আর্কাইভ  সোমবার ● ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ● ২৪ মাঘ ১৪২৯
আর্কাইভ   সোমবার ● ৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩

শিরোনাম: রংপুরে শিবিরের ৬ নেতা কর্মী গ্রেফতার       রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে দুদকের অভিযান       তুরস্ক ও সিরিয়ায় ভূমিকম্পে নিহত ১২০০ ছাড়াল       ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৫৬০, তুরস্কে জরুরি অবস্থা ঘোষণা       ভূমিকম্পে তুরস্ক-সিরিয়ায় ৩১৩ জনের মৃত্যু      

পঞ্চগড়ে ৬ বাচ্চাসহ মা কমলাবতী উদ্ধার

রবিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২৩, দুপুর ১১:২৯

পঞ্চগড়: দেশের বিরল প্রজাতির রেড কোরাল কুকরি সাপের ছয়টি বাচ্চা ও তাদের মাকে উদ্ধার করেছে 'সাপ বন্ধু' বলে পরিচিত পঞ্চগড়ের শহিদুল। শনিবার (২১ জানুয়ারি) বিকেলে পঞ্চগড়ের আটোয়ারী উপজেলার মির্জাপুর ইউনিয়নের সরদারপাড়া এলাকা থেকে সাপগুলো উদ্ধার করা হয়। 

স্থানীয়রা জানান, ওই এলাকার খলিল মেম্বার বাড়ির পাশে স্কেভেটর দিয়ে বাঁশবাগান কেটে পুকুর খনন করছিলেন। স্কেভেটর দিয়ে কাটা মাটি ট্রাক্টর দিয়ে অন্যত্র নেওয়া হচ্ছিল। এ সময় বিরল প্রজাতির দুটি রেড কোরাল কুকরি বের হলে স্থানীয় কয়েকজন সাপ দুটি মেরে ফেলেন। পরে আরো সাপ দেখতে পেয়ে স্কেভেটরচালক বাংলাদেশ বন্য প্রাণী ও সাপ উদ্ধারকারী দলের সভাপতি শহিদুল ইসলামকে অবহিত করেন। খবর পেয়ে তিনি দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে একটি মা রেড কোরাল কুকরি ও তার ছয় ছানাকে উদ্ধার করে নিরাপদ প্রকৃতিতে অবমুক্ত করেন। এ সময় সাপ হত্যা না করতে স্থানীয়দের মাঝে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালান তিনি। 

২০২১ সালের ৮ ফেব্রুয়ারিতে বাংলাদেশে প্রথম এই সাপটির দেখা মেলে উত্তরের জেলা পঞ্চগড়ে। জেলার বোদা উপজেলার ঝলই শালশিরি ইউনিয়নের কালিয়াগঞ্জ এলাকা থেকে স্কেভেটরের আঘাতে আহত ওই রেড কোরাল কুকরি সাপটি উদ্ধার করেন শহিদুল ইসলাম। প্রথমবার দেশে বিরল প্রজাতির এই সাপের দেখা মেলায় বেশ আলোচনার সৃষ্টি হয়। সাপটি নিয়ে গবেষণাও করা হয়। রেড কোরাল কুকরি ১০৩তম দেশীয় সাপ হিসেবে স্বীকৃতি পায়। সাপটি কমলাবতী নামেও পরিচিত। পরে এই প্রজাতির আরো কয়েকটি সাপ উদ্ধার করেন শহিদুল।  

শহিদুল ইসলাম বলেন, শুধু অসচেতনতার জন্য মানুষ সাপ দেখামাত্রই হত্যা করতে উদ্যত হয়। আসলে সাপ আমাদের শত্রু নয়, বন্ধু। এখন তাদের আবাসস্থল হুমকিতে পড়েছে। ঝাড়-জঙ্গল কেটে জমি তৈরি করা হচ্ছে। তাই তারা নিরাপদ আশ্রয়ের জন্য বের হচ্ছে। তাদের হত্যা না করে প্রকৃতিতে ছেড়ে দেওয়ার অনুরোধ জানান তিনি। শহিদুল সাপকে তার নিরাপদ আবাসে ফিরিয়ে দেওয়ার মধ্যেই বড় আনন্দ তার। 

মন্তব্য করুন


Link copied