও রিলিজ দেওয়া হবে। 

মাহথির শিপন বলেন, আমাদের সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যকে নতুনভাবে দর্শক-স্রোতাদের কাছে তুলে ধরার একটা প্রচেষ্টা হলো এই গান। আশা করি সবার ভালো লাগবে। 

উত্তরবাংলা ডটকম এর প্রকাশক মুরাদ মাহমুদ বলেন, সময়ের সাথে পাল্লা দিতে গেলে সবকিছুকেই হালনাগাদ করা দরকার। তেমনি ভাওয়াইয়াকে নতুনভাবে উপস্থাপনের যে উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সেটা সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। গানটি অনেক ভালো হয়েছে। আশা করি তাদের এই প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে। 

মন্তব্য করুন


Link copied